আজ রাতে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের মহাগুরুত্বপূর্ণ বার্সেলোনা বনাম জুভেন্তাস ম্যাচের আগে ঘটে গেল দুটো বড় ঘটনা।  প্রথমত, ফুটবল ক্লাব বার্সেলোনার প্রেসিডেন্ট পদ থেকে পদত্যাগ করলেন জোসেপ বার্তোমেউ! যে ঘটনা নিঃসন্দেহে স্বস্তি দেবে বার্সা অধিনায়ক লিওনেল মেসিকে। দ্বিতীয়ত, তৃতীয়বারের জন্য করোনা পজিটিভ হয়ে আজকে রাতে হতে চলা লিওনেল মেসির বার্সেলোনার বিরুদ্ধে জুভেন্তাসের দলের অংশ হতে পারছেন না ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। 

মঙ্গলবার গভীর রাতে নাটকীয় ভাবে পুরো বোর্ড সহ পদত্যাগ করলেন জোসেফ মারিয়া বার্তোমিউ। গত ১৭ বছরে বার্সেলোনা ক্লাবে এই ঘটনা ঘটেনি। অপসারণ নিয়ে এমনিতেই প্রাক্তন বার্সা প্রেসিডেন্টের উপর চাপ উত্তরোত্তর বাড়ছিল। বায়ার্ন মিউনিখের কাছে গত চ্যাম্পিয়ন্স লিগে আট গোলের বিপর্যয়ের পর লিওনেল মেসি যে বার্সেলোনা ছাড়তে চেয়েছিলেন, তার নেপথ্য কারণ ছিলেন বার্তোমেউ এবং তার ক্লাবকে নিয়ে ভালো কোনও পরিকল্পনার অভাব, সেটা মেসি আগেই জানিয়েছিলেন। এমনিতেই আগামী বছর মার্চে নিজের মেয়াদ শেষ করে সরে যাওয়ার কথা ছিল বার্তামেউয়ের। কিন্তু মেসি কাণ্ডের পর বাকি সদস্যরা বার্সেলোনা প্রেসিডেন্টের উপর এতটাই চটে যান যে, তাঁর বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব এনে সরিয়ে দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়ে যায়। বলা হচ্ছে, বার্তোমিউ বুঝতেই পেরেছিলেন যে, তাঁর বিদায় নিশ্চিত। তাই নিজে থেকে তিনি সরে গেলেন। নইলে তাঁর বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব এসে ভোটাভুটি করে সরিয়ে দেওয়া হত। সেই ভোটাভুটি আটকানোর চেষ্টা করেছিলেন তিনি। তাতে শেষপর্যন্ত সফল না হয়ে পদত্যাগের রাস্তাই বেছে নিলেন তিনি।

অপরদিকে মাঠের বাইরে দীর্ঘদিন বসে থেকে এইবার ধৈর্য হারিয়েছেন রোনাল্ডো। কিভাবে যে তার শরীরে করোনা প্রবেশ করেছে সে সম্পর্কে কোনও ধারনাই নেই তার, সেই কথা আগেই জানিয়েছিলেন। এবার ইন্সট্রাগ্রামে তিনি সম্পূর্ণ সুস্থ তা জানিয়ে ক্ষোভ উগরে দিলেন করোনা ভাইরাস নির্ণায়ক পরীক্ষা পিসিআরের বিরুদ্ধে। ওই পরীক্ষাকে যাচ্ছেতাই বলে মন্তব্য করেছেন কিংবদন্তি ফুটবলার। এর থেকেই পরিষ্কার বোঝা যাচ্ছে আজ রাতে লিওনেল মেসিদের বিরুদ্ধে নামতে না পেরে কতটা হতাশ তিনি। কবে যে মাঠে ফিরবেন পর্তুগিজ মহাতারকা তা এখনও স্পষ্ট নয়। তাকে ছাড়া লিগে টানা দুটি ম্যাচে জয় পায়নি জুভেন্তাস। আজ রাতে আন্দ্রেয়া পিরলোর, ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো হীন জুভেন্তাস মেসিদের বিরুদ্ধে কেমন খেলে সেদিকে চোখ গোটা বিশ্বের। এমনিতে ক্লাসিকো হারের পর স্বস্তিতে নেই বার্সা। ক্লাবের ভেতর থেকে অন্তর্দ্বন্দ্বর খবরও উঠে এসেছে। আজকের ম্যাচ জিতে সেই অস্বস্তিকর আবহাওয়া থেকে বেরিয়ে আসতে চান মেসিরা।