ময়দানের জল্পনাই শেষ পর্যন্ত সত্যি হতে চলেছে। ঘোষণাটা এখন শুধুমাত্র সময়ের অপক্ষে। একটি ইংরেজি স্পোর্টস ওয়েবসাইটের খবর অনুযায়ী, মোহনবাগানের সঙ্গে মিশে যাচ্ছে এটিকে। দুই ক্লাবের মউ চুক্তিও সাক্ষরিত হয়ে গিয়েছে। খুব শিগগিরই সরকারিভাবে তা ঘোষণা করা হবে। 

এবারের আইএসএল-এ দুরন্ত ছন্দে রয়েছে এটিকে। তাদের প্লে অফে যাওয়া অনেকটাই নিশ্চিত। আবার আই লিগ জয়ের প্রবল দাবিদার হয়ে উঠেছে মোহনবাগান। ফলে দুই ক্লাবেই এখন স্বস্তির হাওয়া। তার মধ্যেই মেলবন্ধনের কাজটা সেরে ফেলার দিকে অনেকটাই এগিয়ে গিয়েছেন দুই ক্লাবের কর্তারা। তবে ঠিক কোন কোন শর্তে এটিকে এবং মোহনবাগানের সংযুক্তিকরণ হলো, তা এখনও স্পষ্ট নয়। আনুষ্ঠানিক ঘোষণার পরই এই খুঁটিনাটি বিষয়গুলি পরিষ্কার হবে। 

এটিকে-র সঙ্গে মোহনবাগানের সংযুক্তিকরণের সম্ভাবনা দীর্ঘদিন ধরেই ছিল। এর আগে একবার অনেক দূর কথা বলেও শেষ পর্যন্ত তা চূড়ান্ত হয়নি। পরস্পরের দেওয়া শর্তে রাজি হয়নি কোনও দলই। এবার কীভাবে সেই জটিলতা কাটানো গেল, তা এখনও স্পষ্ট নয়। স্পনসরহীন মোহনবাগান কর্তারা দীর্ঘদিন ধরেই ইনভেস্টর বা স্পনসর-এর খোঁজে ছিলেন। আবার এটিকে-ও চাইছিল একই শহর থেকে যাতে আইএসএল-এ একাধিক দল না খেলে। তাছাড়া মোহনবাগানের বিপুল সংখ্যক সমর্থককেও নিজেদের দলে টানতে পারবে এটিকে। যা দলের ব্র্যান্ডিং-এ সাহায্য করবে। 

মোহনবাগান সমর্থকদের আশঙ্কা ছিল, এটিকে-র সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধলে ক্লাবের অস্তিত্ব সঙ্কটে পড়তে পারে। ঠিক কোন শর্তে শতাব্দীপ্রাচীন ক্লাবের সঙ্গে এটিকে মিশবে, এখন সেই তথ্য জানার জন্যই উন্মুখ হয়ে আছেন সবুজ- মেরুন সভ্য সমর্থকরা। 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মোহনবাগানের এক শীর্ষকর্তা ওই স্পোর্টস ওয়েবসাইট-কে সরাসরি কিছু বলতে চাননি। তিনি শুধু বলেছেন, 'এই দুই ক্লাবের সংযুক্তিকরণ নিয়ে দু' বছরেরও বেশি সময় ধরে খবর ছড়াচ্ছে। সব ক্লাবই হয় স্পনসরের মাধ্যমে নয়তো গাঁটছড়া বেঁধে নিজেদের ভিত আরও মজবুত করতে চায়।  ক্লাবের পরিচালন ব্যবস্থায় কোনও পরিবর্তন এলে আমরা অবশ্যই জানাব।