'লাভ-সেক্স-ধোকা' এটাই বলিউডের নিয়ম, যৌন সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন এই বলি তারকারা

First Published 18, Mar 2020, 12:08 PM IST

বলিউডে বির্তক লেগেই রয়েছে। বি-টাউনে  এরকম অনেক তারকারাই আছেন যারা অভিনয়ের  থেকে কন্ট্রোভার্সিতে বেশি চর্চিত হয়েছেন। অভিনয়ের জগতে আসার কিছুদিনের মধ্যে যেমন অনেকেই জড়িয়ে পড়েছেন এই রঙিন জগতে। পয়সার লালসায় এই যৌন খেলায় মেতে উঠেছেন বি-টাউনের একাংশ। অভিনয় জীবন, ব্যক্তিগত সম্পর্ক,  সমস্ত কিছুর মধ্যেই  তাদের বির্তক যেন নানা ভাবে মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছ। এহেন বিতর্কে বলিউড ইন্ডাস্ট্রির একাধিক অভিনেত্রীর নাম উঠে এসেছিল। আর তার এই  একাধিক সম্পর্কের কারণেই বারবার কলঙ্কিত হয়েছে বলিউড। বি-টাউনের এই রকম কেলেঙ্কারিতে কারা কারা জড়িত,  রইল  তালিকা।

বিপাশা বসুঃ  বলিউড অভিনেত্রী বিপাশা বসু কেলেঙ্কারিতে জড়িয়েছিলেন। ২০১১ সালে রাজনীতিবিদ অমর সিংয়ের সঙ্গে একটি ফাঁস হওয়া ফোন রেকর্ডিং তাকে শিরোনামে নিয়ে এসেছিল।  যখন জনসাধারণের মধ্যে  টেপটি প্রকাশ করা হয়েছিল, তখন  বিপাশা  রেগে গিয়ে সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছিলেন এবং সবাইকে চ্যালেঞ্জ জানিয়েছিলেন যে এই টেপগুলিতে তিনিই সিংহের সাথে যে কথা বলেছেন সেটা তারই বলা কিনা তা আগে প্রমাণিত হোক।

বিপাশা বসুঃ বলিউড অভিনেত্রী বিপাশা বসু কেলেঙ্কারিতে জড়িয়েছিলেন। ২০১১ সালে রাজনীতিবিদ অমর সিংয়ের সঙ্গে একটি ফাঁস হওয়া ফোন রেকর্ডিং তাকে শিরোনামে নিয়ে এসেছিল। যখন জনসাধারণের মধ্যে টেপটি প্রকাশ করা হয়েছিল, তখন বিপাশা রেগে গিয়ে সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছিলেন এবং সবাইকে চ্যালেঞ্জ জানিয়েছিলেন যে এই টেপগুলিতে তিনিই সিংহের সাথে যে কথা বলেছেন সেটা তারই বলা কিনা তা আগে প্রমাণিত হোক।

শাইনি আহুজাঃ টিনসেন টাউনের জনপ্রিয় অভিনেতা শাইনি অভিনেতা।  সালটা ২০০৯ । একের পর এক ছবি করে বি-টাউনে নিজের জায়গা প্রতিষ্ঠিত করেছিল। তবে কেরিয়ার যখন উর্ধ্বগগনে তখনই ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছিল অভিনেতার বিরুদ্ধে। যদি আহুজার স্ত্রী ও পরিবারের দাবি ছিল সবটাই পরিকল্পিত। কিন্তু পরে তার গৃহকর্মী আদালতে অভিযোগ ফিরিয়েও নিয়েছিল। এই অপরাধের জন্য ৭ বছরের কারাদন্ডে দন্ডিত করা হয়েছিল অভিনেতাকে। যদিও তিন বছর পরে জামিনে তাকে মুক্ত করা হয়েছিল।

শাইনি আহুজাঃ টিনসেন টাউনের জনপ্রিয় অভিনেতা শাইনি অভিনেতা। সালটা ২০০৯ । একের পর এক ছবি করে বি-টাউনে নিজের জায়গা প্রতিষ্ঠিত করেছিল। তবে কেরিয়ার যখন উর্ধ্বগগনে তখনই ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছিল অভিনেতার বিরুদ্ধে। যদি আহুজার স্ত্রী ও পরিবারের দাবি ছিল সবটাই পরিকল্পিত। কিন্তু পরে তার গৃহকর্মী আদালতে অভিযোগ ফিরিয়েও নিয়েছিল। এই অপরাধের জন্য ৭ বছরের কারাদন্ডে দন্ডিত করা হয়েছিল অভিনেতাকে। যদিও তিন বছর পরে জামিনে তাকে মুক্ত করা হয়েছিল।

আমান ভার্মাঃ টেলি ধারাবাহিকের জনপ্রিয় মুখ আমান ভার্মা। ২০০৫ সালের মার্চ মাসে একটি জনপ্রিয় নিউজ চ্যানেল  কাস্টিং কাউচ স্টিং অপারেশন প্রচার করেছিল যাতে অভিনেতা এবং হোস্ট আমান ভার্মা  ধরা পড়েছিলেন। চ্যানেলের মাধ্যমে প্রকাশিত কল রেকর্ডিংয়ে দেখানো হয়েছিল যে অভিনেতা কীভাবে একজন সাংবাদিককে সিনেমাতে তার চরিত্রে অভিনয় করার অজুহাতে তার অ্যাপার্টমেন্টে তাকে নিয়ে এসেছিলেন। শুধু তাই নয়, পরবর্তী ভিডিওগুলিতে দেখা যায় মেয়েটির  আরও কাছে আসতে দেখা যায়  আমানকে।

আমান ভার্মাঃ টেলি ধারাবাহিকের জনপ্রিয় মুখ আমান ভার্মা। ২০০৫ সালের মার্চ মাসে একটি জনপ্রিয় নিউজ চ্যানেল কাস্টিং কাউচ স্টিং অপারেশন প্রচার করেছিল যাতে অভিনেতা এবং হোস্ট আমান ভার্মা ধরা পড়েছিলেন। চ্যানেলের মাধ্যমে প্রকাশিত কল রেকর্ডিংয়ে দেখানো হয়েছিল যে অভিনেতা কীভাবে একজন সাংবাদিককে সিনেমাতে তার চরিত্রে অভিনয় করার অজুহাতে তার অ্যাপার্টমেন্টে তাকে নিয়ে এসেছিলেন। শুধু তাই নয়, পরবর্তী ভিডিওগুলিতে দেখা যায় মেয়েটির আরও কাছে আসতে দেখা যায় আমানকে।

পায়েল রোহাতগিঃ অভিনেত্রী পায়েল রোহতগিও রয়েছেন সেই তালিকায়। জনপ্রিয় চলচ্চিত্রের পরিচালক দিবাকর বন্দ্যোপাধ্যায়কে তিনি অভিযুক্ত করেছিলেন। তিনি নাকি তার প্রতি যৌন আগ্রহ প্রকাশ করেছিলেন । পায়েল নিজেও সেকথা জানিয়েছেন। এমনকী অ্যাপার্টমেন্টে তাকে ডাকার প্রস্তাব দিয়েছিলেন পরিচালক।

পায়েল রোহাতগিঃ অভিনেত্রী পায়েল রোহতগিও রয়েছেন সেই তালিকায়। জনপ্রিয় চলচ্চিত্রের পরিচালক দিবাকর বন্দ্যোপাধ্যায়কে তিনি অভিযুক্ত করেছিলেন। তিনি নাকি তার প্রতি যৌন আগ্রহ প্রকাশ করেছিলেন । পায়েল নিজেও সেকথা জানিয়েছেন। এমনকী অ্যাপার্টমেন্টে তাকে ডাকার প্রস্তাব দিয়েছিলেন পরিচালক।

শাহিদ-করিনাঃ কন্ট্রোভার্সিতেই বারবারই উঠে এসেছে শাহিদ-করিনার নাম। একটি এমএমএস ভাইরাল হয়েছিল নেটদুনিয়ায়। যেখানে শাহিদ কাপুর এবং করিনা কাপুরের চুম্বনের  ভিডিও ছিল। দুজনেই এই ভিডিওটির কথা অস্বীকার করেছেন। এমনকী এও দাবি করেছিলেন, ভিডিওটি মিথ্যা এবং তারা নাকি জনসমক্ষে চুম্বন করেননি।

শাহিদ-করিনাঃ কন্ট্রোভার্সিতেই বারবারই উঠে এসেছে শাহিদ-করিনার নাম। একটি এমএমএস ভাইরাল হয়েছিল নেটদুনিয়ায়। যেখানে শাহিদ কাপুর এবং করিনা কাপুরের চুম্বনের ভিডিও ছিল। দুজনেই এই ভিডিওটির কথা অস্বীকার করেছেন। এমনকী এও দাবি করেছিলেন, ভিডিওটি মিথ্যা এবং তারা নাকি জনসমক্ষে চুম্বন করেননি।

মধুর ভান্ডারকরঃ পরিচালক মধুর ভান্ডারকারও রয়েছেন এই কেলেঙ্কারিতে। ২০০৪ সালে মডেল প্রীতি জৈনকে মধুর ভান্ডারকার বিয়ের অজুহাতে এবং তার একটি ছবিতে একটি ভূমিকায় পাঁচ বছরের জন্য বারবার ধর্ষণ করেছিলেন বলে অভিযোগ উঠেছিল। এবং এই বিষয়ে অনেক প্রমাণও উঠে এসেছিল।

মধুর ভান্ডারকরঃ পরিচালক মধুর ভান্ডারকারও রয়েছেন এই কেলেঙ্কারিতে। ২০০৪ সালে মডেল প্রীতি জৈনকে মধুর ভান্ডারকার বিয়ের অজুহাতে এবং তার একটি ছবিতে একটি ভূমিকায় পাঁচ বছরের জন্য বারবার ধর্ষণ করেছিলেন বলে অভিযোগ উঠেছিল। এবং এই বিষয়ে অনেক প্রমাণও উঠে এসেছিল।

কঙ্গনা- আদিত্যঃ বলিউডের অন্যতম কলঙ্কজনক বিষয় কঙ্গনা রানাউত-আদিত্য পাঞ্চোলির সম্পর্ক । ইন্ডাস্ট্রিতে  এসেই লড়াই -এর শুরুতেই আদিত্যর খপ্পরে পড়েন অভিনেত্রী। কঙ্গনা জানিয়েছিলেন, তাকে গৃহবন্দি করে রেখে শারীরিক নির্যাতন করতেন আদিত্য। সেখান থেকে বাঁচতে অ্যাপার্টমেন্টের জানালা দিয়ে পালাতে বাধ্য হয়েছিল কঙ্গনা। এটি বলিউডের অন্যতম বড় কেলেঙ্কারীর মধ্যে একটা।

কঙ্গনা- আদিত্যঃ বলিউডের অন্যতম কলঙ্কজনক বিষয় কঙ্গনা রানাউত-আদিত্য পাঞ্চোলির সম্পর্ক । ইন্ডাস্ট্রিতে এসেই লড়াই -এর শুরুতেই আদিত্যর খপ্পরে পড়েন অভিনেত্রী। কঙ্গনা জানিয়েছিলেন, তাকে গৃহবন্দি করে রেখে শারীরিক নির্যাতন করতেন আদিত্য। সেখান থেকে বাঁচতে অ্যাপার্টমেন্টের জানালা দিয়ে পালাতে বাধ্য হয়েছিল কঙ্গনা। এটি বলিউডের অন্যতম বড় কেলেঙ্কারীর মধ্যে একটা।

রিয়া সেন- অস্মিত প্যাটেলঃ বাঙ্গালী অভিনেত্রী রিয়া সেন এবং তার প্রাক্তন বন্ধু অস্মিত প্যাটেলের  ঘনিষ্ঠ মুহুর্তের ভিডিও ইন্টারনেটে লিক হয়ে গেছিল।  তখন তাদের মধ্যে বিতর্ক হয়েছিল। যদিও অস্মিত  দাবি করেছিলেন যে ভিডিওটি আসল। এমনকী বেশ কয়েকটি  রিপোর্টে দাবি করা হয়েছিল যে এই ভিডিওটি প্রচারের জন্য ফাঁস করেছিলেন অস্মিত নিজেই।

রিয়া সেন- অস্মিত প্যাটেলঃ বাঙ্গালী অভিনেত্রী রিয়া সেন এবং তার প্রাক্তন বন্ধু অস্মিত প্যাটেলের ঘনিষ্ঠ মুহুর্তের ভিডিও ইন্টারনেটে লিক হয়ে গেছিল। তখন তাদের মধ্যে বিতর্ক হয়েছিল। যদিও অস্মিত দাবি করেছিলেন যে ভিডিওটি আসল। এমনকী বেশ কয়েকটি রিপোর্টে দাবি করা হয়েছিল যে এই ভিডিওটি প্রচারের জন্য ফাঁস করেছিলেন অস্মিত নিজেই।

মিকা সিং-রাখি সাওয়ান্তঃ রাখি মানেই কন্ট্রোভার্সি। যদিও তার চেয়ে কোনও অংশে কম যান না বলি গায়ক মিকা সিং। দুজনেই বি-টাউনের চর্চিত বিষয়ের তুঙ্গে থাকেন সবসময়ে। সালটা ২০০৬। জোর করে রাখিকে চুম্বন করে সমস্যায় পড়েছিলেন মিকা সিং। যা সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছিল।

মিকা সিং-রাখি সাওয়ান্তঃ রাখি মানেই কন্ট্রোভার্সি। যদিও তার চেয়ে কোনও অংশে কম যান না বলি গায়ক মিকা সিং। দুজনেই বি-টাউনের চর্চিত বিষয়ের তুঙ্গে থাকেন সবসময়ে। সালটা ২০০৬। জোর করে রাখিকে চুম্বন করে সমস্যায় পড়েছিলেন মিকা সিং। যা সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছিল।

বীনা মালিকঃ পাকিস্তানি অভিনেত্রী বীনা মালিকও কেলেঙ্কারিতে জড়িয়েছিলেন।   বিগ বস ৪-এর প্রতিযোদী ছিলেন বীনা।  ৪৩-সেকেন্ডের এমএমএস ভাইরাল হয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়ায়। পাকিস্তানি অভিনেত্রী বীনা মালিক যখন বিতর্কের মধ্যে পড়েছিলেন তখন এই এমএমএস-এ এবং  রাজন ভার্মার সঙ্গে চুম্বন এবং অন্তরঙ্গ অবস্থায় দেখা গেছে। ইন্টারনেটে ভাইরাল হয়েছিল ওই এমএমএস ।

বীনা মালিকঃ পাকিস্তানি অভিনেত্রী বীনা মালিকও কেলেঙ্কারিতে জড়িয়েছিলেন। বিগ বস ৪-এর প্রতিযোদী ছিলেন বীনা। ৪৩-সেকেন্ডের এমএমএস ভাইরাল হয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়ায়। পাকিস্তানি অভিনেত্রী বীনা মালিক যখন বিতর্কের মধ্যে পড়েছিলেন তখন এই এমএমএস-এ এবং রাজন ভার্মার সঙ্গে চুম্বন এবং অন্তরঙ্গ অবস্থায় দেখা গেছে। ইন্টারনেটে ভাইরাল হয়েছিল ওই এমএমএস ।

শক্তি কাপুরঃ বলিউড অভিনেতা শক্তি কাপুরও যৌন কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে পড়েছিলেন।  ভিলেন হিসেবেই তার যথেষ্ঠ পরিচিতি রয়েছে। এক অভিনেত্রীর সঙ্গে যৌন মিলনের আগ্রহ জানিয়েছিলেন অভিনেতা। এমনকী তিনি সেই অভিনেত্রীদের নামও প্রকাশ্যে এসেছিলেন। এই রেকর্ডিং ভিডিও শোরগোল ফেলে দিয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়ায়।

শক্তি কাপুরঃ বলিউড অভিনেতা শক্তি কাপুরও যৌন কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে পড়েছিলেন। ভিলেন হিসেবেই তার যথেষ্ঠ পরিচিতি রয়েছে। এক অভিনেত্রীর সঙ্গে যৌন মিলনের আগ্রহ জানিয়েছিলেন অভিনেতা। এমনকী তিনি সেই অভিনেত্রীদের নামও প্রকাশ্যে এসেছিলেন। এই রেকর্ডিং ভিডিও শোরগোল ফেলে দিয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়ায়।

অভিষেক বচ্চনঃ ২০০৭ সালে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন বলিউডের জনপ্রিয় জুটি অভিষেক বচ্চন এবং ঐশ্বরিয়া বচ্চন। তাদের  বিয়ের চেয়ে আরও বড় একটি খবর ছিল,জানভী কাপুর নামের এক মডেল কাম অভিনেত্রী দাবি করেছেন যে জুনিয়র বচ্চন ২০০৬ সালে কয়েক বন্ধুর উপস্থিতিতে একটি মন্দিরে তাঁকে বিয়ে করেছিলেন। সবথেক মজার বিষয় হল, অভিষেকের দস বাহানে গানের অন্যতম নৃত্যশিল্পী ছিলেন জাহ্নবী কাপুর।

অভিষেক বচ্চনঃ ২০০৭ সালে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন বলিউডের জনপ্রিয় জুটি অভিষেক বচ্চন এবং ঐশ্বরিয়া বচ্চন। তাদের বিয়ের চেয়ে আরও বড় একটি খবর ছিল,জানভী কাপুর নামের এক মডেল কাম অভিনেত্রী দাবি করেছেন যে জুনিয়র বচ্চন ২০০৬ সালে কয়েক বন্ধুর উপস্থিতিতে একটি মন্দিরে তাঁকে বিয়ে করেছিলেন। সবথেক মজার বিষয় হল, অভিষেকের দস বাহানে গানের অন্যতম নৃত্যশিল্পী ছিলেন জাহ্নবী কাপুর।

মণীষা কৈরালাঃ বলি পরিচালকা সুভাষ ঘাইয়ের বিরুদ্ধে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ এনেছিলেন বলি অভিনেত্রী মণীষা কৈরালা। সুভাষ ঘাইয়ের সঙ্গে সিনেমায় কাজ করাকালীন যৌন নির্যাতনের শিকার হয়েছিল এই বলি অভিনেত্রী।

মণীষা কৈরালাঃ বলি পরিচালকা সুভাষ ঘাইয়ের বিরুদ্ধে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ এনেছিলেন বলি অভিনেত্রী মণীষা কৈরালা। সুভাষ ঘাইয়ের সঙ্গে সিনেমায় কাজ করাকালীন যৌন নির্যাতনের শিকার হয়েছিল এই বলি অভিনেত্রী।

মমতা কুলকার্নিঃ বলিউডে বেশিদিন রাজ না করলেও বিতর্কে বহুবার নাম জড়িয়েছে মমতা কুলকার্নির। তার দশ বছরের কেরিয়ারে পরিচালক রাজকুমার সন্তোষীর হাতে যৌন লালসার শিকার হয়েছিলেন অভিনেত্রী। যৌন নির্যাতনের সমস্ত তথ্যই সোশ্যাল মিডিয়ায় ফাঁস করেছিলেন অভিনেত্রী নিজেই।

মমতা কুলকার্নিঃ বলিউডে বেশিদিন রাজ না করলেও বিতর্কে বহুবার নাম জড়িয়েছে মমতা কুলকার্নির। তার দশ বছরের কেরিয়ারে পরিচালক রাজকুমার সন্তোষীর হাতে যৌন লালসার শিকার হয়েছিলেন অভিনেত্রী। যৌন নির্যাতনের সমস্ত তথ্যই সোশ্যাল মিডিয়ায় ফাঁস করেছিলেন অভিনেত্রী নিজেই।

loader