17

এ ছাড়া গরমের সময়ে ছোলা এবং মটর ডাল তুলনামূলকভাবে কম খাওয়া উচিত কারণ এই ডালগুলি খুব ভারী। যাদের গ্যাসের সমস্যা রয়েছে তাদের রাতে আরহর ডাল খাওয়া উচিত নয়। তবে মুগ এবং মসুর ডাল একসঙ্গে খেলে মেলে প্রচুর সুবিধা। আপনি যে কোনও মরসুমে এই ডাল খেতে পারেন। 

Subscribe to get breaking news alerts

27

আপনি যদি মুগ এবং মসুর ডাল মিশিয়ে খেয়ে থাকেন তবে এটি আরও উপকারী। মুগু ও মুসুরের মিশ্রিত ডাল হজমের জন্য খুব উপকারী। যে কারণে অসুস্থ অবস্থায়ও চিকিৎসকরা এই দুই ডাল মিশিয়ে খাওয়ার পরামর্শ দেন। এই ডালকে আয়ুর্বেদে উপকারী বলে মনে করা হয়। তাই জেনে নিন মুগ ও মুসুর ডাল খাওয়ার উপকারিতাগুলি।

37

 প্রতি মৌসুমে উপকারী মুগ ও মুসুর মিশ্রিত ডাল খেতে পারেন। বিশেষত বর্ষাকালে এই মিশ্র ডাল পেটের পক্ষে খুব উপকারী। আমাদের পাচন ক্ষমতা বর্ষাকালে দুর্বল হয়ে যায়। কিছুই দ্রুত হজম হয় না। এমন অবস্থায় মুগ ও মুসুর ডাল খুব সহজেই হজম হয়। 

47

গ্রীষ্মে শীতল প্রভাবযুক্ত এবং শীতকালে উষ্ণ প্রভাবযুক্ত জিনিসগুলি খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়। আপনি চাইলে এই ডালগুলিও মরশুম অনুসারে আলাদা করতে পারেন। মুগ ডালের প্রভাব শীতল এবং মুসুর ডালের প্রভাব গরমে। তাই বর্ষা মৌসুমে এই দুটি ডাল মিশ্রিত করার পরামর্শ দেন পুষ্টিবিদরা।
 

57

স্বাস্থ্য এবং সুস্থ থাকার জন্য প্রোটিন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এগুলি ছাড়াও প্রোটিন আমাদের চুল, নখ এবং শরীরে নতুন কোষ তৈরি করতে কাজ করে। এজন্যই বলা হয় যে প্রতিদিন এক পাত্রে ডাল খাওয়া উচিত। মসুর ডাল মিশ্রণগুলি আপনার শরীরে প্রোটিনের প্রয়োজনীয়তাও পূরণ করে। বাচ্চাদের এবং বৃদ্ধদের জন্যও মুগু ও মুসুরের মিশ্রিত ডাল খুব উপকারী। সপ্তাহে ৪ থেকে ৫ বার এই মিশ্রিত ডাল খেলে অনেক জটিল সমস্যা থেকে মুক্তি মেলে। 

67

এই মিশ্র ডালটি খেলে শরীরে কোলেস্টেরল হ্রাস পায়, ডায়াবেটিসের ঝুঁকিও হ্রাস পায়। এই মিক্স ডাল কম ফ্যাটযুক্ত একটি ভাল উত্স যা হৃদরোগের মত সমস্যা থেকে দূরে রাখে। এই ডালগুলিতে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার থাকে যা দেহের খারাপ কোলেস্টেরল হ্রাস করে এবং হৃদরোগকে হ্রাস করে। এ ছাড়া এই ডালে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে আয়রন এবং দস্তা, যা আপনার দেহে রক্ত ​​বাড়াতেও কাজ করে এবং পেশী মজবুত রাখে।

77

ডালগুলি উচ্চ প্রোটিন উত্সের কারণে হজম করা সহজ নয়। এই কারণেই দিনের বেলাতেও ডাল খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়। পেটে সমস্যা থাকলেও মুগ ও মুসুর খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়। বমি ভাব, ডায়রিয়া, পেটের ব্যথা, কোষ্ঠকাঠিন্য, অবসন্নতা, গ্যাস, পেট ফাঁপা জাতীয় সমস্যা হজমের কারণে হয়। এমন পরিস্থিতিতে ডাক্তাররা হালকা মসুরের মসুর ডাল খাওয়ার পরামর্শ দেন। যদি এই মিশ্র ডালটি তবে তা আরও ভালো হজম হয় এবং তাত্ক্ষণিকভাবে পেটকে শিথিল করে।