লকডাউনের মধ্যেই খুলল কেদারনাথের দরজা, দর্শন করুন বাবার দিব্যরূপ

First Published 29, Apr 2020, 11:37 AM

করোনা সংক্রমণ আটকাতে দেশজুড়ে চলছে লকডাউন। তার মধ্যেই খুলল কেজারনাথ মন্দিরর প্রধান ফটক। বুধবার সকাল ৬টা বেজে ১০ মিনিটে ১৬ জনকে সঙ্গে নিয়ে মন্দিরে পৌঁছন  পুরোহিত। তবে মন্দির খুললেও দর্শন আপাতত বন্ধই থাকছে। কারণ মহামারী করোনায় গোটা দেশ বিধ্বস্ত। এই পরিস্থিতিতে তীর্থযাত্রীদের কোনওভাবেই মন্দিরে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া যাবে না। তবে ভক্তদের দর্শনের অনুমতি না থাকলেও প্রথাগত উপায়েই ফুল দিয়ে সাজিয়ে তোলা হয় মন্দিরের প্রধান ফটক। চার ধামের অন্যতম কেদারনাথ রুদ্রপ্রয়াগে অবস্থিত। এটি ভগবান শঙ্করের আবাস। 

<p style="text-align: justify;">২০২০-র ২৯ এপ্রিলের নির্ধারিত সময়সূচি মেনেই এবার কেদারনাথ মন্দির খুলল। সোমবার সন্ধ্যায় বাবা কেদারের ডোলি ধামে পৌঁছয়। বুধবার প্রথম পুজো দেওয়া হয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নামে।</p>

২০২০-র ২৯ এপ্রিলের নির্ধারিত সময়সূচি মেনেই এবার কেদারনাথ মন্দির খুলল। সোমবার সন্ধ্যায় বাবা কেদারের ডোলি ধামে পৌঁছয়। বুধবার প্রথম পুজো দেওয়া হয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নামে।

<p>চলিত মাসের গোড়াতেই কেদারের দরজা খোলা নিয়ে একপ্রস্থ বৈঠক সারে মন্দির কমিটি। সেখানেই স্থির &nbsp;করা হয় যে মন্দির নির্ধারিত সময়েই খোলা হবে। তবে করোনা মহামারীর কারণে রুদ্রপ্রয়াগের জেলাশাসক মঙ্গেশ গিধিয়াল জানিয়ে দেন, ২৯ এপ্রিল প্রথা মেনে মন্দির খুললেও সেখানে &nbsp;শুধু ১৬ জনকে নিয়ে সেখানে উপস্থিত থাকবেন পুরোহিত।&nbsp;</p>

চলিত মাসের গোড়াতেই কেদারের দরজা খোলা নিয়ে একপ্রস্থ বৈঠক সারে মন্দির কমিটি। সেখানেই স্থির  করা হয় যে মন্দির নির্ধারিত সময়েই খোলা হবে। তবে করোনা মহামারীর কারণে রুদ্রপ্রয়াগের জেলাশাসক মঙ্গেশ গিধিয়াল জানিয়ে দেন, ২৯ এপ্রিল প্রথা মেনে মন্দির খুললেও সেখানে  শুধু ১৬ জনকে নিয়ে সেখানে উপস্থিত থাকবেন পুরোহিত। 

<p style="text-align: justify;">মন্দির খোলার পর প্রথম যে রুদ্রাভিষেক পুজো হয়, সেটি করা হয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নামে৷ মন্দিরের প্রধান পুরোহিত ভিমশঙ্কর লিঙ কোয়ারেন্টাইনে থাকায় সহকারী পূজারি শিবশঙ্কর লিঙ পুজো সারেন৷&nbsp;</p>

মন্দির খোলার পর প্রথম যে রুদ্রাভিষেক পুজো হয়, সেটি করা হয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নামে৷ মন্দিরের প্রধান পুরোহিত ভিমশঙ্কর লিঙ কোয়ারেন্টাইনে থাকায় সহকারী পূজারি শিবশঙ্কর লিঙ পুজো সারেন৷ 

<p style="text-align: justify;">মন্দির খোলার সময় সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে সেখানে কেবলমাত্র পূজারি, মন্দির কমিটর সদস্য এবং প্রশাসনের হাতেগোণা কয়েকজন আধিকারিক উপস্থিত ছিলেন</p>

মন্দির খোলার সময় সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে সেখানে কেবলমাত্র পূজারি, মন্দির কমিটর সদস্য এবং প্রশাসনের হাতেগোণা কয়েকজন আধিকারিক উপস্থিত ছিলেন

<p style="text-align: justify;">কেদারনাথ মন্দিরটি ভারতের উত্তরাখণ্ড রাজ্যের রুদ্রপ্রয়াগ জেলায় অবস্থিত। এটি &nbsp;বারো জ্যোতির্লিঙ্গের অন্যতম। চার ধামের অন্যতম ধাম কেদার নাথ।</p>

কেদারনাথ মন্দিরটি ভারতের উত্তরাখণ্ড রাজ্যের রুদ্রপ্রয়াগ জেলায় অবস্থিত। এটি  বারো জ্যোতির্লিঙ্গের অন্যতম। চার ধামের অন্যতম ধাম কেদার নাথ।

<p style="text-align: justify;"><strong>প্রতি বছরই এপ্রিল থেকে মে মাসের মধ্যে ছ' মাসের জন্য খোলা হয় গঙ্গোত্রী, যমুনোত্রী, কেদারনাথ এবং বদ্রিনাথ মন্দির৷ মহাশিবরাত্রির দিন তীর্থ ভ্রমণের সময়কাল ঠিক করা হয়। এই কাজ করতে হিন্দু প্রথা মেনে সেখানে উপস্থিত থাকেন ভীমশংকর শিবলিঙ্গের রাওয়াল, ওমকারেশ্বর মন্দিরের পুরোহিত-সহ বেশ কয়েকজন।</strong></p>

প্রতি বছরই এপ্রিল থেকে মে মাসের মধ্যে ছ' মাসের জন্য খোলা হয় গঙ্গোত্রী, যমুনোত্রী, কেদারনাথ এবং বদ্রিনাথ মন্দির৷ মহাশিবরাত্রির দিন তীর্থ ভ্রমণের সময়কাল ঠিক করা হয়। এই কাজ করতে হিন্দু প্রথা মেনে সেখানে উপস্থিত থাকেন ভীমশংকর শিবলিঙ্গের রাওয়াল, ওমকারেশ্বর মন্দিরের পুরোহিত-সহ বেশ কয়েকজন।

<p style="text-align: justify;"><strong>গারওয়াল পর্বতের কোলে কেদারনাথ মন্দিরকে এদিন দশ কুইন্টাল ফুলের মালা দিয়ে সাজানো হয়েছে৷&nbsp;</strong></p>

গারওয়াল পর্বতের কোলে কেদারনাথ মন্দিরকে এদিন দশ কুইন্টাল ফুলের মালা দিয়ে সাজানো হয়েছে৷ 

<p style="text-align: justify;"><strong>মঙ্গলবার বার্ষিক পঞ্চমুখী ডোলি যাত্রা হয়৷ প্রবল বরফের &nbsp;চাদরে ঢেকে গিয়েছে কেদারনাথ৷ পঞ্চমুখী বিগ্রহ ঘটা করে কেদারনাথে প্রতি বছর মন্দিরে বসানো হয়৷ ১ হাজার ভক্ত পালকিতে করে সেই বিগ্রহ নিয়ে যান প্রতিবছর৷ এবছর মাত্র ৫ জন তা করেন।</strong></p>

মঙ্গলবার বার্ষিক পঞ্চমুখী ডোলি যাত্রা হয়৷ প্রবল বরফের  চাদরে ঢেকে গিয়েছে কেদারনাথ৷ পঞ্চমুখী বিগ্রহ ঘটা করে কেদারনাথে প্রতি বছর মন্দিরে বসানো হয়৷ ১ হাজার ভক্ত পালকিতে করে সেই বিগ্রহ নিয়ে যান প্রতিবছর৷ এবছর মাত্র ৫ জন তা করেন।

<p style="text-align: justify;"><strong>হাড়হিম করা ঠান্ডাকে উপেক্ষা করেই প্রতিবছর হিমালয়ের কোলে কেদারনাথ দর্শনে যান হাজারও তীর্থযাত্রী। কেদারনাথ ও বদ্রীনাথ হিন্দুদের পবিত্র ধর্মস্থান হিসেবেই পরিচিত।</strong></p>

হাড়হিম করা ঠান্ডাকে উপেক্ষা করেই প্রতিবছর হিমালয়ের কোলে কেদারনাথ দর্শনে যান হাজারও তীর্থযাত্রী। কেদারনাথ ও বদ্রীনাথ হিন্দুদের পবিত্র ধর্মস্থান হিসেবেই পরিচিত।

<p>রুদ্রপ্রয়াগ থেকে ৮৬ কিলোমিটার দূরে, গুপ্তকাশী জেলায় অবস্থিত কেদারনাথ। একাধিক পাহাড় পেরিয়ে, কখনও চোখজুড়োনো সবুজ, কখনও উষ্ণ ঝরনার স্রোত আর সীমাহীন প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের মধ্যে দিয়ে কেদারনাথ পৌঁছনো যায়।</p>

রুদ্রপ্রয়াগ থেকে ৮৬ কিলোমিটার দূরে, গুপ্তকাশী জেলায় অবস্থিত কেদারনাথ। একাধিক পাহাড় পেরিয়ে, কখনও চোখজুড়োনো সবুজ, কখনও উষ্ণ ঝরনার স্রোত আর সীমাহীন প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের মধ্যে দিয়ে কেদারনাথ পৌঁছনো যায়।

<p>শিবের ১২টি জ্যোর্তিলিঙ্গের মধ্যে কেদারনাথ সবচেয়ে তাৎপর্যপূর্ণ। এখানে দেখা মধ্যে রয়েছে ভৈরব মন্দি ও মহাপন্থ। তাদের ওপর রয়েছে সাতোপন্থ—যার সম্পর্কে বলা হয় স্বর্গে যাওয়ার প্রবেশদ্বার। এছাড়াও রয়েছে কেদারনাথ অভয়ারণ্য।&nbsp;</p>

শিবের ১২টি জ্যোর্তিলিঙ্গের মধ্যে কেদারনাথ সবচেয়ে তাৎপর্যপূর্ণ। এখানে দেখা মধ্যে রয়েছে ভৈরব মন্দি ও মহাপন্থ। তাদের ওপর রয়েছে সাতোপন্থ—যার সম্পর্কে বলা হয় স্বর্গে যাওয়ার প্রবেশদ্বার। এছাড়াও রয়েছে কেদারনাথ অভয়ারণ্য। 

<p>গত ২৬ এপ্রিল অক্ষয় তৃতীয়ার দিন খুলেছিল গঙ্গোত্রি এবং যমুনোত্রি মন্দির৷ আগামী ১৫ মে খুলবে বদ্রিনাথ মন্দির৷</p>

গত ২৬ এপ্রিল অক্ষয় তৃতীয়ার দিন খুলেছিল গঙ্গোত্রি এবং যমুনোত্রি মন্দির৷ আগামী ১৫ মে খুলবে বদ্রিনাথ মন্দির৷

<p>বদ্রীনাথ মন্দিরের অবস্থান অলকানান্দা নদীর বাম তীরে নর ও নারায়ণ নামের দুই পর্বতের মাঝখানে। অনন্য সুন্দর প্রাকৃতিক অবস্থানের জন্যেও এর খ্যাতি রয়েছে।</p>

বদ্রীনাথ মন্দিরের অবস্থান অলকানান্দা নদীর বাম তীরে নর ও নারায়ণ নামের দুই পর্বতের মাঝখানে। অনন্য সুন্দর প্রাকৃতিক অবস্থানের জন্যেও এর খ্যাতি রয়েছে।

loader