ঘরের মাঠে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে উইকেটে পেছনে কে থাকবে? ঋষভ পন্থ না ঋদ্ধিমান সাহা ? বিশাখাপত্তনমে প্রথম টেস্ট শুরু হওয়ার আগেই ভারতীয় দলের কোচ ও অধিনায়ক জানিয়ে দিয়েছিলেন ঘরের মাঠে বাংলার ছেলেই থাকবেন উইকেটের পেছনে। প্রথম টেস্টে নামার আগে অধিনায়ক বিরাট বলেছিলেন ঋদ্ধি শুধু ভারতের নয় বিশ্বের সেরা উইকেট কিপার। অধিনায়ক যখন এতটা আস্থা রেখেছেন তখন সেই আস্থার মান রাখার দায়িত্ব ছিল বাংলার পাপালির হাতে। প্রথম টেস্টে সেভাবে সুযোগ আসেনি।  তবে দ্বিতীয় টেস্ট পাপালি বুঝিয়ে দিলেন কেন তাঁকে বিরাট বিশ্বের সেরা উইকেট কিপার বলেছেন। 

আরও পড়ুন - ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা টেস্ট ম্যাচের মাঝেই শর্ট স্কোয়ার লেগে দুরন্ত ক্যাচ ভিভিএস লক্ষ্মণের

টেস্টর দ্বিতীয় দিন উমেশের বলে লেগ সাইডে ঝাঁপিয়ে একটা ক্যাচ ধরেছিলেন ঋদ্ধি, কিন্তু বল আগেই মাটি ছুঁয়ে যাওয়ার আউট হননি টেম্বা বাভুমা। তৃতীয় দিন আবার সেই উমেশের বলেই দুরন্ত ক্যাচ ধরলেন পালালি। আর ম্যাচের চতুর্থ দিনটা যেন তারই। প্রথমে অশ্বিনের বলে ফাফ ডুপ্লেসির ক্যাচ হাত থেকে ফস্কে যাচ্ছিল। কিন্তু ঋদ্ধিমান হয়ে উঠলেন সুপারম্যান। সামনের দিকে ডাইভ দিয়ে ধরলেন ক্যাচ। তারপর আবার উমেশের বলে লেগ সাইডে ঝাঁপিয়ে অনবদ্য ক্যাচ ধরেলন ঋদ্ধি। বিরাট সহ গোট ভারতীয় ফেটে পড়ে উল্লাসে। 

 

 

আরও পড়ুন - মেয়ের নাচের ভিডিও পোস্ট করে ইনস্টাগ্রামে ঝড় তুললেন মহম্মদ শামি

চোটের জন্য জাতীয় দল থেকে ছিটকে গিয়েছিলেন। তাঁর জায়গায় দলে এসে ঋষভ ব্যাট হাতে কয়েকটি ভাল ইনিংস খেলায় অনেকর মনে হয়েছিল ঋদ্ধিবুঝি আর জাতীয় দলের ফিরতে পারবেন না। কিন্তু বাংলার ছেলে আস্থা হারাননি। একই সঙ্গে ঋষভও প্রথমে চমক দেখিয়ে তারপর ব্যর্থ। তাই ঘরের মাঠে নিজের জায়গা ফিরে পেলেন বাংলার ছেলে। আর উইকেটের পেছনে তিনি যে সত্যই সেরা সেটাও প্রমাণ করে ছাড়লেন ঋদ্ধিমান সাহা। 

আরও পড়ুন - পাক দলের অধিনায়কত্ব যেতে পারে সরফরাজের, চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আগামী সপ্তাহে