২০২২ ফুটবল বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জন পর্বের ম্যাচে আয়োজক দেশ কাতারের বিরুদ্ধে ১-০ গোলে হারল ভারতীয় দল। কাতারের হয়ে একমাত্র জয়সূচক গোলটি করেন আব্দুলাজিজ হাতেম। ম্য়াচে লাল কার্ড দেখেন রাহুল ভেকে। তবে ৭০ মিনিটেরও বেশি সময় ১০ জনে খেলে কাতারকে দুরন্ত লড়াই দিল ইগর স্টিমাচের দল। ১০ জন হওয়ার পর শক্তিশালী কাতারকে যেভাবে ১ গোলেই আটকে রেখেছে মেন ইন ব্লুরা তার প্রশংসা করেছেন ফুটবল বিশেষজ্ঞরা। 

 

 

ম্যাচের শুরু থেকেই একের পর এক আক্রমণ শানায় কাতারের অ্যাটাকিং লাইন। যা সামলাতে রীতিমত হিমসিম খেতে হয়  সন্দেশ ঝিঙ্গান, রাহুল ভেকেদের। ম্যাচের ১৭ মিনিটের মধ্যেই জোড়া হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন রাহুল ভেকে। ১০ জন হয়ে যাওয়ায়া আক্রমণের চাপ আরও বাড়ায় কাতার। যার ফলস্বরূপ ম্যাচের ৩৩ মিনিটে কাতারকে গোল করে এগিয়ে দেন আব্দুলাজিজ হাতেম। এরপর দুরন্ত লড়াই করে কাতারের একের পর এক আক্রণ রুথকে থাকে ভারতীয় ডিফেন্স। আরেকটু সচেষ্ট হলে মনবীর সিং গোলটাও করে ফেলতে পারত, প্রথমার্ধেই। আশিক কুরিয়নের থ্রু বক্সের মধ্যে মনবীর ধরতে পারলেই নিশ্চিত গোল পেয়ে যেত ভারতীয় দল। দ্বিতীয়ার্ধেও ডিফেন্সিভ ফুটবল খেলে ১ গোলের ব্যবধানেই বিশ্বকাপের আয়োজক দেশকে আটকে রাখে ইগর স্টিমাচের দল। প্রথম পর্বের ম্য়াচের মতই এদিনও বেশ কিছু অনবদ্য সেভ করেন গোলকিপার গুরুপ্রীত সিং সাঁধু।

 

 

ফুটবল বিশ্বকাপে যোগ্যতা অর্জনের সুযোগ আগেই হারিয়েছে টিম ইন্ডিয়া। কিন্তু গ্রুপের তৃতীয় স্থানে থাকতে পারলে খুলে য়াবে এশিয়ান কাপে খেলার দরজা। তবে এই হারের ফলে এশিয়ান কাপে কোয়ালিফাই আরও কঠিন হল ভারতের। বর্তমানে ৩ পয়েন্ট নিয়ে নিজেদের গ্রুপের চতুর্থ স্থানে রয়েছে ভারত। একই পয়েন্ট নিয়ে গোল পার্থক্যে তৃতীয় স্থানে রয়েছে আফগানিস্তান। প্রথম কাতার ও দ্বিতীয় ওমান। ফলে শেষ দুই ম্য়াচে বাংলাদেশ ও আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে ৪ পয়েন্ট দরকার ভারতীয় দলের।