ছোট বেলায় বিড়ি খেতে গিয়ে ধরা পড়েছিলেন মা-র কাছে, তারপর সেওয়াগের ভাগ্যে জুটেছিল ভয়ঙ্কর শাস্তি

First Published 20, Nov 2020, 9:25 PM

হরিয়ানার জাট পরিবারে জন্ম ভারতের প্রাক্তন তারকা ক্রিকেটার বীরেন্দ্র সেওয়াগের। ছোট বেলা থেকেই ক্রিকেটের প্রতি সেওাগের ভালোবাসা ছিল। যেই সময় শিশুরা অন্য খেলনা দিয়ে খেলত, সেই সময় থেকেই ব্যাট নিয়ে খেলা করতেন বীরেন্দ্র সেওয়াগ। মাত্র ১২ বছর বয়সে ক্রিকেট খেলতে গিয়ে নিজের দাঁত ভেঙে ফেলেছিলেন বীরু। তারপর ক্রিকেটের প্রতি প্রেম ও যোগ্যতার জোরেই ভারতীয় দলে সুযোগ পেয়েছিলেন সেওয়াগ। বরাবরই সেওয়াগ খুব দুষ্টু ছিলেন ছোট বেলায়। তবে একবার এমন এক কাণ্ড ঘটিয়েছিলেন সেওয়াগ যার জন্য তার মা তাকে জুতো দিয়ে মেরেছিলেন। আজ সেই ঘটনাই তুলে ধরবে আপনাদের সামনে।

<p>বীরেন্দ্র সেওয়াগরা চার ভাই বোন। সেওয়াগ তৃতীয় সন্তান। মঞ্জু ও অঞ্জু সেওয়াগের দুই বড় বোন। সেওয়াগের ছোট ভাইয়ের নাম বিনোদ।<br />
&nbsp;</p>

বীরেন্দ্র সেওয়াগরা চার ভাই বোন। সেওয়াগ তৃতীয় সন্তান। মঞ্জু ও অঞ্জু সেওয়াগের দুই বড় বোন। সেওয়াগের ছোট ভাইয়ের নাম বিনোদ।
 

<p>শুধু চার-ভাইবোন নয়, সেওয়াগরা যৌথ পরিবারে থাকতেন। সেওয়াগদের পরিবার ছাড়াও তাদের সঙ্গে থাকতেন তাদের কাকারাও। আমরা সবাই নিজেদের মধ্যে ক্রিকেট খেলতাম।<br />
&nbsp;</p>

শুধু চার-ভাইবোন নয়, সেওয়াগরা যৌথ পরিবারে থাকতেন। সেওয়াগদের পরিবার ছাড়াও তাদের সঙ্গে থাকতেন তাদের কাকারাও। আমরা সবাই নিজেদের মধ্যে ক্রিকেট খেলতাম।
 

<p>বীরু বারো বছর বয়সে ক্রিকেট খেলতে গিয়ে নিজের দাঁত ভেঙে ফেলেন। যার পরে বীরেন্দ্র সেওয়াগের বাবা কিষাণ সেওয়াগ বীরুর খেলা বন্ধ করে দেন।</p>

বীরু বারো বছর বয়সে ক্রিকেট খেলতে গিয়ে নিজের দাঁত ভেঙে ফেলেন। যার পরে বীরেন্দ্র সেওয়াগের বাবা কিষাণ সেওয়াগ বীরুর খেলা বন্ধ করে দেন।

<p>সেওয়াগ জানিয়েছেন অতিরিক্ত খেলার জন্য ও পড়াশোনা না করার জন্য একাধিক তার মা তাকে মেরেছিলেন। এক বার জুতো দিয়েও সেওয়াগকে পিটিয়েছিলেন তার মা। তবে তা খেলার জন্য নয়।<br />
&nbsp;</p>

সেওয়াগ জানিয়েছেন অতিরিক্ত খেলার জন্য ও পড়াশোনা না করার জন্য একাধিক তার মা তাকে মেরেছিলেন। এক বার জুতো দিয়েও সেওয়াগকে পিটিয়েছিলেন তার মা। তবে তা খেলার জন্য নয়।
 

<p>সেওয়াগ জানিয়েছেন, ছোট বেলায় আমি একবার আমার বাবার বিড়ির প্যাকেট চুরি করেছিলাম। বাড়ির সামনে হাসপাতালের দেওয়ালে বসে আমি ও আমার ভাই ও কাকার ছেলেরা একসঙ্গে বিড়ি খাচ্ছিলাম। সেই সময় ধরা পড়ে যাওয়ায় আমাদের জুতো ও লাঠি দিয়ে পেটানো হয়েছিল।<br />
&nbsp;</p>

সেওয়াগ জানিয়েছেন, ছোট বেলায় আমি একবার আমার বাবার বিড়ির প্যাকেট চুরি করেছিলাম। বাড়ির সামনে হাসপাতালের দেওয়ালে বসে আমি ও আমার ভাই ও কাকার ছেলেরা একসঙ্গে বিড়ি খাচ্ছিলাম। সেই সময় ধরা পড়ে যাওয়ায় আমাদের জুতো ও লাঠি দিয়ে পেটানো হয়েছিল।
 

<p>এছাড়াও বীরেন্দ্র সেওয়াগের মা জানিয়েছেন সেওয়াগ স্কুলেও যেতে চাইত না। স্কুলে যাওয়ার সময় নানা ধরনের নাটক করত। সেই সময় ওর গায়ে গরম জল ছিটিয়ে দেওয়া হত।</p>

এছাড়াও বীরেন্দ্র সেওয়াগের মা জানিয়েছেন সেওয়াগ স্কুলেও যেতে চাইত না। স্কুলে যাওয়ার সময় নানা ধরনের নাটক করত। সেই সময় ওর গায়ে গরম জল ছিটিয়ে দেওয়া হত।

<p>ছোট বেলায় খুব দুষ্টু থাকলেও, ক্রিকেট খুব মনোযোগ সহকারে খেলতেন তিনিই ভারতের একমাত্র ক্রিকেটার যার টেস্টে ক্রিকেট ৩০০ রান রয়েছে। একটি নয় দুটি তিনশো রান রয়েছে সেওয়াগের।<br />
&nbsp;</p>

ছোট বেলায় খুব দুষ্টু থাকলেও, ক্রিকেট খুব মনোযোগ সহকারে খেলতেন তিনিই ভারতের একমাত্র ক্রিকেটার যার টেস্টে ক্রিকেট ৩০০ রান রয়েছে। একটি নয় দুটি তিনশো রান রয়েছে সেওয়াগের।
 

loader