সময়টা ভালো যাচ্ছে না কিকে সেটিয়েনের। মরশুমের মাঝপথে কোচবদলের পর দায়িত্ব পান তিনি। আর এমন সময় তিনি দলের দায়িত্ব নিয়েছিলেন যখন বার্সেলোনা একাধিক বড় তারকা চোটের জন্য মাঠের বাইরে। সম্ভাবত এই শতাব্দীর সবচেয়ে দুর্বল বার্সেলোনা-র দায়িত্বে আনা হয়েছিল তাকে। মরশুমের মাঝপথে দায়িত্ব নিয়ে তাই প্রত্যাশামতোই সাফল্য উপহার দিতে পারেননি কাতালুনিয়ান ক্লাবকে। সম্ভবত তার অবস্থান-টাও বুঝতে পারছে ক্লাব ম্যানেজমেন্ট। তাই তাকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ অবধি সময় দিচ্ছে ক্লাব কর্তৃপক্ষ। কিন্তু সেখানে ভালো কিছু করতে না পারলে দেওয়াল লিখন এখন থেকেই পড়তে পাচ্ছেন সেটিয়েন। 

আরও পড়ুনঃজোড়া গোলের পাশাপাশি একাধিক রেকর্ড ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর

এর মধ্যেই লা-লিগা এবং কোপা দেল রে হাত থেকে বেরিয়ে যাওয়ায় বার্সা ড্রেসিংরুমে কান পাতলেই শোনা যাচ্ছে নানানরকম গুঞ্জন। কোচবদল থেকে শুরু করে মেসির ক্লাব ছাড়ার জল্পনা প্রভৃতি নানা জল্পনা ভেসে আসছে গতবারের লা-লিগা জয়ীদের অন্দরমহল থেকে। এই অবস্থা থেকে বার্সা-কে বার করতে দরকার এমন একজন কে যার ওপর সকলে ভরসা করতে পারবেন। শোনা যাচ্ছে মেসিদের সাথে আলোচনা করে সেই যোগ্য ব্যাক্তির নামও ভাবা হয়ে গিয়েছে ক্লাবের সভাপতি জোসেফ বার্তেমিউ-য়ের। তিনি হলেন বার্সায় খেলে যাওয়া কিংবদন্তি প্যাট্রিক ক্লুইভার্ট। 

আরও পড়ুনঃপদ্ম শিবিরে যোগ দিলেন মেহতাব হোসেন, বললেন 'বিজেপি ধর্মনিরেপক্ষ দল '

আরও পড়ুনঃঅ্যাবরড মেরিনার্সদের অভিনব উদ্যোগ, ২৫ জুলাই অনলাইনে মোহনবাগানের আইলিগ জয়ের সেলিব্রেশন

বার্সার হয়ে ২৫৭ টি ম্যাচ খেলে ১২২ টি গোল করা ডাচ কিংবদন্তি এরমধ্যেই কোচিং করিয়েছেন নিজের দেশকে। এইমুহুর্তে বার্সার একাডেমির ছাত্রদের দায়িত্ব সামলাচ্ছেন তিনি। বার্সার সকলেই তাকে সম্মান ও শ্রদ্ধা করে থাকেন। মেসির সাথেও তার সম্পর্ক ভালো। তিনি আসলে ফ্রাঙ্কি ডি জং, রিকি পুঁইগ, আনসু ফাতি-র মতো তরুণরা তার সাহচর্যে আরও উন্নতি করতে পারবেন বলে সকলের ধারণা। আর একাধিক ভাষা জানায় সকলের সাথে সরাসরি যোগাযোগ রাখতেও পারবেন তিনি যা একটি অত্যন্ত ইতিবাচক দিক। এখন দেখার কিকে সেটিয়েনকে সরিয়ে সত্যিই তাকে কোচ নিযুক্ত করার মতো পরিস্থিতি তৈরি হয় কিনা বার্সায়।