শরীরের এই ৫ অংশে বারবার হাত দেওয়ার অভ্যাস, মারাত্মকভাবে অসুস্থ হতে পারেন আপনি

First Published 13, Jun 2020, 5:11 PM

করোনা মহামারির আবহে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল সুস্থ থাকা। যাতে কোনওভাবে আপনি এই মারন ভাইরাসের শিকার না হয়ে পড়েন সেই বিষয়ে সচেতন থাকা। এই মহামারির থেকে বাঁচার জন্য প্রথম থেকে শরীরের বিভিন্ন অংশকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে স্পর্শ করার কথা জানানো হয়েছিল স্বাস্থ্য মন্ত্রক ও স্বাস্থ্য দপ্তরের তরফ থেকে। এই বিধি নিষেধগুলো পালন করলে করোনার ভাইরাস সংক্রমণের হাত থেকে রক্ষা পেতে পারবেন। 

<p>আপনি কি জানেন যে মহিলা এবং পুরুষ উভয়ই তাদের শরীরের নির্দিষ্ট অংশগুলিকে বারবার স্পর্শ করেন। এই অভ্যাসের শিকার ব্যক্তিরা গুরুতর অসুস্থতার শিকার হতে পারেন যে কোনও সময়ে। জেনে নেওয়া যাক দেহের কোন বিশেষ অঙ্গগুলি বার বার স্পর্শ করা উচিত নয়। </p>

আপনি কি জানেন যে মহিলা এবং পুরুষ উভয়ই তাদের শরীরের নির্দিষ্ট অংশগুলিকে বারবার স্পর্শ করেন। এই অভ্যাসের শিকার ব্যক্তিরা গুরুতর অসুস্থতার শিকার হতে পারেন যে কোনও সময়ে। জেনে নেওয়া যাক দেহের কোন বিশেষ অঙ্গগুলি বার বার স্পর্শ করা উচিত নয়। 

<p>চোখ- চোখ আমাদের দেহের এমন একটি গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ যার মাধ্যমে আমরা আমাদের চারপাশের জিনিসগুলি দেখতে পারি। মহিলা এবং পুরুষদের মধ্যে ঘন ঘন চোখ স্পর্শ করা বা চোখ চুলকারনোর একটি খারাপ অভ্যাস রয়েছে। এটি করার সময় যদি কোনও জীবাণু আপনার হাতে উপস্থিত থাকে তবে এটি চোখে মারাত্মক সংক্রমণের কারণ হতে পারে। তাই ঘন ঘন আপনার চোখ স্পর্শ করবেন না। প্রয়োজনে চোখের চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।</p>

চোখ- চোখ আমাদের দেহের এমন একটি গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ যার মাধ্যমে আমরা আমাদের চারপাশের জিনিসগুলি দেখতে পারি। মহিলা এবং পুরুষদের মধ্যে ঘন ঘন চোখ স্পর্শ করা বা চোখ চুলকারনোর একটি খারাপ অভ্যাস রয়েছে। এটি করার সময় যদি কোনও জীবাণু আপনার হাতে উপস্থিত থাকে তবে এটি চোখে মারাত্মক সংক্রমণের কারণ হতে পারে। তাই ঘন ঘন আপনার চোখ স্পর্শ করবেন না। প্রয়োজনে চোখের চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

<p>ঠোঁট- পুরুষ মহিলা নির্বিশেষ বারবার ঠোঁটে স্পর্শ করার প্রবণতা বেশি লক্ষ্য করা যায়। মহিলারা মেকআপ বা ত্বকের যত্ন নিতে গিয়ে ঠোঁট স্পর্শ করেন। পুরুষও এই অভ্যাসের শিকার। এটি কেবল ঠোঁটের আকৃতিই নষ্ট করতে পারে না, তবে এটি ঠোঁটের নরম ত্বকেও প্রচুর ক্ষতি করতে পারে। তাই বারবার আপনার ঠোঁট স্পর্শ করা এড়িয়ে চলুন। এছাড়া আপনার আঙ্গুলে লেগে থাকা জীবানু এর ফলে সহজেই শরীরের মধ্যে প্রবেশ করতে পারে। তাই এই অভ্যাস থাকলে সচেতন হন ও এই অভ্যাস ত্যাগ করুন।</p>

ঠোঁট- পুরুষ মহিলা নির্বিশেষ বারবার ঠোঁটে স্পর্শ করার প্রবণতা বেশি লক্ষ্য করা যায়। মহিলারা মেকআপ বা ত্বকের যত্ন নিতে গিয়ে ঠোঁট স্পর্শ করেন। পুরুষও এই অভ্যাসের শিকার। এটি কেবল ঠোঁটের আকৃতিই নষ্ট করতে পারে না, তবে এটি ঠোঁটের নরম ত্বকেও প্রচুর ক্ষতি করতে পারে। তাই বারবার আপনার ঠোঁট স্পর্শ করা এড়িয়ে চলুন। এছাড়া আপনার আঙ্গুলে লেগে থাকা জীবানু এর ফলে সহজেই শরীরের মধ্যে প্রবেশ করতে পারে। তাই এই অভ্যাস থাকলে সচেতন হন ও এই অভ্যাস ত্যাগ করুন।

<p>নাক- শ্বাস প্রশ্বাসের প্রক্রিয়া বন্ধ থাকায় বা আরও নানান বিষয়ে বার বার নাক চুলকানো বা হাত দেওয়ার প্রবণতা লক্ষ্য করা যায়। কিছু লোকের নাকের মধ্যে বারবার আঙুল দিয়ে স্পর্শ করার অভ্যাসও থাকে। এই অভ্যাসের ফলে খুব সহজেই নাকের মধ্যে সংক্রমণ ছড়িয়ে যেতে পারে। এর ফলে আপনার শ্বাসকষ্টজনিত রোগও হতে পারে। পুরুষদের তুলনায় মহিলাদের মধ্যে এই অভ্যাস কম দেখা যায়। যদিও পুরুষ এবং মহিলা উভয়েরই এ বিষয়ে যত্নবান হওয়া দরকার।<br />
 </p>

নাক- শ্বাস প্রশ্বাসের প্রক্রিয়া বন্ধ থাকায় বা আরও নানান বিষয়ে বার বার নাক চুলকানো বা হাত দেওয়ার প্রবণতা লক্ষ্য করা যায়। কিছু লোকের নাকের মধ্যে বারবার আঙুল দিয়ে স্পর্শ করার অভ্যাসও থাকে। এই অভ্যাসের ফলে খুব সহজেই নাকের মধ্যে সংক্রমণ ছড়িয়ে যেতে পারে। এর ফলে আপনার শ্বাসকষ্টজনিত রোগও হতে পারে। পুরুষদের তুলনায় মহিলাদের মধ্যে এই অভ্যাস কম দেখা যায়। যদিও পুরুষ এবং মহিলা উভয়েরই এ বিষয়ে যত্নবান হওয়া দরকার।
 

<p>কান- অনেকে নিশ্চয়ই দেখেছেন যে কান পরিষ্কার করার জন্য কানের ক্লিনার পরিবর্তে আঙ্গুলের সাহায্য নেন। এটি অত্যন্ত বিপজ্জনক হতে পারে। এর ফলে হাতে থাকা জীবানু যা আমরা দেখতে পাই না সরাসরি কানে প্রবেশ করতে পারে। এই জীবাণুগুলি কানের সংক্রমণও ঘটাতে পারে। কানের সংক্রমণ কখনও কখনও এত মারাত্মক হয় এর ফলে গলা ফুলে যাওয়া, কানে ব্যাথা হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। তাই এই অভ্যাসগুলি যদি আপনার থাকে তবে তা দ্রুত বদলে ফেলুন।</p>

কান- অনেকে নিশ্চয়ই দেখেছেন যে কান পরিষ্কার করার জন্য কানের ক্লিনার পরিবর্তে আঙ্গুলের সাহায্য নেন। এটি অত্যন্ত বিপজ্জনক হতে পারে। এর ফলে হাতে থাকা জীবানু যা আমরা দেখতে পাই না সরাসরি কানে প্রবেশ করতে পারে। এই জীবাণুগুলি কানের সংক্রমণও ঘটাতে পারে। কানের সংক্রমণ কখনও কখনও এত মারাত্মক হয় এর ফলে গলা ফুলে যাওয়া, কানে ব্যাথা হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। তাই এই অভ্যাসগুলি যদি আপনার থাকে তবে তা দ্রুত বদলে ফেলুন।

<p>খাবার খাওয়ার পরে, এমন অনেক লোক আছেন যারা মুখে আটকানো খাবার পরিষ্কার করতে শুধুমাত্র আঙুল ব্যবহার করেন। এই অদ্ভুত অনুভূতির পাশাপাশি এটি সরাসরি শরীরে বিভিন্ন ধরণের রোগ সরবরাহ করতে পারে। সুতরাং, যাদের এইরকম অভ্যাস রয়েছে তাদের উচিত এটি আজ থেকে ছেড়ে দেওয়া উচিত। মুখ পরিষ্কার করার জন্য কেবল গরম জল বা মাউথওয়াশ ব্যবহার করুন।</p>

খাবার খাওয়ার পরে, এমন অনেক লোক আছেন যারা মুখে আটকানো খাবার পরিষ্কার করতে শুধুমাত্র আঙুল ব্যবহার করেন। এই অদ্ভুত অনুভূতির পাশাপাশি এটি সরাসরি শরীরে বিভিন্ন ধরণের রোগ সরবরাহ করতে পারে। সুতরাং, যাদের এইরকম অভ্যাস রয়েছে তাদের উচিত এটি আজ থেকে ছেড়ে দেওয়া উচিত। মুখ পরিষ্কার করার জন্য কেবল গরম জল বা মাউথওয়াশ ব্যবহার করুন।

loader