আইএসএলের ক্রীড়াসূচি ঘোষণা হয়েছে শুক্রবার। তার চব্বিশ ঘণ্টার মধ্যেই আইএসএল সংক্রান্ত একটি বিজ্ঞাপনকে কেন্দ্র করে তৈরি হল বড়সড় বিতর্ক। 

শনিবার দুপুরে সোশ্যাল মিডিয়ায় আইএসএলের হ্যান্ডলে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় অভিনীত একটি ভিডিয়ো পোস্ট করা হয়। তাতে দেখা যাচ্ছে একই বাড়িতে বাবা মোহনবাগানের সমর্থক, ছেলে এটিকের ভক্ত। দুজনে প্রিয় দলের জার্সি একটি ওয়াশিং মেশিনের মধ্যে ঢুকিয়ে দিচ্ছেন। ব্যাকগ্রাউন্ডে সেই সময় সৌরভ বলছেন যে দুটি দলের আবেগের জন্ম ছয় বছর আগে, এবং দুটি আবেগ যখন এক হয়ে মাঠে নামবে তখন এটিকে-মোহনবাগানের জেতা আটকাতে সমস্যায় পড়বে বাকি দলগুলি। তার পরের দৃশ্যেই দেখা যাচ্ছে ওয়াশিং মেশিনের ভিতর থেকে এটিকে-মোহনবাগানের জার্সি বার করে পরে উল্লাস করতে করতে বারান্দায় গিয়ে দাঁড়ালেন বাবা-ছেলে। নীচে রাস্তায় নিজের দলের সমর্থকদের চিৎকার করে বলছেন যে এই বার তারাই জিতবেন। এই শুনে উল্টো দিকের বারান্দা থেকে আরও দুই লাল-হলুদ সমর্থকের পাল্লা জবাব, ‘‘আমরাও কিন্তু মাঠে আছি। আমাদের ভুলে গেলে নাকি?’’ 

এই ভিডিয়ো পোস্ট হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্ষোভ উগরে দিতে শুরু করেন সবুজ-মেরুন সমর্থকেরা। তাদের প্রথম দাবি যে মোহনবাগানের মতো শতাব্দীপ্রাচীন ক্লাবকে ছয় বছরের আবেগ বলার ভুল বিজ্ঞাপনদাতারা কিকরে করলেন। তা ছাড়া বিজ্ঞাপনটি সম্পর্কে আরও নানা অভিযোগ ঝড়ের মতো ভেসে আসতে থাকে। পরিস্থিতি সামলাতে ঘণ্টাখানেকের মধ্যেই এটিকে-মোহনবাগান বোর্ডের অন্যতম এক ডিরেক্টর দেবাশীষ দত্ত বিবৃতি দিয়ে বলেন, ‘‘এটিকে-মোহনবাগানের তরফে আমি আশ্বস্ত করছি, আমাদের বোর্ড সমর্থকদের আবেগকে সম্মান করবে। আমাদের শীর্ষ কর্তারা গুরুত্বের সঙ্গে এই বিষয়টা দেখছেন। আইএসএলের তরফে দ্রুত সমাধানের আশ্বাস দেওয়া হয়েছে।’’ তাতেও যে আগুন নেভার লক্ষণ দেখা গিয়েছে এমন না। রবিবার অবধিও সোশ্যাল মিডিয়ায় এটিকে ভক্ত ও মোহনবাগান ভক্তদের মধ্যে বাকবিতন্ডা লক্ষ‍্য করা গিয়েছে। বলাই বাহুল্য, পরিস্থিতিটি তাড়িয়ে তাড়িয়ে উপভোগ করছেন ইস্টবেঙ্গল সমর্থকরা।