19

অভিশপ্ত ২০২০। একের পর এক অভিনেত্রীর আত্মহত্যার খবর ছড়িয়ে পড়েছে সোশ্যাল  মিডিয়ায়। ফের আত্মহত্যার চেষ্টা করলেন জনপ্রিয় দক্ষিণী অভিনেত্রী বিজয়লক্ষ্মী। 

Subscribe to get breaking news alerts

29

সাংঘাতিক মানসিক অবসাদ থেকেই চরম সিদ্ধান্ত নিয়েছিল অভিনেত্রী। আপাতত হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বিজয়লক্ষ্মীকে।

39

বেশ কয়েকমাস ধরেই  মানসিক অবসাদে ভুগছেন অভিনেত্রী। এক সহ অভিনেতা তথা বর্তমানে রাজনৈতির নেতার হাতেই হেনস্তার শিকার হয়েছেন অভিনেত্রী। তারপরই এই ভয়ঙ্কর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলেই সূত্র থেকে জানা গেছে।

49

গতকাল রাতেই একটি ভিডিও পোস্ট করে তিনি জানিয়েছিলেন, এটাই আমার শেষ ভিডিও। গত কয়েক মাস ধরেই সীমান ও তার দলের লোকেদের জন্য আমি সাংঘাতিক মানসিক চাপের মধ্যে রয়েছি। নিজের মা ও বোনের জন্যই  সবকিছু সহ্য করে বেঁচে থাকার চেষ্টা করেছিলাম।

59

তিনি আরও জানিয়েছিলেন, সম্প্রতি সংবাদমাধ্যমে হরি নাদার আমাকে হেনস্তা করেন। আমি প্রেশারের কয়েকটা ট্যাবলেট খেয়ে নেয়েছি, এবার রক্তচাপ কমে যাবে ও কিছুক্ষণের মধ্যেই আমি মরে যাব।

69

অভিনেত্রীর বন্ধুদের দাবি, তামিলার কাটচি দলের নেতা সীমান ও দলের অন্যান্য কর্মীদের হাতে বারবার হেনস্তা হওয়ার পরই সেই চাপ সহ্য করতে না পেরেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন অভিনেত্রী। তারপরই নিজের বাড়িতে রক্তচাপের ওষুধ খেয়ে তিনি আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন। 

79

তামিলার কাটচি দলের নেতা সীমানই শুধু নন, রাজনৈতিক দল পানাংকাট্টু পাড়াই কাটচির নেতা হরি নাদারের বিরুদ্ধেও তিনি অভিযোগ এনেছেন।

89

অভিনেত্রী ভিডিওবার্তায় আরও জানিয়েছেন, যারা আমার এই ভিডিওটি দেখছেন তারা সীমানকে কোনওমতেই ছাড়বেন না। সীমান আমাকে অনেক অত্যাচার করেছে। ও যেন কোনওদিনও জামিন না পায়। আমার মৃত্য়ু সবার জন্য যেন একটা শিক্ষা  হয়ে থাকবে। আমি কারও গোলাম হয়ে থাকতে পারলাম না।

99

চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে সীমানের নামে অভিযোগ করেছিলেন বিজয়লক্ষ্মী। বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে তিনি তা রাখেননি। এমনকী শ্লীলতাহানিও বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাসেরও অভিযোগ এনেছিলেন। অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ গ্রেফতারও করেছে সীমানকে। সেই মামলা এখনও চলছে। আর এর মধ্যেই আত্মহত্যা করার চেষ্টা করলেন অভিনেত্রী।