শেষ কবে রিয়াল মাদ্রিদ এবং বার্সেলোনা একই ম্যাচ ডে-তে একই ব্যবধানে প্রতিপক্ষের কাছে হেরেছে তা জানতে রীতিমতো গবেষণার প্রয়োজন। কিন্তু শনিবার এমনই ঘটনা ঘটলো লা লিগায়। এ বছরই প্রমোট হয়ে টপ ডিভিশনে ওঠা কাদিজের কাছে হারলো রিয়াল মাদ্রিদ। রাতের খেলায় একই ব্যবধানে গেটাফের কাছে হারলো মেসিরা। লিগের অপর একটি খেলায় লুইস সুয়ারেজের গোলে সেল্টা ভিগো কে হারিয়েছে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ। 

শেষবার ৩০ বছর আগে লা লিগায় ১৯৯১ সালে কাদিজের বিপক্ষে ০-১ গোলে হেরেছিল রিয়াল মাদ্রিদ। এর পর দলটির বিপক্ষে শেষ ২১ বারের সাক্ষাতে হারেনি স্প্যানিশ জায়ান্টরা। কিন্তু শনিবার রাতে ঘরের মাঠেই কাদিজের বিপক্ষে সেই ০-১ ব্যবধানে হেরেছে রিয়াল মাদ্রিদ। এমন হারে বিস্মিত মাদ্রিদ সমর্থকরা। দীর্ঘ ১৪ বছর পর এবারই প্রথম ডিভিশন থেকে লা লিগায় উঠে এসেছে কাদিজ। অপেক্ষাকৃত অনেক দুর্বল দলের বিপক্ষে কত বেশি গোলে জিতবে রিয়াল মাদ্রিদ সেই হিসাব কষছিলেন সমর্থকরা। কিন্তু শনিবার রাতে সব সমীকরণ উল্টো করে দিলেন কাদিজের আরেক ফরোয়ার্ড অ্যান্থনি লোজানো। ম্যাচের প্রথমদিকে কাদিজ তার গোলে এগিয়ে যাওয়ার পর শত চেষ্টা করেও সমতা ফেরাতে ব্যর্থ হন বেনজেমারা। 

অপরদিকে রাতের খেলায় গেটাফের বিরুদ্ধে মেসি, গ্রিজম্যান, ডেমবেলে ত্রয়ীকে দিয়ে আক্রমণ সাজিয়েছিলেন বার্সা বস কোম‍্যান। কিন্তু প্রথমার্ধে গোল না আসায় আনসু ফাতি ও ফিলিপ কুটিনহোকে মাঠে আনেন তিনি। কিন্তু তাতে লাভ হয়নি। বরং ৫৬ মিনিটে জেইমে মাতার পেনাল্টি গোল এগিয়ে দেয় গেটাফেকে। বার্সেলোনার হয়ে ৩ ম্যাচ গোল করতে ব্যর্থ হলেন মেসি। কাল তার একটি শট পোস্টে লাগে। এই হারের ফলে বার্সা রইলো ৯ নম্বরে। যদিও শীর্ষে থাকা বিয়াল মাদ্রিদের চেয়ে তারা এক ম্যাচ কম খেলে মাত্র তিন পয়েন্টে পিছিয়ে।