এই ৫ লক্ষণ জানান দেয় শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা দুর্বল, জেনে নিন সেগুলি কি কি

First Published Dec 8, 2020, 1:36 PM IST

চিকিৎসকদের মতে, যাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা দুর্বল তারা সহজেই করোনার ভাইরাসের কবলে পড়তে পারে। প্রতিরোধ ব্যবস্থা দুর্বল হওয়ার বিভিন্ন কারণ রয়েছে, যেমন পূর্ববর্তী অসুস্থতা বা অতিরিক্ত সিগারেট বা অ্যালকোহল পান করার অভ্যাস। এখনও করোনাভাইরাস সংক্রমণ এড়াতে এখনও কোনও ভ্যাকসিন বা ওষুধ হাতে আসেনি। এমন পরিস্থিতিতে কেবলমাত্র রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাই এই ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করতে সাহায্য করবে। শক্তিশালী রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা যা এই সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিতে পারে। এ ছাড়া পর্যাপ্ত ঘুম না হওয়া এবং পুষ্টিকর খাদ্যের অভাবে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা দুর্বল হয়ে যায়। 

<p>রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বা ইমিউনিটি দুর্বল হওয়ার কারণে আপনি বারবার অসুস্থ হয়ে পড়তে পারেন। পাশাপাশি রোগাক্রান্ত হলে তার থেকে সুস্থ হতে আপনার অনেক সময় লাগতে পারে। আপনি যদি এই ৫ টি লক্ষণ নিজের মধ্যে দেখতে পান তবে আপনার প্রতিরোধ ক্ষমতা দুর্বল হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এই ধরণের লক্ষণ দেখা দিলে আতঙ্কিত না হয়ে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। জেনে নেওয়া যাক সেই লক্ষণগুলি কি কি-</p>

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বা ইমিউনিটি দুর্বল হওয়ার কারণে আপনি বারবার অসুস্থ হয়ে পড়তে পারেন। পাশাপাশি রোগাক্রান্ত হলে তার থেকে সুস্থ হতে আপনার অনেক সময় লাগতে পারে। আপনি যদি এই ৫ টি লক্ষণ নিজের মধ্যে দেখতে পান তবে আপনার প্রতিরোধ ক্ষমতা দুর্বল হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এই ধরণের লক্ষণ দেখা দিলে আতঙ্কিত না হয়ে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। জেনে নেওয়া যাক সেই লক্ষণগুলি কি কি-

<p>বার বার অসুস্থ হয়ে পড়া- যখন আবহাওয়া পরিবর্তন হয় বিশেষ করে শীতকালে, সেই সময় অসুস্থ হওয়া সাধারণ। তবে আপনি যদি প্রতি মরশুম বদলের সময় বারবার অসুস্থ হয়ে পড়েন তবে এটি আপনার প্রতিরোধ ক্ষমতা দুর্বল হওয়ার কারণ হতে পারে। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ব্যাকটেরিয়া, ভাইরাস এবং রোগের সঙ্গে লড়াই করে। আপনার যদি প্রায়শই ইউরিনের সংক্রমণ, মুখের ঘা, সর্দি-কাশি বা ফ্লু হয় তবে আপনার চিকিৎসকের পরামর্শ অবশ্যই নেওয়া উচিৎ।</p>

বার বার অসুস্থ হয়ে পড়া- যখন আবহাওয়া পরিবর্তন হয় বিশেষ করে শীতকালে, সেই সময় অসুস্থ হওয়া সাধারণ। তবে আপনি যদি প্রতি মরশুম বদলের সময় বারবার অসুস্থ হয়ে পড়েন তবে এটি আপনার প্রতিরোধ ক্ষমতা দুর্বল হওয়ার কারণ হতে পারে। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ব্যাকটেরিয়া, ভাইরাস এবং রোগের সঙ্গে লড়াই করে। আপনার যদি প্রায়শই ইউরিনের সংক্রমণ, মুখের ঘা, সর্দি-কাশি বা ফ্লু হয় তবে আপনার চিকিৎসকের পরামর্শ অবশ্যই নেওয়া উচিৎ।

<p>হজমের সমস্যা- অন্ত্রগুলিতে উপস্থিত ব্যাকটিরিয়াগুলির সরাসরি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাতে প্রভাব ফেলে। যদি আপনার ঘন ঘন পেট খারাপ, আলসার, গ্যাস, পেট ফোলা ভাব বা কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা থাকে তবে এটি আপনার ইমিউন সিস্টেমটি সঠিকভাবে কাজ করছে না এমন ইঙ্গিত হতে পারে।</p>

হজমের সমস্যা- অন্ত্রগুলিতে উপস্থিত ব্যাকটিরিয়াগুলির সরাসরি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাতে প্রভাব ফেলে। যদি আপনার ঘন ঘন পেট খারাপ, আলসার, গ্যাস, পেট ফোলা ভাব বা কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা থাকে তবে এটি আপনার ইমিউন সিস্টেমটি সঠিকভাবে কাজ করছে না এমন ইঙ্গিত হতে পারে।

<p>&nbsp;সারাক্ষণ ক্লান্ত বোধ করা- বেশিরভাগ সময় ক্লান্তি ও অবসন্নতা অনুভব করার বিভিন্ন কারণ থাকতে পারে। যেমন ঘুম, স্ট্রেস, রক্তাল্পতা বা দীর্ঘস্থায়ী ক্লান্তি সিন্ড্রোমের অভাব। আপনি যদি এর কারণটি না জানেন এবং পর্যাপ্ত ঘুমের পরেও যদি ক্লান্ত বোধ কাজ করে, তবে বুঝতে হবে আপনার প্রতিরোধ ক্ষমতা দুর্বল।</p>

 সারাক্ষণ ক্লান্ত বোধ করা- বেশিরভাগ সময় ক্লান্তি ও অবসন্নতা অনুভব করার বিভিন্ন কারণ থাকতে পারে। যেমন ঘুম, স্ট্রেস, রক্তাল্পতা বা দীর্ঘস্থায়ী ক্লান্তি সিন্ড্রোমের অভাব। আপনি যদি এর কারণটি না জানেন এবং পর্যাপ্ত ঘুমের পরেও যদি ক্লান্ত বোধ কাজ করে, তবে বুঝতে হবে আপনার প্রতিরোধ ক্ষমতা দুর্বল।

<p>অ্যালার্জির সমস্যা- অনেক লোকই প্রতি মরসুমে অ্যালার্জির সমস্যা দেখা যায় অনেকের মধ্যেই। যার কারণে তাদের মরসুম বদলের সময় জ্বর হওয়ার সম্ভাবনাও থাকে। যদি আপনার চোখে সব সময় জল পড়তে থাকে, কোনও খাদ্যের প্রতিক্রিয়ার ফলে ত্বকে ফুসকুড়ি, জয়েন্ট পেইন এবং পেটের সমস্যাগুলি দেখা দেয়, তবে এটি আপনার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা দুর্বল থাকার লক্ষণও হতে পারে।</p>

অ্যালার্জির সমস্যা- অনেক লোকই প্রতি মরসুমে অ্যালার্জির সমস্যা দেখা যায় অনেকের মধ্যেই। যার কারণে তাদের মরসুম বদলের সময় জ্বর হওয়ার সম্ভাবনাও থাকে। যদি আপনার চোখে সব সময় জল পড়তে থাকে, কোনও খাদ্যের প্রতিক্রিয়ার ফলে ত্বকে ফুসকুড়ি, জয়েন্ট পেইন এবং পেটের সমস্যাগুলি দেখা দেয়, তবে এটি আপনার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা দুর্বল থাকার লক্ষণও হতে পারে।

<p>ক্ষত নিরাময়- যে কোনও ক্ষত নিরাময়ের সময়, ত্বকে একটি স্তর তৈরি হয় যা শরীর থেকে রক্ত ​​বেরিয়ে আসতে বাধা দেয়, যাকে রক্ত তঞ্চণ ও বলা হয়। আপনার ক্ষত যদি দ্রুত নিরাময় না করে তবে এটি হতে পারে যে আপনার প্রতিরোধ ক্ষমতা দুর্বল। একই সমস্যাটি সর্দি এবং ফ্লুতেও রয়েছে। এক সপ্তাহ বা তার অধিক সময় ধরে জ্বর, সর্দি কাশি লক্ষণ থাকলে বুঝতে হবে আপনার শরীর সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াই করতে সক্ষম নয়। তবে ক্ষত নিরাময়ে সময় লাগা ডায়াবেটিসের লক্ষণও হতে পারে।<br />
&nbsp;</p>

ক্ষত নিরাময়- যে কোনও ক্ষত নিরাময়ের সময়, ত্বকে একটি স্তর তৈরি হয় যা শরীর থেকে রক্ত ​​বেরিয়ে আসতে বাধা দেয়, যাকে রক্ত তঞ্চণ ও বলা হয়। আপনার ক্ষত যদি দ্রুত নিরাময় না করে তবে এটি হতে পারে যে আপনার প্রতিরোধ ক্ষমতা দুর্বল। একই সমস্যাটি সর্দি এবং ফ্লুতেও রয়েছে। এক সপ্তাহ বা তার অধিক সময় ধরে জ্বর, সর্দি কাশি লক্ষণ থাকলে বুঝতে হবে আপনার শরীর সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াই করতে সক্ষম নয়। তবে ক্ষত নিরাময়ে সময় লাগা ডায়াবেটিসের লক্ষণও হতে পারে।
 

Today's Poll

একসঙ্গে কতজন প্লেয়ারের সঙ্গে খেলতে পছন্দ করেন