গতবছর নেশনস লিগের প্রথম আগমনে প্রতিযোগিতাটির বিজয়ী হয়েছিল পর্তুগাল। সেমিফাইনালে সুইটজারল্যান্ডকে হারিয়ে এবং ফাইনালে নেদারল্যান্ডসকে হারিয়ে প্রথম নেশনস লিগ ঘরে তুলেছিল ফার্নান্দো স্যান্টোসের দল। আজ রাত্রে তারা অভিযান শুরু করছে নেশনস লিগের দ্বিতীয় মরশুমে। যদিও এটা বলাই যায় নেশনস লিগের একটি উদ্দেশ্য হল খেলোয়াড়দের দেশের হয়ে বেশি সংখ্যক প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচ খেলার সুযোগ করে দেওয়া। তবে এই প্রতিযোগিতাকে তাই বলে হালকাভাবে নিতে নারাজ পর্তুগিজরা। 

আরও পড়ুনঃআগামি মরসুমে খেলবেন কোন দলে,জল্পনার অবসান ঘটিয়ে জানালেন খোদ মেসি

সব রকম প্রতিযোগিতা মিলিয়ে নিজেদের শেষ ৮ টি ম্যাচের মধ্যে ৭ টি-ই জিতেছে পর্তুগাল। তাদের একমাত্র হারটি এসেছে ইউরো কোয়ালিফায়ারে ইউক্রেনের বিরুদ্ধে। পর্তুগালের ফুটবলারদের বেশিরভাগই গত মরশুমে নিজ নিজ ক্লাবের হয়ে ভালো ছন্দে ছিলেন। ম্যাচে নামার আগে পর্তুগালের একমাত্র চিন্তা ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর চোট নিয়ে। পায়ের বুড়ো আঙুলে ইনফেকশন কাটিয়ে সময়মতো ম্যাচফিট হতে পারবেন কিনা জুভেন্তাস তারকা তা নিয়ে সন্দেহ থেকেই যাচ্ছে। তবে শেষপর্যন্ত তিনি না খেলতে পারলে তরুণ তারকা জোয়াও ফেলিক্স তার জায়গায় খেলতে পারেন। 

আরও পড়ুনঃবিরাট বাইরে গেলেই ২৪ ঘণ্টা অনুষ্কার সঙ্গে থাকেন এই ব্যক্তি, কে তিনি

আরও পড়ুনঃভারতীয় তারকা ক্রিকেটারের বোন, লুকস ও হটনেসে হার মানিয়েছেন ভাইয়ের জনপ্রিয়তাকে, দেখুন ছবি

অপরদিকে গত মরশুমে নেশনস লিগের মূলপর্বে পৌঁছতে ব্যর্থ হয়েছিল ক্রোয়েশিয়া। টানা ম্যাচ খেলার ধকলের জন্য জাতীয় দলের হয়ে খেলতে আসেননি লুকা মদ্রিচ এবং ইভান রাকিতিচের মতো তারকারা। নিজেদের শেষ ছয়টি ম্যাচে অপরাজিত ক্রোয়েশিয়া। মদ্রিচরা না থাকলেও পেরিসিচ, রেবিচ, কোভাসিচের মতো তারকারা। নেশনস লিগকে ইউরোর প্রস্তুতি মঞ্চ হিসাবেই মনে করছে ক্রোয়েশিয়া। আজকে পর্তুগালকে হাড্ডাহাড্ডি টক্কর দিতে মরিয়া তারা।