শুরু হতে চলেছে ইপিএল,চিনে নিন প্রিমিয়ার লিগের ইতিহাসে সেরা ১০ কোচেদের

First Published 14, Jun 2020, 12:47 PM

১৭ জুন থেকে করোনা আবহেই ফিরছে ইপিএল। ১৮৮৮  সালে শুরু হয় ইপিএল। ১৯৯২ তে নাম হয় প্রিমিয়ার লিগ। পুনরায় শুরুর আগে চিনে নিন শতাব্দী প্রাচীন লিদের সেরা ১০ ম্যানেজারদের।
 

<p><strong>১০. মৌরিসিও পচেত্তিনো-</strong><br />
প্রিমিয়ার লিগের ইতিহাসে অন্যতম আন্ডাররেটেড ম্যানেজার। ম্যানেজার হিসাবে কোনও ট্রফি জেতেননি ঠিকই কিন্তু ট‍্যটেনহ‍্যাম হটস্পারের মতো কম বাজেটের দলকে টানা চার মরশুম ইউরোপিয়ান টুর্নামেন্ট গুলির জন্য যোগ্যতা অর্জন করিয়েছেন। তার সাথে সাথে তার কেরিয়ারের সবচেয়ে বড় সাফল্য স্পার্সের মতো দলকে নিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে পৌঁছনো যা একপ্রকার অসম্ভবই ছিল। তাই তাকে এই তালিকায় জায়গা দিতেই হয়। <br />
 </p>

১০. মৌরিসিও পচেত্তিনো-
প্রিমিয়ার লিগের ইতিহাসে অন্যতম আন্ডাররেটেড ম্যানেজার। ম্যানেজার হিসাবে কোনও ট্রফি জেতেননি ঠিকই কিন্তু ট‍্যটেনহ‍্যাম হটস্পারের মতো কম বাজেটের দলকে টানা চার মরশুম ইউরোপিয়ান টুর্নামেন্ট গুলির জন্য যোগ্যতা অর্জন করিয়েছেন। তার সাথে সাথে তার কেরিয়ারের সবচেয়ে বড় সাফল্য স্পার্সের মতো দলকে নিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে পৌঁছনো যা একপ্রকার অসম্ভবই ছিল। তাই তাকে এই তালিকায় জায়গা দিতেই হয়। 
 

<p><strong>৯. রাফায়েল বেনিতেজ-</strong><br />
তার অধীনে থাকা লিভারপুলকে প্রথম মরশুমেই চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতিয়েছিলেন। কিন্তু একবার দ্বিতীয় ও দু বার তৃতীয় স্থানে শেষ করলেও লিভারপুলকে তাদের বহুকাঙ্ক্ষিত লিগ জেতাতে পারেননি। রেলিগেশনে চলে যাওয়া নিউকাসেলের মতো কম বাজেটের দলকে চ্যাম্পিয়নশিপ জিতিয়ে পুনরায় তুলে এনেছিলেন প্রথম ডিভিশনে। </p>

৯. রাফায়েল বেনিতেজ-
তার অধীনে থাকা লিভারপুলকে প্রথম মরশুমেই চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতিয়েছিলেন। কিন্তু একবার দ্বিতীয় ও দু বার তৃতীয় স্থানে শেষ করলেও লিভারপুলকে তাদের বহুকাঙ্ক্ষিত লিগ জেতাতে পারেননি। রেলিগেশনে চলে যাওয়া নিউকাসেলের মতো কম বাজেটের দলকে চ্যাম্পিয়নশিপ জিতিয়ে পুনরায় তুলে এনেছিলেন প্রথম ডিভিশনে। 

<p><br />
<strong>৮. ম্যানুয়েল পেলিগ্রিন-</strong><br />
এমন একটি সময় ম্যানচেস্টার সিটির দায়িত্ব নিয়েছিলেন যে সময় সিটি আজকের মতো ইংলিশ ফুটবলের সুপার-পাওয়ার হয়ে উঠেনি। সেখান থেকে দায়িত্ব নিয়ে। সেখান থেকে দায়িত্ব নিয়ে সিটিকে একবার লিগ এবং ২ বার লিগ কাপ খেতাব জিততে সাহায্য করেছেন তিনি। এছাড়া ম্যান সিটি তে আসার আগে রিয়াল মাদ্রিদের মতো দলেও কোচিং করিয়েছেন তিনি। <br />
 </p>


৮. ম্যানুয়েল পেলিগ্রিন-
এমন একটি সময় ম্যানচেস্টার সিটির দায়িত্ব নিয়েছিলেন যে সময় সিটি আজকের মতো ইংলিশ ফুটবলের সুপার-পাওয়ার হয়ে উঠেনি। সেখান থেকে দায়িত্ব নিয়ে। সেখান থেকে দায়িত্ব নিয়ে সিটিকে একবার লিগ এবং ২ বার লিগ কাপ খেতাব জিততে সাহায্য করেছেন তিনি। এছাড়া ম্যান সিটি তে আসার আগে রিয়াল মাদ্রিদের মতো দলেও কোচিং করিয়েছেন তিনি। 
 

<p><strong>৭. কেনি দালগিস-</strong><br />
অনেকে তাকে মনে রাখেন লিভারপুলের হয়ে প্রিমিয়ার লিগ জমানায় তার ব্যর্থতার জন্য। যদিও প্রিমিয়ার লিগ জমানার আগে লিভারপুলকে তিনি ছটি লিগ এবং তিনটি ইউরোপিয়ান কাপ জিতিয়েছেন। কিন্তু যেহেতু আমরা প্রিমিয়ার লিগের জমানার কথা বলছি তাই ওগুলি এই আলোচনায় গণ্য হবে না। প্রিমিয়ার লিগ জমানায় তার সাফল্য ব্ল্যাকবর্ন রোভার্স কে নিয়ে। ব্ল্যাকবর্নকে প্রথম ডিভিশনে তোলার তিন বছরের মধ্যে ১৯৯৪-৯৫ মরশুমে স্যার আলেক্স ফার্গুসনের ম্যান ইউ কে টেক্কা দিয়ে লিগ জেতে তার দল। <br />
 </p>

৭. কেনি দালগিস-
অনেকে তাকে মনে রাখেন লিভারপুলের হয়ে প্রিমিয়ার লিগ জমানায় তার ব্যর্থতার জন্য। যদিও প্রিমিয়ার লিগ জমানার আগে লিভারপুলকে তিনি ছটি লিগ এবং তিনটি ইউরোপিয়ান কাপ জিতিয়েছেন। কিন্তু যেহেতু আমরা প্রিমিয়ার লিগের জমানার কথা বলছি তাই ওগুলি এই আলোচনায় গণ্য হবে না। প্রিমিয়ার লিগ জমানায় তার সাফল্য ব্ল্যাকবর্ন রোভার্স কে নিয়ে। ব্ল্যাকবর্নকে প্রথম ডিভিশনে তোলার তিন বছরের মধ্যে ১৯৯৪-৯৫ মরশুমে স্যার আলেক্স ফার্গুসনের ম্যান ইউ কে টেক্কা দিয়ে লিগ জেতে তার দল। 
 

<p><strong>৬. ক্লদ রিনেয়িরি-</strong><br />
চেলসিতে চারটি মরশুম কোচিং করিয়ে টপ ফোর-এ ফিনিশ করেছিলেন মাত্র ২ বার। কিন্তু তাকে প্রিমিয়ার লিগের ইতিহাস মনে রাখবে লেস্টার সিটির মতো ক্লাবকে প্রিমিয়ার লিগ বিজয়ী করানোর জন্য। ২০১৫-১৬ মরশুমে সকলকে তাক লাগিয়ে সারা সিজন ধারাবাহিক পারফরম্যান্স করে লিগ জিতেছিল জেমি ভার্ডি, রিয়াদ মাহারেজ-রা। নেপথ্যে ছিলেন এই চাণক্য। <br />
 </p>

৬. ক্লদ রিনেয়িরি-
চেলসিতে চারটি মরশুম কোচিং করিয়ে টপ ফোর-এ ফিনিশ করেছিলেন মাত্র ২ বার। কিন্তু তাকে প্রিমিয়ার লিগের ইতিহাস মনে রাখবে লেস্টার সিটির মতো ক্লাবকে প্রিমিয়ার লিগ বিজয়ী করানোর জন্য। ২০১৫-১৬ মরশুমে সকলকে তাক লাগিয়ে সারা সিজন ধারাবাহিক পারফরম্যান্স করে লিগ জিতেছিল জেমি ভার্ডি, রিয়াদ মাহারেজ-রা। নেপথ্যে ছিলেন এই চাণক্য। 
 

<p><strong>৫. জুর্গেন ক্লপ-</strong><br />
ম্যানেজার হিসাবে দায়িত্ব নিয়ে লিভারপুলের খোলনলচে বদলে দিয়েছেন ক্লপ। তিনি দায়িত্ব নেওয়ার পরেই সঙ্গে সঙ্গে ট্রফি আসেনি ঠিকই, কিন্তু তিনি লিভারপুলকে গড়ে তুলেছেন বিশ্ব ফুটবলের অন্যতম সেরা দল। গত বছর তার কোচিং চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতে লিভারপুল। তারপর চলতি মরশুমে ক্লাবে এসেছে ইউয়েফা সুপার কাপ এবং ক্লাব বিশ্বকাপ। চলতি মরশুমে লিভারপুলের লিগ জয় শুধু সময়ের অপেক্ষা। সময় লাগলেও লিভারপুলকে তাদের অতীত গরিমা ফিরিয়ে দিয়েছেন আবেগপ্রবণ এই জার্মান। <br />
 </p>

৫. জুর্গেন ক্লপ-
ম্যানেজার হিসাবে দায়িত্ব নিয়ে লিভারপুলের খোলনলচে বদলে দিয়েছেন ক্লপ। তিনি দায়িত্ব নেওয়ার পরেই সঙ্গে সঙ্গে ট্রফি আসেনি ঠিকই, কিন্তু তিনি লিভারপুলকে গড়ে তুলেছেন বিশ্ব ফুটবলের অন্যতম সেরা দল। গত বছর তার কোচিং চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতে লিভারপুল। তারপর চলতি মরশুমে ক্লাবে এসেছে ইউয়েফা সুপার কাপ এবং ক্লাব বিশ্বকাপ। চলতি মরশুমে লিভারপুলের লিগ জয় শুধু সময়ের অপেক্ষা। সময় লাগলেও লিভারপুলকে তাদের অতীত গরিমা ফিরিয়ে দিয়েছেন আবেগপ্রবণ এই জার্মান। 
 

<p><strong>৪. জোসে মৌরিনহো-</strong><br />
পর্তুগিজ ক্লাব পোর্তো-কে ত্রিমুকুট জিতিয়ে চেলসি তে যোগ দিয়েছিলেন মৌ। দায়িত্ব নেওয়ার পর টানা দু বছর চেলসিকে প্রিমিয়ার লিগ খেতাব জিতিয়েছিলেন তিনি। ১৯৫৫ সালের পর প্রথমবার লিগ জেতে চেলসি। তারপর ক্লাব ছাড়লেও পুনরায় ২০১৩-১৪ মরশুমে চেলসিতে আবার ফিরে আসেন এবং ২০১৪-১৫ মরশুমে চেলসিকে আবার লিগ জেতান। এরপর ধুঁকতে থাকা ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের দায়িত্ব নিয়ে তাদেরকে ইউরোপা লিগ, লিগ কাপ এবং কমিউনিটি শিল্ড জেতান তিনি। একইসাথে ম্যান ইউ তার কোচিংয়ে দ্বিতীয় পজিশনে ফিনিশ করে লিগে। আপাতত রয়েছেন ট‍্যটেনহ‍্যাম হটস্পারের ম্যানেজারের হটসিটে। <br />
 </p>

৪. জোসে মৌরিনহো-
পর্তুগিজ ক্লাব পোর্তো-কে ত্রিমুকুট জিতিয়ে চেলসি তে যোগ দিয়েছিলেন মৌ। দায়িত্ব নেওয়ার পর টানা দু বছর চেলসিকে প্রিমিয়ার লিগ খেতাব জিতিয়েছিলেন তিনি। ১৯৫৫ সালের পর প্রথমবার লিগ জেতে চেলসি। তারপর ক্লাব ছাড়লেও পুনরায় ২০১৩-১৪ মরশুমে চেলসিতে আবার ফিরে আসেন এবং ২০১৪-১৫ মরশুমে চেলসিকে আবার লিগ জেতান। এরপর ধুঁকতে থাকা ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের দায়িত্ব নিয়ে তাদেরকে ইউরোপা লিগ, লিগ কাপ এবং কমিউনিটি শিল্ড জেতান তিনি। একইসাথে ম্যান ইউ তার কোচিংয়ে দ্বিতীয় পজিশনে ফিনিশ করে লিগে। আপাতত রয়েছেন ট‍্যটেনহ‍্যাম হটস্পারের ম্যানেজারের হটসিটে। 
 

<p><strong>৩. আর্সেন ওয়েঙ্গার-</strong><br />
ইপিএলের ইতিহাসে অন্যতম সেরা কোচ। অসংখ্য ট্রফি জিতিয়েছেন আর্সেনাল কে। আর্সেনালে নিজের শেষ তিন বছর বাদে বাকি বছরগুলিতে সবসময় টপ ফোরের দৌড়ে থাকতেন। নিজের শেষ মরশুমের আর্সেনাল কে কমিউনিটি শিল্ড জিতিয়েছেন তিনি। তবে তার সবচেয়ে বড় কৃতিত্ব ২০০৩-০৪ মরশুমে সোনালী লিগ জয়। ইপিএলের মতো প্রতিদ্বন্দ্বীতা পূর্ণ লিগে গোটা মরশুম অপরাজিত থেকে লিগ জয় যে চমৎকারের থেকেও বেশি কিছু তা বলার অপেক্ষা রাখে না। <br />
 </p>

৩. আর্সেন ওয়েঙ্গার-
ইপিএলের ইতিহাসে অন্যতম সেরা কোচ। অসংখ্য ট্রফি জিতিয়েছেন আর্সেনাল কে। আর্সেনালে নিজের শেষ তিন বছর বাদে বাকি বছরগুলিতে সবসময় টপ ফোরের দৌড়ে থাকতেন। নিজের শেষ মরশুমের আর্সেনাল কে কমিউনিটি শিল্ড জিতিয়েছেন তিনি। তবে তার সবচেয়ে বড় কৃতিত্ব ২০০৩-০৪ মরশুমে সোনালী লিগ জয়। ইপিএলের মতো প্রতিদ্বন্দ্বীতা পূর্ণ লিগে গোটা মরশুম অপরাজিত থেকে লিগ জয় যে চমৎকারের থেকেও বেশি কিছু তা বলার অপেক্ষা রাখে না। 
 

<p><strong>২. পেপ গুয়ার্দিওয়ালা-</strong><br />
তাকে দ্বিতীয় স্থানে রাখায় অনেকের আপত্তি থাকতে পারে। তার সম্পর্কে অভিযোগ শোনা যায় যে বিশাল বড় অংকের টাকার দল গড়ে সাফল্য পান তিনি। কিন্তু তা সত্ত্বেও অস্বীকার করা যাবে না যে এই মুহুর্তে এবং প্রিমিয়ার লিগে অন্যতম সেরা কোচ তিনি। ম্যানচেস্টার সিটির দায়িত্ব নিয়ে দ্বিতীয় এবং তৃতীয় মরশুমে লিগ জিতেছেন তিনি। ঘরোয়া ফুটবলে এমন কোন ট্রফি নেই যা তিনি জেতাননি ম্যান সিটি-কে। যদিও এখনও ইউরোপিয়ান মঞ্চে সিটি-কে সাফল্য এনে দিতে পারেননি তিনি। কিন্তু ঘরোয়া মরশুমে এত কম সময় এতগুলি ট্রফি ইপিএলের কোনও ম্যানেজার জেতেননি। <br />
 </p>

২. পেপ গুয়ার্দিওয়ালা-
তাকে দ্বিতীয় স্থানে রাখায় অনেকের আপত্তি থাকতে পারে। তার সম্পর্কে অভিযোগ শোনা যায় যে বিশাল বড় অংকের টাকার দল গড়ে সাফল্য পান তিনি। কিন্তু তা সত্ত্বেও অস্বীকার করা যাবে না যে এই মুহুর্তে এবং প্রিমিয়ার লিগে অন্যতম সেরা কোচ তিনি। ম্যানচেস্টার সিটির দায়িত্ব নিয়ে দ্বিতীয় এবং তৃতীয় মরশুমে লিগ জিতেছেন তিনি। ঘরোয়া ফুটবলে এমন কোন ট্রফি নেই যা তিনি জেতাননি ম্যান সিটি-কে। যদিও এখনও ইউরোপিয়ান মঞ্চে সিটি-কে সাফল্য এনে দিতে পারেননি তিনি। কিন্তু ঘরোয়া মরশুমে এত কম সময় এতগুলি ট্রফি ইপিএলের কোনও ম্যানেজার জেতেননি। 
 

<p><strong>১. স্যার আলেক্স ফার্গুসন-</strong><br />
নিঃসন্দেহে ইপিএলের ইতিহাসের সেরা ম্যানেজার। ২১ বছর কোচিং করিয়েছেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে। মোট ১৩ বার ইপিএল বিজয়ী করিয়েছেন ম্যান ইউ। তিনি দায়িত্ব ছাড়ার পর এখনও অবধি একবারও লিগ জিততে পারেনি ম্যান ইউ। এছাড়া ম্যান ইউ কে দুবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের খেতাবও জিতিয়েছেন। এছাড়া আরও কত ট্রফি যে জিতিয়েছেন ম্যান ইউ-কে, তা গুনে শেষ করার নয়। তর্কাতীত ভাবে প্রিমিয়ার লিগের সেরা ম্যানেজার তিনিই।</p>

১. স্যার আলেক্স ফার্গুসন-
নিঃসন্দেহে ইপিএলের ইতিহাসের সেরা ম্যানেজার। ২১ বছর কোচিং করিয়েছেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে। মোট ১৩ বার ইপিএল বিজয়ী করিয়েছেন ম্যান ইউ। তিনি দায়িত্ব ছাড়ার পর এখনও অবধি একবারও লিগ জিততে পারেনি ম্যান ইউ। এছাড়া ম্যান ইউ কে দুবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের খেতাবও জিতিয়েছেন। এছাড়া আরও কত ট্রফি যে জিতিয়েছেন ম্যান ইউ-কে, তা গুনে শেষ করার নয়। তর্কাতীত ভাবে প্রিমিয়ার লিগের সেরা ম্যানেজার তিনিই।

loader