সলমনের প্রিয় দুই পোষ্যের মৃত্যু, খবর পেয়েও শ্যুটিং চালিয়েছিলেন, পরের দিন ভোর হতেই কী করলেন ভাইজান

First Published 1, Nov 2020, 12:07 PM

বলিউডের এক কথায় স্তম্ভ তিন খান। দশকের পর দশক ধরে একে অন্যকে কড়া টক্কর দিয়ে এগিয়ে চলেছেন তাঁরা। তাই কাজ নিয়ে কোনও ফাঁক বা অযুহাতের অবকাশ রাখতে নারাজ তাঁরা। আর ঠিক সেই কারণেই ভেতর থেকে ভেঙে পড়লেও ফিরে তাকাননি সলমন, চালিয়ে গিয়েছিলেন শ্যুটিং।  

<p>পেশা ও নেশা যখন মানুষের একই হয়ে যায়, তখন সাফল্য বোধ হয় এভাবেই আসে। ঠিক যেমন ভাবে তিন খান অভিনয় জগতে এসে নিজের স্বপ্ন পূরণ করেছিলেন।&nbsp;</p>

পেশা ও নেশা যখন মানুষের একই হয়ে যায়, তখন সাফল্য বোধ হয় এভাবেই আসে। ঠিক যেমন ভাবে তিন খান অভিনয় জগতে এসে নিজের স্বপ্ন পূরণ করেছিলেন। 

<p>আর সলমন খানের মত অভিনেতা ভালো করেই জানেন একদিন শ্যুটিং বাতিলের ঝক্কি ঠিক কতটা হতে পারে।&nbsp;</p>

আর সলমন খানের মত অভিনেতা ভালো করেই জানেন একদিন শ্যুটিং বাতিলের ঝক্কি ঠিক কতটা হতে পারে। 

<p>তাই ভেতরে তিনি ভেঙে পড়লেও ওপরে বুঝতে দেননি।&nbsp;একবার এক কনসার্টের কাজ নিয়ে ব্যস্ত ছিলেন অভিনেতা। হাতে ছিল মাত্র দুটি দিন। পুরো দমে চলছে কাজ।&nbsp;</p>

তাই ভেতরে তিনি ভেঙে পড়লেও ওপরে বুঝতে দেননি। একবার এক কনসার্টের কাজ নিয়ে ব্যস্ত ছিলেন অভিনেতা। হাতে ছিল মাত্র দুটি দিন। পুরো দমে চলছে কাজ। 

<p>এমন সময় সলমন খান খবর পেয়েছিলেন, তাঁর কাছের দুই প্রিয় পোষ্য মারা গিয়েছে। খবর পাওয়ার পরই তিনি সেখান থেকে বেরিয়ে যাননি।&nbsp;</p>

এমন সময় সলমন খান খবর পেয়েছিলেন, তাঁর কাছের দুই প্রিয় পোষ্য মারা গিয়েছে। খবর পাওয়ার পরই তিনি সেখান থেকে বেরিয়ে যাননি। 

<p>তাঁকে সকলেই অনুরোধ করেছিলেন বাড়ি ফিরে যাওয়ার জন্য, কিন্তু তিনি রাজি হননি। অবশেষে সলমনের অনুরোধেই চলতে থাকে শ্যুটিং।&nbsp;</p>

তাঁকে সকলেই অনুরোধ করেছিলেন বাড়ি ফিরে যাওয়ার জন্য, কিন্তু তিনি রাজি হননি। অবশেষে সলমনের অনুরোধেই চলতে থাকে শ্যুটিং। 

<p>রাত পোহালে কাজ শেষ হয়, ভোর বেলাই বাড়ির পথে বেরিয়ে পড়েন সলমন খান। দুই পোষ্যের সৎকারের কাজ করেন সলমন নিজের ফার্ম হাউসে।&nbsp;</p>

রাত পোহালে কাজ শেষ হয়, ভোর বেলাই বাড়ির পথে বেরিয়ে পড়েন সলমন খান। দুই পোষ্যের সৎকারের কাজ করেন সলমন নিজের ফার্ম হাউসে। 

<p>সেখান থেকে আবারও রওনা দেন শ্যুটিং স্পটে। বিকেল চারটের মধ্যে হাজির হয়ে আবার রাত জেগে চলতে থাকে প্রস্তুতি।&nbsp;</p>

সেখান থেকে আবারও রওনা দেন শ্যুটিং স্পটে। বিকেল চারটের মধ্যে হাজির হয়ে আবার রাত জেগে চলতে থাকে প্রস্তুতি। 

<p>সেদিন স্পটে উপস্থিত ছিলেন অজয় দেবগণও। সলমনের এই &nbsp;প্রফেশনালিজম নজর কেড়েছিল সেদিন সকলের।&nbsp;</p>

সেদিন স্পটে উপস্থিত ছিলেন অজয় দেবগণও। সলমনের এই  প্রফেশনালিজম নজর কেড়েছিল সেদিন সকলের।