ছবির ব্যর্থতার দায় কার, রজনীকান্তের কাছে টাকা ফেরত দেওয়ার আর্জি

First Published 2, Mar 2020, 11:07 AM

বদলাচ্ছে সময়, বদল ঘটছে সামাজিক প্রেক্ষাপটের। কেবল মাত্র নায়ক সর্বস্য ছবি দেখতে এখনকার দর্শকেরা খুব একটা পছন্দ করেন না। ফলে ভাঙতে বসেছে বেশ কিছু ট্যাবু। নইলে শাহরুখ খানের জিরো কিংবা সলমন খানের দাবাং থ্রি মুখ থুবরে পড়ত না। একই পরিস্থিতির সন্মুখীন হলেন এবার রজনীকান্ত।

এক সময় দক্ষিণী ছবি মানেই ছিল তারকা সর্বস্ব। কিন্তু সেই সময় বোধ হয় এবার পরিবর্তনের পথে।

এক সময় দক্ষিণী ছবি মানেই ছিল তারকা সর্বস্ব। কিন্তু সেই সময় বোধ হয় এবার পরিবর্তনের পথে।

একের পর এক সুপারস্টারের ছবি মুক্তি, এবং বক্স অফিসে তার বিস্তর প্রভাব। তবে সম্প্রতি এই সমীকরণটা আর মিলল না।

একের পর এক সুপারস্টারের ছবি মুক্তি, এবং বক্স অফিসে তার বিস্তর প্রভাব। তবে সম্প্রতি এই সমীকরণটা আর মিলল না।

বক্স অফিসে সেই ছবি সেভাবে প্রভাব ফেলেনি। ছবির বাজেট ছিল ২০০ কোটি টাকা।

বক্স অফিসে সেই ছবি সেভাবে প্রভাব ফেলেনি। ছবির বাজেট ছিল ২০০ কোটি টাকা।

ছবি আয় করে মাত্র ২০০ কোটি টাকাই। ফলে ডিস্ট্রিবিউটরের মাথায় হাত পড়ে।

ছবি আয় করে মাত্র ২০০ কোটি টাকাই। ফলে ডিস্ট্রিবিউটরের মাথায় হাত পড়ে।

রজনীকান্তের ছবি রমরমীয়ে চলবে এই মর্মে ডিস্ট্রিবাউটাররা লাখ লাখ টাকা ঢেলেছিলেন।

রজনীকান্তের ছবি রমরমীয়ে চলবে এই মর্মে ডিস্ট্রিবাউটাররা লাখ লাখ টাকা ঢেলেছিলেন।

তবে সেখান থেকেই কিছু লাভ হল না তাঁদের। ফলে তাঁরা দ্বারস্ত হলেন রজনীকান্তের।

তবে সেখান থেকেই কিছু লাভ হল না তাঁদের। ফলে তাঁরা দ্বারস্ত হলেন রজনীকান্তের।

টাকা ফেরত দেওয়া নিয়ে এখনও কিছু জানাননি তিনি। যদিও এটাকে সমর্থন করেন বলে মন্তব্য তাঁর।

টাকা ফেরত দেওয়া নিয়ে এখনও কিছু জানাননি তিনি। যদিও এটাকে সমর্থন করেন বলে মন্তব্য তাঁর।

শাহরুখ খানের জিরোর সময়ও টাকা ফেরতের দাবি তুলেছিলেন ডিস্টিবিউটররা।

শাহরুখ খানের জিরোর সময়ও টাকা ফেরতের দাবি তুলেছিলেন ডিস্টিবিউটররা।

তবে কিং খান টাকা ফেরত দিতে নারাজ ছিলেন। সলমন খানও এই বিষয় কোনও কথাই বলেননি কখনও।

তবে কিং খান টাকা ফেরত দিতে নারাজ ছিলেন। সলমন খানও এই বিষয় কোনও কথাই বলেননি কখনও।

loader