সাধারণ থেকে সেলিব্রিটি হলেন কিভাবে, দেবানন্দ থেকে নওয়াজউদ্দীন সবাই আছেন সেই তালিকায়

First Published 22, Oct 2019, 12:48 PM

এমন অনেক সময়ই হয়,সবাই যে সেলেব্রিটির ঘরেই জন্মায় তা কিন্তু নয়। অনেকের চোখেই সেলুলয়েডে নিজেকে দেখার স্বপ্ন থাকে। আর সেই স্বপ্নই তাকে জীবনের সব যুদ্ধ পার করিয়ে দেয়। দেবানন্দ থেকে নওয়াজ উদ্দীন সবাই সেই তালিকায়  আছেন। সবাই একটা সময় খুব খারাপ পরিস্থিতি থেকে উঠে এসে সবশেষে কিন্তু তারা তাদের জেদের জন্য়ই নিজের স্বপ্নকে ছুঁতে পারে।   

কিংবদন্তি দেব আনন্দ সুপারস্টার স্ট্যাটাস অর্জনের আগে একটি অ্যাকাউন্টেন্সি ফার্মে কেরানি হিসাবে কাজ করেছিলেন। চাকরি থেকে তার বেতন ছিল  মাত্র ৮৫ টাকা।

কিংবদন্তি দেব আনন্দ সুপারস্টার স্ট্যাটাস অর্জনের আগে একটি অ্যাকাউন্টেন্সি ফার্মে কেরানি হিসাবে কাজ করেছিলেন। চাকরি থেকে তার বেতন ছিল মাত্র ৮৫ টাকা।

কেউই নয়, মনোজ কুমার ওরফে ভরত কুমার বিভিন্ন স্টুডিওতে  লেখকের কাজ করেছেন এবং প্রতি দৃশ্যে তখন  তাকে ১১ টাকা দেওয়া হত।

কেউই নয়, মনোজ কুমার ওরফে ভরত কুমার বিভিন্ন স্টুডিওতে লেখকের কাজ করেছেন এবং প্রতি দৃশ্যে তখন তাকে ১১ টাকা দেওয়া হত।

মেগাস্টার হওয়ার অনেক আগে, মুম্বইয়ের মেরিন ড্রাইভে একটি বেঞ্চে শুয়ে রাত কাটিয়েছিলেন অমিতাভ বচ্চন।  তাঁকে একাধিকবার একটি রেডিও সংস্থা প্রত্যাখ্যান করেছিল। এমন কি তাঁকে অডিশনের সুযোগও পর্যন্ত দেওয়া হয়নি।

মেগাস্টার হওয়ার অনেক আগে, মুম্বইয়ের মেরিন ড্রাইভে একটি বেঞ্চে শুয়ে রাত কাটিয়েছিলেন অমিতাভ বচ্চন। তাঁকে একাধিকবার একটি রেডিও সংস্থা প্রত্যাখ্যান করেছিল। এমন কি তাঁকে অডিশনের সুযোগও পর্যন্ত দেওয়া হয়নি।

শাহরুখ খান  তিনি তার সাক্ষাত্কারে বেশ কয়েকবার উল্লেখ করেছেন যে মুম্বইতে এসে তাঁর কাছে খাওয়ার টাকা ছিল না। এমনকি ওবেরয় হোটেলের কাছে তিনি অনেক দিন রাস্তায় শুয়েছিলেন। সেই দিনগুলিতে তিনি জানতেন না এর বাইরেও যে স্বপ্নের মুম্বই আছে।

শাহরুখ খান তিনি তার সাক্ষাত্কারে বেশ কয়েকবার উল্লেখ করেছেন যে মুম্বইতে এসে তাঁর কাছে খাওয়ার টাকা ছিল না। এমনকি ওবেরয় হোটেলের কাছে তিনি অনেক দিন রাস্তায় শুয়েছিলেন। সেই দিনগুলিতে তিনি জানতেন না এর বাইরেও যে স্বপ্নের মুম্বই আছে।

গায়ক আশা ভোঁসলেকে তার প্রথম গানের জন্য ১০০ টাকা দেওয়া হয়েছিল। তিনি তার প্রথম পারিশ্রমিক সে কীভাবে ব্যয় করেছিল জানেন? মুম্বইয়ের রাস্তার পাশে স্টলে স্বামীর সঙ্গে দক্ষিণ ভারতের বাটটা ওয়াদা খেয়ে । এখন বিশ্বাস করা কঠিন হতে পারে। ১৯৫০ এর দশকে তিনি  বোরিভালীতে বাস করেছিলেন।তখন তিনি ভোরের ট্রেনে কাজে যেতেন, পথে যাত্রীদের সঙ্গে আলাপচারিতা করতে করতে।

গায়ক আশা ভোঁসলেকে তার প্রথম গানের জন্য ১০০ টাকা দেওয়া হয়েছিল। তিনি তার প্রথম পারিশ্রমিক সে কীভাবে ব্যয় করেছিল জানেন? মুম্বইয়ের রাস্তার পাশে স্টলে স্বামীর সঙ্গে দক্ষিণ ভারতের বাটটা ওয়াদা খেয়ে । এখন বিশ্বাস করা কঠিন হতে পারে। ১৯৫০ এর দশকে তিনি বোরিভালীতে বাস করেছিলেন।তখন তিনি ভোরের ট্রেনে কাজে যেতেন, পথে যাত্রীদের সঙ্গে আলাপচারিতা করতে করতে।

মিঠুন চক্রবর্তী তাঁর প্রথম দিকের দিনগুলিতে যখন তিনি মঞ্চে নেচেছিলেন, তখন তিনি তারপর খাবার পাবেন কিনা তাও নিশ্চিত ছিলেন না। তিনি প্রতিটি পারফরম্যান্সের পরে স্বপ্ন দেখতেন যে বড় কেউ তার পারফরম্যান্স দেখে  তাকে বোধহয় সুযোগ দেবেন।

মিঠুন চক্রবর্তী তাঁর প্রথম দিকের দিনগুলিতে যখন তিনি মঞ্চে নেচেছিলেন, তখন তিনি তারপর খাবার পাবেন কিনা তাও নিশ্চিত ছিলেন না। তিনি প্রতিটি পারফরম্যান্সের পরে স্বপ্ন দেখতেন যে বড় কেউ তার পারফরম্যান্স দেখে তাকে বোধহয় সুযোগ দেবেন।

রেখা, তিনি তামিল অভিনেতা জেমিনি গণেশনের ঘরে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। কিন্তু তিনি ছিলেন কুমারী মায়ের সন্তান। আসলে তাঁর মা এবং গণেশন বিবাহিত ছিল না। কিন্তু পরে তিনি তার পিতৃত্ব স্বীকার করেননি। আর্থিক সংকটে  রেখা তাঁর পরিবার নিয়ে, স্কুল ছেড়ে দিয়েছিলেন। মাত্র ১৩ বছর বয়সে তিনি মুম্বই তে এসেছিলেন এবং চলচ্চিত্রের কেরিয়ার শুরু করেছিলেন।

রেখা, তিনি তামিল অভিনেতা জেমিনি গণেশনের ঘরে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। কিন্তু তিনি ছিলেন কুমারী মায়ের সন্তান। আসলে তাঁর মা এবং গণেশন বিবাহিত ছিল না। কিন্তু পরে তিনি তার পিতৃত্ব স্বীকার করেননি। আর্থিক সংকটে রেখা তাঁর পরিবার নিয়ে, স্কুল ছেড়ে দিয়েছিলেন। মাত্র ১৩ বছর বয়সে তিনি মুম্বই তে এসেছিলেন এবং চলচ্চিত্রের কেরিয়ার শুরু করেছিলেন।

জনি লিভার তার বড় ব্রেক পাওয়ার আগে  কল্যাণজি-আনন্দজির দলের অংশ ছিলেন। সেই সময় তার হাতে খুব কমই কাজ ছিল। সেই দিনগুলিতে, তার এক বন্ধু তাকে একটি  দিয়েছিল। জনি লিভার অবশ্য় এ সম্পর্কে খুব বেশি কিছু জানতেন না।  সেই বাদ্যযন্ত্রটি তিনি কল্যাণজি-আনন্দজিকে দিয়েছিল। দুজনেই তাদের রচনাগুলিতে যন্ত্রটি ব্যবহার শুরু করেন। তারই জন্য তারা মাসে মাসে জনিকে ১০০০-১৫০০ টাকা করে দিয়েছিলেন।

জনি লিভার তার বড় ব্রেক পাওয়ার আগে কল্যাণজি-আনন্দজির দলের অংশ ছিলেন। সেই সময় তার হাতে খুব কমই কাজ ছিল। সেই দিনগুলিতে, তার এক বন্ধু তাকে একটি দিয়েছিল। জনি লিভার অবশ্য় এ সম্পর্কে খুব বেশি কিছু জানতেন না। সেই বাদ্যযন্ত্রটি তিনি কল্যাণজি-আনন্দজিকে দিয়েছিল। দুজনেই তাদের রচনাগুলিতে যন্ত্রটি ব্যবহার শুরু করেন। তারই জন্য তারা মাসে মাসে জনিকে ১০০০-১৫০০ টাকা করে দিয়েছিলেন।

অনুপম খেরের জীবনটাও প্রথমে এত সুন্দর ছিলনা। কাজ না পেয়ে হতাশ হয়ে অনুপম খের অনেক সময় বান্দ্রা থেকে চার্চগেটের ট্রেন থেকে নেমে যেতেন। কয়েক ঘন্টা এমনিই স্টেশনে বসে থাকতেন, তারপর বান্দ্রায় অন্য ট্রেন ধরে ফিরে যেতেন।

অনুপম খেরের জীবনটাও প্রথমে এত সুন্দর ছিলনা। কাজ না পেয়ে হতাশ হয়ে অনুপম খের অনেক সময় বান্দ্রা থেকে চার্চগেটের ট্রেন থেকে নেমে যেতেন। কয়েক ঘন্টা এমনিই স্টেশনে বসে থাকতেন, তারপর বান্দ্রায় অন্য ট্রেন ধরে ফিরে যেতেন।

নওয়াজউদ্দীনের সিদ্দিকির জন্ম উত্তরপ্রদেশের মুজাফফরনগরে। রসায়নের স্নাতক ডিগ্রি নিয়ে স্নাতকোত্তর করার পরে নওয়াজ এক বছর ভাদোদরায় রসায়নবিদ হিসাবে কাজ করেছিলেন। তবে শীঘ্রই তিনি ন্যাশনাল স্কুল অফ ড্রামা  থেকে অভিনয়ের কোর্স করার জন্য দিল্লির উদ্দেশ্যে রওনা হন। এনএসডি থেকে স্নাতক শেষ করার পরে, তিনি অভিনয়ে সুযোগ পাওয়ার জন্য মুম্বাই চলে যান। অবশেষে তার সুযোগ আসে।  তিনি ১৯৯৯ সালে আমির খান অভিনীত 'সরফরোশ' ছবিতে একটি ছোট চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন। কিন্তু তারপরেও তাকে এখনের নওয়াজ হিসাবে পরিচয় করাতে অনেক সময় লেগেছিল।

নওয়াজউদ্দীনের সিদ্দিকির জন্ম উত্তরপ্রদেশের মুজাফফরনগরে। রসায়নের স্নাতক ডিগ্রি নিয়ে স্নাতকোত্তর করার পরে নওয়াজ এক বছর ভাদোদরায় রসায়নবিদ হিসাবে কাজ করেছিলেন। তবে শীঘ্রই তিনি ন্যাশনাল স্কুল অফ ড্রামা থেকে অভিনয়ের কোর্স করার জন্য দিল্লির উদ্দেশ্যে রওনা হন। এনএসডি থেকে স্নাতক শেষ করার পরে, তিনি অভিনয়ে সুযোগ পাওয়ার জন্য মুম্বাই চলে যান। অবশেষে তার সুযোগ আসে। তিনি ১৯৯৯ সালে আমির খান অভিনীত 'সরফরোশ' ছবিতে একটি ছোট চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন। কিন্তু তারপরেও তাকে এখনের নওয়াজ হিসাবে পরিচয় করাতে অনেক সময় লেগেছিল।

loader