অ্যান্টোনিও লোপেজ হাবাস ও কিভু ভিকুনা। দুজনেই চ্যাম্পিয়ন দলের কোচ। একজন আইএসএল জয়ী। অপরজন আইলিগ জয়ী। দুই লিগের খেলার ধরন আলাদা হলেও কৃতিত্ব কম নয় কারোরই। হাবাস এটিকে-তে তার দ্বিতীয় ইনিংসে সুযোগ পেয়েই দলকে তৃতীয়বারের জন্য আইএসএল চ্যাম্পিয়ন করেছেন। একইসঙ্গে আইএসএলের ইতিহাসে প্রথম কোচ হিসেবে দুটি ট্রফি জয়ের নজির গড়েছেন হাবাস। দলকেও তৃতীয়বার ট্রফি এনে দিয়ে সর্বাধিক আইএসএল জয়ী দল বানিয়েছেন তিনি। অপরদিকে পাঁচ বছর পর আইলিগে মোহনবাগানকে ফের ভারত সেরা করেছেন কিভু ভিকুনা। শেষ কয়েকটা মরসুমে মোহনবাগাান সাদামাটা ফুটবল খেললেও, কিভুর জমানায় সম্পূর্ণ পাল্টে যায় সবুজ-মেরুণের খেলার ধরন। আইলিগে কোনও দল কবে একতরফাভাবে পুরো মরসুম খেলেছে ও ট্রফি জিতেছে তাও মনে করে দায়। মোহনবাগানের সবটাই সম্ভব হয়েছে সৌজন্যে তাদের হেড স্যার কিভু ভিকুনা। কাকতালীয় বিষয় হল দুই স্প্যানিশ কোচের মগজাস্ত্রের উপর ভর করেই দেশের দুই লিগে ভারত সেরা হয়েছে দুই দল।

আরও পড়ুনঃঅবশেষে নবান্নের সিদ্ধান্তই মানল প্রোটিয়ারা, রাজারহাটের হোটেলই থাকবে দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দল

আগামি মরসুমে মোহনবাগানের সঙ্গে সংযুক্তি ঘটেছে এটিকের। দুটি দলই একসঙ্গে হয়ে একটি দল গড়ে আইএসএল খেলবে। আর এখানেই দানা বেধেছে বিতর্ক। কোন প্লেয়ারকে ছেড়ে কোন প্লেয়ারকে দলে রাখা হবে। বাবা দিওয়ারা না রয় কৃষ্ণা, বেইতিয়া না এডু গার্সিয়া, উইলিয়ামস না সুহের এই প্রশ্নগুলি এখন থেকেই উঠতে শুরু করেছে। সব থেকে বড় যে প্রশ্নটা দানা বাঁধছে অ্যান্টোনিও লোপেজ হাবাস না কিভু ভিকুনা, কে হবেন পড়ের মরসুমে মোহবনবাগান ও এটিকে-কে নিয়ে সংযুক্তি করা দলের কোচ। যদিও সূত্রের খবর, কোচের দৌড়ে কিছুটা হলেও এগিয়ে রয়েছেন হাবাসই। শনিবার আইএসএল চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর পরের মরসুমের জন্য় বার্তাও দিয়ে রেখেছেন এটিকের কোচ। তিনি বলেন, “যেভাবে এটিকের সমর্থকরা আমাকে ভালবাসেন, তাতে আমার মনে হয় আমার এখানেই থেকে যাওয়া উচিত। আমি এখন শুধু অপেক্ষা করছি নতুন চুক্তির। গত জুনে আমার কাছে কোনও দল ছিল না। তখনই এটিকের প্রস্তাব পায়। আমি সঙ্গে সঙ্গে রাজি হয়ে যায়। কারণ, এটিকের জন্য আমার আলাদা দুর্বলতা আছে।” শুধু তাই নয়, মোহনবাগানের উদ্দেশে ঘুরিয়ে বার্তাও দিয়েছেন স্প্যানিশ কোচ। তিনি বলছেন, “আই লিগে অন্য ধরনের ফুটবল হয়। আমি সংযুক্তিকরণ নিয়ে আলাদা কোনও পরিকল্পনা করিনি। মোহনবাগান ভারতের অন্যতম বড় ক্লাব। তবে, আমাদেরও একই উদ্দেশ্য, দেশের সেরা ক্লাব হওয়া।” উল্লেখ্য, এর আগে এটিকে কর্তারাও হাবাসের প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়েছেন। স্বাভাবিকভাবেই আগামী বছর এটিকে কোচের পাল্লাই ভারি থাকছে।

আরও পড়ুনঃমোতার্জাকে বিশাল সার্টিফিকেট তামিমের, আর কী বললেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের নতুন অধিনায়ক

আরও পড়ুনঃ'স্বাস্থ্য সবার আগে',করোনা ভাইরাস নিয়ে বার্তা মেসির

কিন্তু প্রশ্ন উঠছে কী হবে কিভু ভিকুনার ভবিষ্যৎ? তার কোচিংয়ে বাগান এবছর যে ফুটবল খেলেছে তা গত এক দশকের মধ্যে সেরা বলা যেতে পারে।  ৫ বছর পর বাগানকে আইলিগ চ্যাম্পিয়নও করেছেন স্প্যানিশ কোচ। গোটা আইলিগ এককথায় ডমিনেট করেছে মোহনবাগান। আর যে খারাপ সময় খাদের কিনারা থেকে কিভু বাগানের হাল সামলাছেন, তাতে কী পরের মরসুমে তাকে ছেটে ফেলা উচিৎ? যদিও বাগান কোচের জন্য অন্য পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানানো হয়েছে মোহনবাগান ক্লাবের তরফ থেকে। কিন্তু ক্লাবকে দেশের সেরা করার পর কোচ ছাড়া অন্য কোনও পদ কি কিভুর জন্য যাথার্থ। আর তাতে রাজিই বা হবেন কেন আইলিগ জয়ী কোচ। ফলে মোহনবাগান ও এটিকের সংযুক্তির পর কি হতে চলেছে দলের সমীকরণ, কে ইন আর কে আউট আর কার হাতেই বা উঠতে চলেছে পাল তোলা নৌকার হাল, তা জানার জন্য কিছুটা অপেক্ষা করতে হবে আমাদের সকলকে।