নজির তৈরি করলেন ভারতীয় কন্যা, আলাপ করুন নিউজিল্যান্ডের ভারতীয় মন্ত্রীর সঙ্গে

First Published 2, Nov 2020, 6:53 PM

রেকর্ড তৈরি করলেন প্রিয়াঙ্কা রাধাকৃষ্ণন। ৪১ বছরের রাধাকৃষ্ণন নিউজিল্যান্ডের প্রথম মন্ত্রী যিনি ভারতীয় বংশোদ্ভূত। ভারতে জন্মগ্রহণ করেছিলেন প্রিয়াঙ্কা। পড়াশুনার জন্য চলে গিয়েছিলেন বিদেশ। প্রথমে সিঙ্গাপুর তারপর নিউজিল্যান্ড। কর্মজীবন শুরু করেছিলেন সমাজকর্মী  হিসেবে। পরবর্তীকালে আসেন রাজনীতিতে। আর বাকিটা সম্পূর্ণ ইতিহাস। 

<p><strong>&nbsp;নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জ্যাকিন্ডা আর্ডারনের মন্ত্রিসভায় ভারতীয় বংশোদ্ভূত মন্ত্রী হলেন প্রিয়াঙ্কা রাধাকৃষ্ণন। রীতিমত ইতিহাস তৈরি করছেন প্রিয়াঙ্কা।&nbsp;</strong><br />
&nbsp;</p>

 নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জ্যাকিন্ডা আর্ডারনের মন্ত্রিসভায় ভারতীয় বংশোদ্ভূত মন্ত্রী হলেন প্রিয়াঙ্কা রাধাকৃষ্ণন। রীতিমত ইতিহাস তৈরি করছেন প্রিয়াঙ্কা। 
 

<p><strong>ভারতে জন্মগ্রহণকারী প্রিয়াঙ্কা রাধাকৃষ্ণন প্রথমে পড়াশুনার জন্য সিঙ্গাপুর গিয়েছিলেন। তারপর যান নিউজিল্যান্ডে। সেখানেই সমাজকর্মী&nbsp;হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন। তারপরই রাজনীতিতে নাম লেখান।&nbsp;</strong><br />
&nbsp;</p>

ভারতে জন্মগ্রহণকারী প্রিয়াঙ্কা রাধাকৃষ্ণন প্রথমে পড়াশুনার জন্য সিঙ্গাপুর গিয়েছিলেন। তারপর যান নিউজিল্যান্ডে। সেখানেই সমাজকর্মী হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন। তারপরই রাজনীতিতে নাম লেখান। 
 

<p><strong>প্রিয়াঙ্কা মূলত পিছিয়ে পড়াদের জন্যই কাজ করছেন। তিনি সাহায্য করতেন পরিবারিক শোষণে জর্জরিত মহিলাদের। পাশে দাঁড়িয়েছিলেন শোষণের শিকার হওয়া প্রবাসী শ্রমিকদের।&nbsp;</strong></p>

প্রিয়াঙ্কা মূলত পিছিয়ে পড়াদের জন্যই কাজ করছেন। তিনি সাহায্য করতেন পরিবারিক শোষণে জর্জরিত মহিলাদের। পাশে দাঁড়িয়েছিলেন শোষণের শিকার হওয়া প্রবাসী শ্রমিকদের। 

<p><strong>২০১৭ সালে লেবার পার্টির টিকিকে জয়ী হয়ে কিউই সংসদে প্রথম পা রেখেছিলেন প্রিয়াঙ্কা রাধাকৃষ্ণান।২০১৯ সালে এথেনিক কমিউনিটির মন্ত্রীর সচিবের দায়িত্ব পালন করেছিলেন।&nbsp;</strong><br />
&nbsp;</p>

২০১৭ সালে লেবার পার্টির টিকিকে জয়ী হয়ে কিউই সংসদে প্রথম পা রেখেছিলেন প্রিয়াঙ্কা রাধাকৃষ্ণান।২০১৯ সালে এথেনিক কমিউনিটির মন্ত্রীর সচিবের দায়িত্ব পালন করেছিলেন। 
 

<p><strong>প্রিয়াঙ্কা এর্নাকুলামের বাসিন্দা। তাঁর এই সাফল্যে স্বাগত জানিয়েছিলেন কেরলের স্বাস্থ্য মন্ত্রী শৈলজা। তিনি বলেছেন, পরিবর্তন আনতে সক্ষম হবেন প্রিয়াঙ্কা। ভারতবাসী হিসেবেও প্রিয়াঙ্কার এই সাফল্যে তিনি খুশি বলে জানিয়েছেন।&nbsp;</strong><br />
&nbsp;</p>

প্রিয়াঙ্কা এর্নাকুলামের বাসিন্দা। তাঁর এই সাফল্যে স্বাগত জানিয়েছিলেন কেরলের স্বাস্থ্য মন্ত্রী শৈলজা। তিনি বলেছেন, পরিবর্তন আনতে সক্ষম হবেন প্রিয়াঙ্কা। ভারতবাসী হিসেবেও প্রিয়াঙ্কার এই সাফল্যে তিনি খুশি বলে জানিয়েছেন। 
 

<p><strong>প্রিয়াঙ্কাকে মূলত তিনটি পোর্টফোলিও দেওয়া হয়েছে। তিনি &nbsp;সম্প্রদায় ও স্বেচ্ছাসেবী খাত, বৈচিত্র অন্তর্ভুক্ত এবং নৃগোষ্ঠী যবক বিভাগের দায়িত্ব পেয়েছেন। &nbsp;সামাজিক উন্নয়ন ও কর্মসংস্থানের সহযোগী মন্ত্রীও। মন্ত্রিপরিষদে মন্ত্রীর পদে উন্নয়নের প্রাককালে প্রিয়াঙ্কা শাড়ি পড়েছিলেন।&nbsp;</strong><br />
&nbsp;</p>

প্রিয়াঙ্কাকে মূলত তিনটি পোর্টফোলিও দেওয়া হয়েছে। তিনি  সম্প্রদায় ও স্বেচ্ছাসেবী খাত, বৈচিত্র অন্তর্ভুক্ত এবং নৃগোষ্ঠী যবক বিভাগের দায়িত্ব পেয়েছেন।  সামাজিক উন্নয়ন ও কর্মসংস্থানের সহযোগী মন্ত্রীও। মন্ত্রিপরিষদে মন্ত্রীর পদে উন্নয়নের প্রাককালে প্রিয়াঙ্কা শাড়ি পড়েছিলেন। 
 

<p><strong>&nbsp;প্রিয়াঙ্কা প্যারাভর মাধবনপুরম্বু রমন রাধাকৃষ্ণান ও উষার সন্তান। এই পরিবারের অধিকাংশ সদস্য চেন্নাইতে থাকেন। প্রিয়াঙ্কা সিঙ্গাপুরে বড় হয়েছেন। তাঁর দাদুও রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন।&nbsp;</strong></p>

 প্রিয়াঙ্কা প্যারাভর মাধবনপুরম্বু রমন রাধাকৃষ্ণান ও উষার সন্তান। এই পরিবারের অধিকাংশ সদস্য চেন্নাইতে থাকেন। প্রিয়াঙ্কা সিঙ্গাপুরে বড় হয়েছেন। তাঁর দাদুও রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। 

<p><strong>১৪ বছর ধরে তিনি লেবার পার্টির সদস্য। প্রিয়াঙ্কার নিউজিল্যাল্ডের প্রাক্তন মন্ত্রী জেনি সেলসায়রএর ব্যক্তিগত সচিব হিসেবেও কাজ করেছিলেন। স্বামীর সঙ্গেই তিনি অকল্যান্ডে থাকেন। তাঁর স্বামী রিচার্ডসন ক্রাইস্টচার্চের একজন আইটি কর্মী।&nbsp;</strong></p>

১৪ বছর ধরে তিনি লেবার পার্টির সদস্য। প্রিয়াঙ্কার নিউজিল্যাল্ডের প্রাক্তন মন্ত্রী জেনি সেলসায়রএর ব্যক্তিগত সচিব হিসেবেও কাজ করেছিলেন। স্বামীর সঙ্গেই তিনি অকল্যান্ডে থাকেন। তাঁর স্বামী রিচার্ডসন ক্রাইস্টচার্চের একজন আইটি কর্মী। 

<p><strong>প্রিয়াঙ্কার এই সাফল্যে খুশি তাঁর পরিবারের সদস্য ও সহকর্মীরা। আগামী দিনে তিনি পিছিয়ে পড়া মানুষদের পাশে দাঁড়াবেন বলেই মনে করছেন অনেকে।&nbsp;</strong></p>

প্রিয়াঙ্কার এই সাফল্যে খুশি তাঁর পরিবারের সদস্য ও সহকর্মীরা। আগামী দিনে তিনি পিছিয়ে পড়া মানুষদের পাশে দাঁড়াবেন বলেই মনে করছেন অনেকে।