আইপিএল নিলামের আগে দল-বদলে কে কোন ঘরে, কোথায় দাঁড়িয়ে কেকেআর

First Published 16, Nov 2019, 5:08 PM

আইপিএলে দল বদলের পর্ব শেষ। ১৫ নভেম্বরের মধ্যে ফ্রাঞ্চাইজি গুলোকে নিজেদের দলের তালিকা প্রকাশ করতে বলেছিল বিসিসিআই। সেই অনুযায়ী প্রকাশ্যে এসে গিয়েছে প্রতিটি দলের কাঠামো। এখন পালা নিলামের। বেশ কিছু দলেই রয়েছে চমক। একই সঙ্গে ছেঁটে ফেলা হয়েছে বহু ক্রিকেটারকে। আইপিএল ট্রেডের মাধ্যেমেও বড় ক্রিকেটাররা করেছে আইপিএলের জার্সি বদল। তবে অনেক ক্রিকেটারই দল ছাড়া হয়েছেন আইপিএলে। ১২৭ জন ক্রিকেটার পেয়ে গিয়েছে দল। তবে বাকিরা কে কোন দলে যাবেব এবার ১৯ ডিসেম্বর কলকাতার নিলামেই হবে সেই ক্রিকেটারদের ভাগ্য নির্ধারণ। এক ঝলকে দেখে নেওয়া যাক আইপিএল দলগুলির অবস্থা।

কলকাতা নাইট রাইডার্স- এবছর কেকেআর ফ্রাঞ্চাইজি ছেঁটে ফেলেছে রবিন উথাপ্পা ও ক্রিস লিনকে। একই সঙ্গে এবছর দল থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে পীযূষ চাওলাকেও। একই সঙ্গে ক্যারিবিয়ান ক্রিকেটার কার্লোজ ব্রেথওয়েটকেও ছেঁটে ফেলেছে শাহরুখের দল। তবে এখনও নিলাম বাকি। আর সেই নিলামে এখনও ১১টি ক্রিকেটার কিনতে পারবে কেকেআর। পাশাপাশি ৪জন বিদেশি ক্রিকেটারও কিনতে পারবে কলকাতার এই ক্রিকেট ফ্রাঞ্চাইজি। কেকেআরের হাতে রয়েছে প্রায় ৩৫ কোটি টাকা।

কলকাতা নাইট রাইডার্স- এবছর কেকেআর ফ্রাঞ্চাইজি ছেঁটে ফেলেছে রবিন উথাপ্পা ও ক্রিস লিনকে। একই সঙ্গে এবছর দল থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে পীযূষ চাওলাকেও। একই সঙ্গে ক্যারিবিয়ান ক্রিকেটার কার্লোজ ব্রেথওয়েটকেও ছেঁটে ফেলেছে শাহরুখের দল। তবে এখনও নিলাম বাকি। আর সেই নিলামে এখনও ১১টি ক্রিকেটার কিনতে পারবে কেকেআর। পাশাপাশি ৪জন বিদেশি ক্রিকেটারও কিনতে পারবে কলকাতার এই ক্রিকেট ফ্রাঞ্চাইজি। কেকেআরের হাতে রয়েছে প্রায় ৩৫ কোটি টাকা।

দিল্লি ক্যাপিটালস- এবছর আইপিএল ট্রেডের মাধ্যমে চমক দিয়ে ফেলেছে দিল্লি ক্যাপিটালস দল। ট্রেডের মাধ্যমে ভারতীয় দলের দুই বড় ক্রিকেটার অজিঙ্কা রাহানে ও রবিচন্দ্রন অশ্বিনকে তুলে নিয়েছে এই দল। একই সঙ্গে কলিন মুনরো, ক্রিস মরিসদের মতন ক্রিকেটারদের ছেঁটে ফেলা হয়েছে এবছর। নিলামে এখনও মোট ১৬টি ক্রিকেটার কিনতে পারবে দিল্লির ফ্রাঞ্চাইজি। যাঁর মধ্যে থাকতে পারে ৫টি বিদেশি ক্রিকেটার। হাতে রয়েছে ২৭.৮৫ কোটি টাকা।

দিল্লি ক্যাপিটালস- এবছর আইপিএল ট্রেডের মাধ্যমে চমক দিয়ে ফেলেছে দিল্লি ক্যাপিটালস দল। ট্রেডের মাধ্যমে ভারতীয় দলের দুই বড় ক্রিকেটার অজিঙ্কা রাহানে ও রবিচন্দ্রন অশ্বিনকে তুলে নিয়েছে এই দল। একই সঙ্গে কলিন মুনরো, ক্রিস মরিসদের মতন ক্রিকেটারদের ছেঁটে ফেলা হয়েছে এবছর। নিলামে এখনও মোট ১৬টি ক্রিকেটার কিনতে পারবে দিল্লির ফ্রাঞ্চাইজি। যাঁর মধ্যে থাকতে পারে ৫টি বিদেশি ক্রিকেটার। হাতে রয়েছে ২৭.৮৫ কোটি টাকা।

চেন্নাই সুপার কিংস- চেন্নাই দল থেকে এবছর নিলামের আগে একাধিক ক্রিকেটারকে ছেঁটে ফেলা হলেও, গত বারের সেট দলকেই ধরে রেখেছে চেন্নাই দল। তরুণদের পাশাপাশি অভিজ্ঞ ক্রিকেটারদের বেশি গুরুত্ব দিয়েই প্রায় টিম কম্বিনেশন এক রেখেছে চেন্নাই সুপার কিংস দল। এই মুহূর্তে কলকাতার নিলামে মাত্র ৭ জন ক্রিকেটার কিনতে পারবে চেন্নাই। যাঁর মধ্যে থাকতে হবে ২ টি বিদেশি। চেন্নাইয়ের হাতে রয়েছে ১৬.৬০ কোটি টাকা।

চেন্নাই সুপার কিংস- চেন্নাই দল থেকে এবছর নিলামের আগে একাধিক ক্রিকেটারকে ছেঁটে ফেলা হলেও, গত বারের সেট দলকেই ধরে রেখেছে চেন্নাই দল। তরুণদের পাশাপাশি অভিজ্ঞ ক্রিকেটারদের বেশি গুরুত্ব দিয়েই প্রায় টিম কম্বিনেশন এক রেখেছে চেন্নাই সুপার কিংস দল। এই মুহূর্তে কলকাতার নিলামে মাত্র ৭ জন ক্রিকেটার কিনতে পারবে চেন্নাই। যাঁর মধ্যে থাকতে হবে ২ টি বিদেশি। চেন্নাইয়ের হাতে রয়েছে ১৬.৬০ কোটি টাকা।

কিংস ইলেভেন পঞ্জাব- পঞ্জাবের দল প্রায় এক থাকলেও, এবছর দলের অধিনায়ককে ট্রেডের মাধ্যমে হারিয়েছে পঞ্জাব। অশ্বিনকে এবছর পঞ্জাব ছেড়ে দেখা যাবে দিল্লিতে। ৯টি দেশিয় ও ৫টি বিদেশি ক্রিকেটার কিনতে পারবে পঞ্জাব দল। একই সঙ্গে তাঁদের হাতে রয়েছে ৪২.৭০ কোটি টাকা।

কিংস ইলেভেন পঞ্জাব- পঞ্জাবের দল প্রায় এক থাকলেও, এবছর দলের অধিনায়ককে ট্রেডের মাধ্যমে হারিয়েছে পঞ্জাব। অশ্বিনকে এবছর পঞ্জাব ছেড়ে দেখা যাবে দিল্লিতে। ৯টি দেশিয় ও ৫টি বিদেশি ক্রিকেটার কিনতে পারবে পঞ্জাব দল। একই সঙ্গে তাঁদের হাতে রয়েছে ৪২.৭০ কোটি টাকা।

মুম্বই ইন্ডিয়ান্স- চ্যাম্পিয়ন দল মুম্বইয়ের দলে খুব একটা পরিবর্তন নেই এবছর। আলজারি জোশেফ-বেন কাটিংদের ছেড়ে দেওয়া হলেও বিশেষ কোনও পরিবর্তন নেই এই দলে। নিলামে ৯ জন ক্রিকেটার এখনও পর্যন্ত কিনতে পারবে আম্বানির ফ্রাঞ্চাইজি। তাঁদের হাতে রয়েছে ১৩.০৫ কোটি টাকা।

মুম্বই ইন্ডিয়ান্স- চ্যাম্পিয়ন দল মুম্বইয়ের দলে খুব একটা পরিবর্তন নেই এবছর। আলজারি জোশেফ-বেন কাটিংদের ছেড়ে দেওয়া হলেও বিশেষ কোনও পরিবর্তন নেই এই দলে। নিলামে ৯ জন ক্রিকেটার এখনও পর্যন্ত কিনতে পারবে আম্বানির ফ্রাঞ্চাইজি। তাঁদের হাতে রয়েছে ১৩.০৫ কোটি টাকা।

রাজস্থান রয়্যালস- রাজস্থান দলের অধিনায়কত্ব এবছর কার্যত করতে চলেছেন অস্ট্রেলিয়ার স্টিভ স্মিথ। একই সঙ্গে দলে রয়েছে একাধিক অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডের ক্রিকেটাররা। মূল দলে পরিবর্তন না থাকলেও, এবছর দল ছেড়ে ট্রেডে দিল্লির পথে গিয়েছেন অজিঙ্কা রাহানে। তবে সব কিছুকে পাশে রেখে এখনও পর্যন্ত রাজস্থান কিনতে পারবে ১৫টি ক্রিকেটার। তাঁর মধ্যে ৪টি বিদেশি ক্রিকেটারকে নিতে পারবে দল। কলকাতার নিলামে রাজস্থানের হাতে থাকছে ২৮.৯০ কোটি টাকা।

রাজস্থান রয়্যালস- রাজস্থান দলের অধিনায়কত্ব এবছর কার্যত করতে চলেছেন অস্ট্রেলিয়ার স্টিভ স্মিথ। একই সঙ্গে দলে রয়েছে একাধিক অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডের ক্রিকেটাররা। মূল দলে পরিবর্তন না থাকলেও, এবছর দল ছেড়ে ট্রেডে দিল্লির পথে গিয়েছেন অজিঙ্কা রাহানে। তবে সব কিছুকে পাশে রেখে এখনও পর্যন্ত রাজস্থান কিনতে পারবে ১৫টি ক্রিকেটার। তাঁর মধ্যে ৪টি বিদেশি ক্রিকেটারকে নিতে পারবে দল। কলকাতার নিলামে রাজস্থানের হাতে থাকছে ২৮.৯০ কোটি টাকা।

রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর- এবছর বিরাট কোহলির দলে রয়েছে একাধিক পরিবর্তন। ছেঁটে ফেলা হয়েছে বেশি ভাগ ক্রিকেটারদের। যাঁর মধ্যে রয়েছে বাংলার প্রয়াস রায় বর্মনও। আর সেই সুবাদে নিলামে ১৮টি ক্রিকেটার নিতে পারবে আরসিবি। ২৮.৯০ কোটি টাকা রয়েছে আরসিবির হাতে।

রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর- এবছর বিরাট কোহলির দলে রয়েছে একাধিক পরিবর্তন। ছেঁটে ফেলা হয়েছে বেশি ভাগ ক্রিকেটারদের। যাঁর মধ্যে রয়েছে বাংলার প্রয়াস রায় বর্মনও। আর সেই সুবাদে নিলামে ১৮টি ক্রিকেটার নিতে পারবে আরসিবি। ২৮.৯০ কোটি টাকা রয়েছে আরসিবির হাতে।

সানরাইজার্স হায়দরাবাদ- সানরাইজার্সের দলে এবছর তেমন কোনও চমক না থাকলেও, গত বারের মতন দুরন্ত কম্বিনেশন নিয়েই এবার মাঠে নামবে এই দল।তবে দল থেকে দুই বড় ক্রিকেটারকে ছেঁটে ফেলেছে হায়দরাবাদ। মার্টিন গাপ্টিল সহ ইউসুফ পাঠানকে ছেঁটে ফেলেছে হায়দরাবাদ। একই সঙ্গে নির্বাসিত বাংলাদেশ ক্রিকেটার শাকিব আল হাসানকেও ছেড়ে দিয়েছে এই দল। এই মুহূর্তে ১৭ কোটি টাকা রয়েছে হায়দরাবাদের হাতে। যাঁর মধ্যে ৭টি দেশিয় ও ২টি বিদেশি ক্রিকেটার কিনতে পারবে এই ফ্রাঞ্চাইজি।

সানরাইজার্স হায়দরাবাদ- সানরাইজার্সের দলে এবছর তেমন কোনও চমক না থাকলেও, গত বারের মতন দুরন্ত কম্বিনেশন নিয়েই এবার মাঠে নামবে এই দল।তবে দল থেকে দুই বড় ক্রিকেটারকে ছেঁটে ফেলেছে হায়দরাবাদ। মার্টিন গাপ্টিল সহ ইউসুফ পাঠানকে ছেঁটে ফেলেছে হায়দরাবাদ। একই সঙ্গে নির্বাসিত বাংলাদেশ ক্রিকেটার শাকিব আল হাসানকেও ছেড়ে দিয়েছে এই দল। এই মুহূর্তে ১৭ কোটি টাকা রয়েছে হায়দরাবাদের হাতে। যাঁর মধ্যে ৭টি দেশিয় ও ২টি বিদেশি ক্রিকেটার কিনতে পারবে এই ফ্রাঞ্চাইজি।