স্টেজ ফোর লাং ক্যান্সারও দমাতে পারেনি সঞ্জুকে, হাসিমুখে হাসপাতাল থেকে বেরলেন অভিনেতা

First Published 18, Aug 2020, 7:54 PM

সপ্তাহখানেক আগে শ্বাসকষ্টের জেরে লীলাবতি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছিল সঞ্জয় দত্তকে। বিকেলের দিকে বুকে হালকা ব্যাথা অনুভব করেন ৬১ বছর বয়সী এই অভিনেতা। যার জেরে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় তাঁকে। সঞ্জয়ের কোভিড পরীভা হয় ব়্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্টের মাধ্যমে। যার ফলাফল নেগেটিভ আসে। সেই সময় জানা যায় তাঁর শারীরিক অবস্থার খানিক উন্নতি হয়েছে। তারপরই ঘনিয়ে এল সমস্যা। 
 

<p>স্টেজ ফোর ফুসফুসে ক্যান্সার ধরা পড়ে সঞ্জয় দত্তের। কোভিডের আশঙ্কা করতে গিয়ে বেরিয়ে এল এই বড় বিপদ।&nbsp;</p>

স্টেজ ফোর ফুসফুসে ক্যান্সার ধরা পড়ে সঞ্জয় দত্তের। কোভিডের আশঙ্কা করতে গিয়ে বেরিয়ে এল এই বড় বিপদ। 

<p>১৯৯৩ সালে মুম্বই বিস্ফোরণে তাঁর নাম জড়ায়। ভারতীয় আইনে তিনি রেহাই পেলেও বিদেশে তাঁকে নিয়ে চলছে সমস্যা।&nbsp;</p>

১৯৯৩ সালে মুম্বই বিস্ফোরণে তাঁর নাম জড়ায়। ভারতীয় আইনে তিনি রেহাই পেলেও বিদেশে তাঁকে নিয়ে চলছে সমস্যা। 

<p>মার্কিন আইনের কড়া পদক্ষেপে তিনি ভিসা পাচ্ছেন না। যার জেরে আপাতত ভারতেই চলছে তাঁর চিকিৎসা। &nbsp;&nbsp;</p>

মার্কিন আইনের কড়া পদক্ষেপে তিনি ভিসা পাচ্ছেন না। যার জেরে আপাতত ভারতেই চলছে তাঁর চিকিৎসা।   

<p>কোকিলাবেন হাসপাতালে দেখা গেল তাঁকে। সঙ্গে ছিলেন মান্যতা এবং পরিবারের অন্যান্য সদস্যরাও।&nbsp;<br />
&nbsp;</p>

কোকিলাবেন হাসপাতালে দেখা গেল তাঁকে। সঙ্গে ছিলেন মান্যতা এবং পরিবারের অন্যান্য সদস্যরাও। 
 

<p>ক্যান্সারের রীতিমত গুরুতর স্টেজে আক্রান্ত হয়েছেন বলিউড অভিনেতা। তবুও দমেনি তাঁর দাপট।</p>

ক্যান্সারের রীতিমত গুরুতর স্টেজে আক্রান্ত হয়েছেন বলিউড অভিনেতা। তবুও দমেনি তাঁর দাপট।

<p>পাপারাৎজিকে দেখেই হাত নাড়ালেন, প্রণামও করলেন। চোখে মুখে নেই কোনও ভয়।&nbsp;</p>

পাপারাৎজিকে দেখেই হাত নাড়ালেন, প্রণামও করলেন। চোখে মুখে নেই কোনও ভয়। 

<p>হাসিমুখে পরিস্থিতিকে মেনে নিয়েছেন সঞ্জু। গত ৮ অগাস্ট শ্বাসকষ্টের সমস্যা শুরু হয় তাঁর।&nbsp;<br />
&nbsp;</p>

হাসিমুখে পরিস্থিতিকে মেনে নিয়েছেন সঞ্জু। গত ৮ অগাস্ট শ্বাসকষ্টের সমস্যা শুরু হয় তাঁর। 
 

<p>বাড়িতে অক্সিমিটারে অক্সিজেন লেভেল পরীক্ষা করতে দেখা যায় শরীরে অক্সিজেন অনেকটাই কমে গিয়েছে।&nbsp;তড়িঘড়ি হাসপাতালে নিয়ে এসে কোভিড পরীক্ষা করানো হয় সঞ্জের। রিপোর্ট নেগেটিভ এলেও তাঁর পরবর্তী অন্যান্য রিপোর্টে ক্যান্সার ধরা পড়ে।</p>

বাড়িতে অক্সিমিটারে অক্সিজেন লেভেল পরীক্ষা করতে দেখা যায় শরীরে অক্সিজেন অনেকটাই কমে গিয়েছে। তড়িঘড়ি হাসপাতালে নিয়ে এসে কোভিড পরীক্ষা করানো হয় সঞ্জের। রিপোর্ট নেগেটিভ এলেও তাঁর পরবর্তী অন্যান্য রিপোর্টে ক্যান্সার ধরা পড়ে।

loader