করোনা যুদ্ধে সামিল ভারতীয় ক্রিকেটাররা, একঝলকে দেখে নিন কে কত অনুদান দিলেন

First Published 1, Apr 2020, 1:22 PM

করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধে নেমেছে গোটা দেশ। ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রাক্তন থেকে বর্তমান সকলেই সামিল হয়েছেন যুদ্ধে। দেখে নেওয়া যাক এখনও পর্যন্ত কোন ক্রিকেটার কত টাকা অনুদান দিলেন প্রধানমন্ত্রী ও রাজ্যসরকারের ত্রাণ তহবিলে।
 

করোনা মোকাবিলায় ৫০ লক্ষ  টাকা অনুদান দিয়েছেন প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার সচিন তেন্ডুলকর। ৫০ লক্ষের মধ্যে ২৫ লক্ষ টাকা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে ও ২৫ লক্ষ টাকা মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে দিয়েছেন মাস্টার ব্লাস্টার। এছড়া সামাজিক সচেতনতা বৃদ্ধিতে একাধিক বার সোশাল মিডিয়ায় বার্তা দিয়েছেন সচিন তেন্ডুলকর।

করোনা মোকাবিলায় ৫০ লক্ষ টাকা অনুদান দিয়েছেন প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার সচিন তেন্ডুলকর। ৫০ লক্ষের মধ্যে ২৫ লক্ষ টাকা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে ও ২৫ লক্ষ টাকা মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে দিয়েছেন মাস্টার ব্লাস্টার। এছড়া সামাজিক সচেতনতা বৃদ্ধিতে একাধিক বার সোশাল মিডিয়ায় বার্তা দিয়েছেন সচিন তেন্ডুলকর।

৫০ লক্ষ টাকা দিয়ে করোনা যুদ্ধে সামিল হয়েছেন প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক তথা বাংলার মহারাজ সৌরভ গঙ্গোপাধ্য়ায়। ৫০ লক্ষ টাকা দিয়ে গরীব দুস্থ মানুষদের জন্য চাল বিলি করবেন বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট। সরকারি স্কুল থেকে এই চাল বিলি করা হবে। ইতিমধ্যেই করোনা সচেতনতায় একাধিকবার সোশ্যাল মিডিয়ায় আবেদন রেখেছেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। ভিডিও বার্তা দিয়েছেন। গৃহবন্দি থাকার জন্য আবেদন করেছেন।

৫০ লক্ষ টাকা দিয়ে করোনা যুদ্ধে সামিল হয়েছেন প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক তথা বাংলার মহারাজ সৌরভ গঙ্গোপাধ্য়ায়। ৫০ লক্ষ টাকা দিয়ে গরীব দুস্থ মানুষদের জন্য চাল বিলি করবেন বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট। সরকারি স্কুল থেকে এই চাল বিলি করা হবে। ইতিমধ্যেই করোনা সচেতনতায় একাধিকবার সোশ্যাল মিডিয়ায় আবেদন রেখেছেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। ভিডিও বার্তা দিয়েছেন। গৃহবন্দি থাকার জন্য আবেদন করেছেন।

করোনা মোকাবিলায় এগিয়ে এসেছেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রাক্তন অধিনায়ক তথা বিশ্বের অন্যতম সেরা লেগ স্পিনার অনিল কুম্বলে। সংকটের পরিস্থিতিতে কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রীর তহবিলে ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর আপদকালীন তহবিলে অর্থ সাহায্য করলেন অনিল কুম্বলে। তবে করোনা তহবিলে কী পরিমাণ অর্থ সাহায্য করেছেন তিনি, সেটা খোলসা করে জানাননি কিংবদন্তি লেগ-স্পিনার।

করোনা মোকাবিলায় এগিয়ে এসেছেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রাক্তন অধিনায়ক তথা বিশ্বের অন্যতম সেরা লেগ স্পিনার অনিল কুম্বলে। সংকটের পরিস্থিতিতে কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রীর তহবিলে ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর আপদকালীন তহবিলে অর্থ সাহায্য করলেন অনিল কুম্বলে। তবে করোনা তহবিলে কী পরিমাণ অর্থ সাহায্য করেছেন তিনি, সেটা খোলসা করে জানাননি কিংবদন্তি লেগ-স্পিনার।

করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে দেশের পাশে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন প্রাক্তন ক্রিকেটার ও সাংসদ গৌতম গম্ভীর। করোনামুক্ত দেশ গড়ার কাজে রিলিফ ফান্ডে নিজের সাংসদ তহবিলের লোকাল এরিয়া ডেভলপমেন্ট স্কিম থেকে ১ কোটি টাকা দান করেছেন গম্ভীর। সেই সঙ্গে সাংসদ হিসেবে এক মাসের বেতনও কেন্দ্রীয় ত্রাণ তহবিলে দান করেছেন দেশের দুটি বিশ্বকাপ জয়ের নায়ক।

করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে দেশের পাশে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন প্রাক্তন ক্রিকেটার ও সাংসদ গৌতম গম্ভীর। করোনামুক্ত দেশ গড়ার কাজে রিলিফ ফান্ডে নিজের সাংসদ তহবিলের লোকাল এরিয়া ডেভলপমেন্ট স্কিম থেকে ১ কোটি টাকা দান করেছেন গম্ভীর। সেই সঙ্গে সাংসদ হিসেবে এক মাসের বেতনও কেন্দ্রীয় ত্রাণ তহবিলে দান করেছেন দেশের দুটি বিশ্বকাপ জয়ের নায়ক।

করোনা মোকাবিলায় আর্থিক সাহায্য করেছেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের বর্তমান অধিনায়ক বিরাট কোহলি এবং তার স্ত্রী অনুষ্কা শর্মা। একইসঙ্গে এই সেলেব জুটি সকলের কাছে আবেদন জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর রিলিফ ফান্ডে এবং মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে দান করার। তবে কত টাকা দান করেছেন বিরুষ্কা সেই তথ্য গোপন রেখেছেন তারা। অনুদানের পাশাপাশি সোশাল মিডিয়ায় একাধিকবার সামাজিক সচেতনতার বার্তা দিয়েছেন বিরাট কোহলি ও অনুষ্কা শর্মা।

করোনা মোকাবিলায় আর্থিক সাহায্য করেছেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের বর্তমান অধিনায়ক বিরাট কোহলি এবং তার স্ত্রী অনুষ্কা শর্মা। একইসঙ্গে এই সেলেব জুটি সকলের কাছে আবেদন জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর রিলিফ ফান্ডে এবং মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে দান করার। তবে কত টাকা দান করেছেন বিরুষ্কা সেই তথ্য গোপন রেখেছেন তারা। অনুদানের পাশাপাশি সোশাল মিডিয়ায় একাধিকবার সামাজিক সচেতনতার বার্তা দিয়েছেন বিরাট কোহলি ও অনুষ্কা শর্মা।

করোনা যুদ্ধে সামিল হয়েছেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য রোহিত শর্মা। ৮০ লক্ষ টাকা দিলেন ভারতীয় একদিনের দলের বিরাাট কোহলির ডেপুটি। রোহিত শর্মাই এখনও পর্যন্ত ভারতীয় ক্রিকেটারদের মধ্যে সবথেকে বেশি টাকা অনুদান দিয়েছেন। দুই ভাগে ৮০ লক্ষ টাকা দেবেন তাও পরিষ্কার করেন মুম্বইকার। প্রধানমন্ত্রীর রিলিফ ফান্ডে দেবেন ৪৫ লক্ষ টাকা ও মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী রিলিফ ফান্ডে ২৫ লক্ষ টাকা দেওয়ার কথা ঘোষণা করেন রোহিত৷ এছাড়াও দেশের ক্ষুধার্তদের জন্য ৫ লক্ষ টাকা এবং ওয়েলফেয়ার স্ট্রে ডগসদের জন্য ৫ লক্ষ টাকা দেওয়ার কথা জানান ‘হিটম্যান’৷

করোনা যুদ্ধে সামিল হয়েছেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য রোহিত শর্মা। ৮০ লক্ষ টাকা দিলেন ভারতীয় একদিনের দলের বিরাাট কোহলির ডেপুটি। রোহিত শর্মাই এখনও পর্যন্ত ভারতীয় ক্রিকেটারদের মধ্যে সবথেকে বেশি টাকা অনুদান দিয়েছেন। দুই ভাগে ৮০ লক্ষ টাকা দেবেন তাও পরিষ্কার করেন মুম্বইকার। প্রধানমন্ত্রীর রিলিফ ফান্ডে দেবেন ৪৫ লক্ষ টাকা ও মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী রিলিফ ফান্ডে ২৫ লক্ষ টাকা দেওয়ার কথা ঘোষণা করেন রোহিত৷ এছাড়াও দেশের ক্ষুধার্তদের জন্য ৫ লক্ষ টাকা এবং ওয়েলফেয়ার স্ট্রে ডগসদের জন্য ৫ লক্ষ টাকা দেওয়ার কথা জানান ‘হিটম্যান’৷

দেশের বিপদের দিনে এগিয়ে এসে ৫২ লক্ষ টাকা দান করেছেন সুরেশ রায়না। নিজের সোশাল মিডিয়ায় পোস্ট করে চেন্নাই সুপার কিংসের সহ অধিনায়ক জানিয়েছেন, প্রধান মন্ত্রীর জাতীয় ত্রাণ তহবিলে ৩১ লক্ষ টাকা অনুদান করেছেন ও ২১ লক্ষ টাকা উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীর তহবিলে অনুদান করেছেন। সুরেশ রায়নার এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানানো হয়েছে ভারত সরকার ও উত্তর প্রদেশ সরকারের পক্ষ থেকে।

দেশের বিপদের দিনে এগিয়ে এসে ৫২ লক্ষ টাকা দান করেছেন সুরেশ রায়না। নিজের সোশাল মিডিয়ায় পোস্ট করে চেন্নাই সুপার কিংসের সহ অধিনায়ক জানিয়েছেন, প্রধান মন্ত্রীর জাতীয় ত্রাণ তহবিলে ৩১ লক্ষ টাকা অনুদান করেছেন ও ২১ লক্ষ টাকা উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীর তহবিলে অনুদান করেছেন। সুরেশ রায়নার এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানানো হয়েছে ভারত সরকার ও উত্তর প্রদেশ সরকারের পক্ষ থেকে।

করোনা নিয়ে আতঙ্কের মধ্যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ন্যাশনাল রিলিফ ফান্ডে অর্থ দান করেছেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের ওপেনার শিখর ধওয়ান। দরিদ্র মানুষের সেবায় দেশের সহ নাগরিকদেরও এই উদ্যোগে সামিল হওয়ার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন গব্বর। এছাড়াও একাধিকবার সোশাল মিডিয়ায় দেশের নাগরিকদের উদ্দ্যেশ্যে সচেতনতার বার্তাও দিয়েছেন শিখর ধওয়ান।

করোনা নিয়ে আতঙ্কের মধ্যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ন্যাশনাল রিলিফ ফান্ডে অর্থ দান করেছেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের ওপেনার শিখর ধওয়ান। দরিদ্র মানুষের সেবায় দেশের সহ নাগরিকদেরও এই উদ্যোগে সামিল হওয়ার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন গব্বর। এছাড়াও একাধিকবার সোশাল মিডিয়ায় দেশের নাগরিকদের উদ্দ্যেশ্যে সচেতনতার বার্তাও দিয়েছেন শিখর ধওয়ান।

করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলেন টিম ইন্ডিয়ার টেস্ট দলের সহ-অধিনায়ক অজিঙ্ক রাহানে। করোনা আক্রান্তদের সুশ্রুষা ও দরিদ্র মানুষের সেবায় ১০ লক্ষ টাকা দান করলেন রাহানে।  প্রয়োজনে আরও সাহায্য করার আশ্বাস দিয়ছেন অজিঙ্কে রাহানে।

করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলেন টিম ইন্ডিয়ার টেস্ট দলের সহ-অধিনায়ক অজিঙ্ক রাহানে। করোনা আক্রান্তদের সুশ্রুষা ও দরিদ্র মানুষের সেবায় ১০ লক্ষ টাকা দান করলেন রাহানে। প্রয়োজনে আরও সাহায্য করার আশ্বাস দিয়ছেন অজিঙ্কে রাহানে।

কঠিন পরিস্থিতিতে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন ভারতের দুই তারকা ক্রিকেটার ইরফান পাঠান ও ইউসুফ পাঠান। দুই ভাই মিলে সাধারণ মানুষের মাঝে ৪ হাজার মাস্ক বিতরণ করেছেন। ইরফান পাঠান ও ইউসুফ পাঠানের বাবা মাহমুদ খান পাঠানের নামে একটি চ্যারিটেবল ট্রাস্ট প্রতিষ্ঠা করেছেন দুই ভাই। এই ট্রাস্টের পক্ষ থেকেই মাস্ক বিতরণ করা হয়েছে।

কঠিন পরিস্থিতিতে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন ভারতের দুই তারকা ক্রিকেটার ইরফান পাঠান ও ইউসুফ পাঠান। দুই ভাই মিলে সাধারণ মানুষের মাঝে ৪ হাজার মাস্ক বিতরণ করেছেন। ইরফান পাঠান ও ইউসুফ পাঠানের বাবা মাহমুদ খান পাঠানের নামে একটি চ্যারিটেবল ট্রাস্ট প্রতিষ্ঠা করেছেন দুই ভাই। এই ট্রাস্টের পক্ষ থেকেই মাস্ক বিতরণ করা হয়েছে।

loader