দোহায় কাতার ম্যাচ শেষ হওয়ার পরপরই ভারতীয় দলের ক্রোট কোচ বলেছিলেন বাংলাদেশের বিরুদ্ধে তিনি যুবভারতীতে প্রচুর দর্শক দেখতে চান। কিছুদিন পর একই কথা শোনা যায় অধিনায়ক সুনীল ছেত্রীর মুখে। সুনীল এই শহরে খেলেছেন। তিনি যানেন যুবভারতী যখন ভর্তি যবভারতী ঠিক কেমন। গুয়াহাটিতে বাংলা দেশ ম্যাচের প্রস্তুতি পর্ব শুরুর সময়ও ইগর স্টিমাচ বলেছিলেন কলকাতাই ভারতীয় ফুটবলের মক্কা। কিন্তু অনেকেই আশঙ্কার ছিলেন পূজোর মরসুমে যুবভারতীত ভড়বে তো? সেই আশঙ্কাকে উড়িয়ে দিল শহর কলকাতা। টিকিট বিক্রির হার বলছে হাউস ফুল যুবভারতীকে পাশে পেতে চলেছেন সুনীলরা। 

আরও পড়ুন - শহরে পা রাখলো ব্লু টাইগার্স, সুনীলদের নিয়ে প্রবল উন্মাদনা বিমানবন্দরে

উত্তর থেকে দক্ষিণ, ইস্টবেঙ্গল থেকে মোহনবাগান, মঙ্গলবাবের ম্যাচের জন্য প্রস্তুতি পর্ব শুরু করেদিয়েছেন ফুটবল প্রেমীরা। মোহনবাগানের ফ্যান ক্লাব মেরিনার্স দ্য এক্সট্রিম, ইস্টবেঙ্গল আলট্রাস সবাই তৈরি নিজেদের টিফো নিয়ে। সঙ্গে আছে টিম ব্লু পিলগ্রিমস। যুবভারতী মঙ্গলবার এক সুরে গলা ফাটাতে তৈরি। ভারতীয় দলের রূপ বদলে যাওয়ার পর ব্লু টাইগার্সরা এই শহরের বুকে খেলেনি। এবার তারা আবার ফিরে এসেছে ভারতীয় ফুটবলের মক্কায়। স্টিমচ যেটা চেয়েছিলেন সেটা তিনি পাচ্ছেন। বিমান বন্দরে ভারতীয় দল পৌছানোর পর থেকেই সেই উন্মাদনার সেই ছবি স্পষ্ট।

আরও পড়ুন - তল খুঁজে পেল না দক্ষিণ আফ্রিকা, পুণেতে প্রোটিয়াসদের ইনিংসে হারিয়ে সিরিজ জিতল বিরাটের ভারত

ইস্টবেঙ্গল মোহনবাগানে খেলে যাওয়া একাধিক ফুটবলরে খেলতে দেখা যাবে মঙ্গবারের যুবভারতীতে। ভারতীয় দলের দুই তারকা, সুনীল গুরপ্রীত যেমন আছেন তেমনই আছেন, আদিল খান, নিখিল পূজারী, রাহুল ভেকে, মনবীর সিংরা। বাংলার ছেলে প্রীতম, শুভাশিস, সার্থকরা দেশের জার্সিকে নিজেদের শহরে মাঠে নামার সুযোগ পেতে চলেছেন। তারাও মুখিয়ে। সব মিলিয়ে শহর কলকাতায় উত্সবের মেজাজে ফুটবল উত্সব। 
আরও পড়ুন - বিরাটের কথার মান রাখলেন ঋদ্ধি, প্রমাণ করলেন তিনিই সেরা