কলকাতার কথা তিনি ফুটবলারদের কাছে শুনেছেন। বিশ্বকাপের যোগ্যতা নির্নায় পর্বে কলকাতার যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গনে খেলা যেনে ভারতীয় ফুটবলাররা উচ্ছ্বসিত। সেটা দেখেই যেন কলকাতার প্রেমে পরে গেছেন ভারতীয় দলের কোচ ইগর স্টিমাচ। তাঁর মুখ থেকেও বেড়িয়ে আসছে সেই পুরোন কথা, ‘কলকাতাই ভারতীয় ফুটবলের মক্কা।’ কাতার ম্যাচের পরই বলেছিলেন কলকাতার দর্শক ভর্তি মাঠ দেখতে চান তিনি। ইগর কে নিরাশ করছে না শহর কলকাতা। অন্তন ফেডারেশেনের হিসেব তাই বলেছে। যুবভারতীর ম্যাচের জন্য দিন কয়েক আগেই অন লাইন টিকিট বিক্রি শুরু করেছিল এআইএফএফ। পূজোর আনন্দের মাঝেও টিকিট বিক্রির হার দেখে খুশি ফেডারেশন কর্তারা। তাই রবিবার এআইএফএফ টুইট করে জানিয়েছে মাঠে ৬০ থেকে ৬৫ হাজার দর্শক হবে বলেই তাঁদের আশা। 

আরও পড়ুন - ১৬০ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে ভারতীয় দল, পেসারদের দরাজ সার্টিফিকেট দিচ্ছেন বিরাট

 


ভারতীয় দলের ফুটবলাররা এখন গুয়াহাটিতে দশ দিনের প্রস্তুতি শিবিরে ব্যস্ত। সেই শিবির শেষ করে অক্টোবরের ১৩ তারিখ কলকাতায় পা রাখবেন সুনীলরা। তার আগে আগামী বুধবার নর্থইস্ট ইউনাইটেড এফসি’র বিরুদ্ধে একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে ভারতীয় দল। বিশ্বকাপের যোগ্যতা নির্নায়ক পর্বের প্রথম ম্যাচ গুয়াহাটিতেই খেলেছিল ভারতীয় দল। ওমানের বিরুদ্ধে সেই ম্যাচে মাঠে থেকে ব্লু টাইগার্সদের জন্য গলা ফাটিয়েছিল গোটা উত্তর পূর্বের ফুটবল প্রেমীরা। 

আরও পড়ুন - এক টেস্টে সব থেকে বেশি ছয়, আরও অনেক রেকর্ড বিশাখাপত্তনম টেস্টে

 

 


বিশ্বকাপের যোগ্যতা নির্নায়ক পর্বে এখনও একটাও জয় পায়নি ভারত। ঘরের মাঠে ওমানের কাছে হারের পর দোহায় গিয়ে এশিয়ান চ্যাম্পিয়ন কাতারে সঙ্গে ড্র করেছেন গুরপ্রীতরা। অনেকের মতেই বাংলাদেশ ম্যাচটা খুবই সহজ হবে সুনীলদের জন্য। ভারতীয় কোচ যদিও সেটা মানতে চান না। যুবভারতীতে ১৫ তারিখের  ম্যাচে বাংলাদেশের দুই ডিফেন্সিভ ব্লকারের তৈরি দেওয়াল ধসিয়ে গোলের রাস্তা খুঁজে নেওয়াই স্টিমাচের লক্ষ্য। তাই ৯০ মিনিটই আক্রমনের কথা বলছেন ব্লু টাইগার্সদের কোচ। 

আরও পড়ুন - শেষ দিন জাদেজা সামি যুগলবন্দি, প্রথম টেস্টে দক্ষিণ আফ্রিকাকে হেলায় হারাল টিম ইন্ডিয়া