চতুর্থবারের মতো ফিফা মহিলা বিশ্বকাপ জিতল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। রবিবার ফাইনালে নেদারল্যান্ডস-এর বিরুদ্ধে মেগান রাপিনো এবং রোজ ল্যাভেলের করা গোলে ২-০ ব্যবধানে জয় পেল তারা। প্রথমবার ১৯৯১ সালে মহিলা বিশ্বকাপ জিতেছিল আমেরিকা। তারপর ১৯৯৯ ও ২০১৫ অর্থাৎ গতবারও বিশ্বকাপ জিতেছিল তারাই। এইবারও জেতার ফলে মহিলা বিশ্বকাপে প্রথম দল হিসেবে মার্কিন মহিলা ফুটবলাররা কাপ ধরে রাখলেন।

ধারে ভারে নেদারল্যান্ডসের থেকে অনেকটাই এগিয়েছিল মার্কিন য়ুক্তরাষ্ট্র। প্রথমার্ধেই দুটি গোলের সম্ভাবনা তৈরি করেছিলেন মার্কিন ফুটবলার অ্যালেক্স মর্গ্যান। কিন্তু এরপর নেদারল্যান্ডসের উপর চাপ বাড়ায় মার্কিনিরা। ডাচ গোলরক্ষক সারি ভ্যান ভেনেন্ডলালকে একের পর এক পরীক্ষা দিতে হয়েছে।

তবে ফাইনালে ডাচরাও ছেড়ে কথা বলেনি। প্রথমার্ধের শেষ দিকে তাদের ভিভিয়ানে মিয়েদিমা এবং শেরিডা স্পিটসে দুটি বাল সুযোগ পেয়েছিলেন। কাজে লাগাতে পারলে ম্যাচের ফল অন্যরকম হতে পারত।

প্রথমার্ধে গোল না পেয়ে দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই একেবারে তেড়েফুড়ে শুরু করেছিল আমেরিকা। আর তাদের লাগাতার আক্রমণের পুরস্কার আসতেও দেরি হয়নি। ম্য়াচের এক ঘন্টার মাথায় ডাচ ডিফেন্ডার স্টেফ্যানি ভ্যান ডের গ্র্যাগ্ট, মার্কিন পুটবলার অ্যালেক্স মর্গানকে ফাউল করেন। হাই বুটের কারণে পেনাল্টি দেওয়া হয়। আর তার থেকে গোল করে যান রাপিনো। এর ৮ মিনিট পরই মাঝমাঠ থেকে এক দুরন্ত দৌড়ে গোল করে যান রোজ ল্যাভেল।

দুই গোল খাওয়ার পর নেদারল্যান্ডস সাধ্যমতো চেষ্টা করে গিয়েছে। তাদের লিনেথ বিরেনস্টেইন একটি ভাল সুযোগ তৈরি করেছিলেন, কিন্তু গোল আসেনি। শেষদিকে জিল এলিস দলের অভিজ্ঞতার কাছেই পরাস্ত হয় ডাচরা। ২-০ ফলেই এই বারের মহিলা বিশ্বকাপের ফাইনাল ম্যাচটি শেষ হল।