পাকিস্তান ঘনিষ্ঠতার মূল্য চোকাচ্ছে বেজিং, চিনের সঙ্গে সৌদি বাতিল করল ১০ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের চুক্তি

First Published 24, Aug 2020, 2:53 PM

কাশ্মীর ইস্যুতে আরব দেশগুলোর কাছ থেকে কাঙ্ক্ষিত সমর্থন পেতে ব্যর্থ পাকিস্তান। চিনের নেতৃত্বে ভারতের বিরুদ্ধে নতুন জোট খোঁজার চেষ্টা করছে ইমরানের দেশ। কিন্তু পাকিস্তানের সঙ্গে চিনের এই সখ্যতা একেবারেই ভাল চোখে দেখছে না সৌদি। তাই সাম্রাজ্যবাদী বেজিংকেও তোখ রাঙাতে ছাড়ল না সৌদি আরব। বাতিল করা হল চিনের সঙ্গে ১০ বিলিয়ন মার্কন ডলারের চুক্তি।

<p><strong>চলতি মাসের শুরুতে পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি কাশ্মীর ইস্যুতে ইসালামাবাদকেকে বাড়তি সহায়তা প্রদানে রাজি না হওয়ায়  ৫৭টি  মুসলিম দেশের জোট অরগানাইজেশন অব ইসলামিক কোঅপারেশন (ওআইসি) এর সমালোচনা করেন। এক টেলিভিশনে দেওয়া সাক্ষাত্কারে তিনি বলেন, মূল সংগঠকেরা বৈঠক না ডাকলে পাকিস্তানই আগ্রহী অন্য দেশগুলোকে নিয়ে এ রকম বৈঠক ডাকতে। কারণ কিছু মুসলিম দেশ কাশ্মীর ইস্যুতে পাকিস্তানের পাশে দাঁড়াতে প্রস্তুত রয়েছে। তার মন্তব্যে ব্যাপকভাবে ক্ষুব্ধ হয়েছে সৌদি আরব। কারণ ওআইসিতে বর্তমানে সৌদি আরবের বড় ভূমিকা ও প্রভাব রয়েছে।</strong></p>

চলতি মাসের শুরুতে পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি কাশ্মীর ইস্যুতে ইসালামাবাদকেকে বাড়তি সহায়তা প্রদানে রাজি না হওয়ায়  ৫৭টি  মুসলিম দেশের জোট অরগানাইজেশন অব ইসলামিক কোঅপারেশন (ওআইসি) এর সমালোচনা করেন। এক টেলিভিশনে দেওয়া সাক্ষাত্কারে তিনি বলেন, মূল সংগঠকেরা বৈঠক না ডাকলে পাকিস্তানই আগ্রহী অন্য দেশগুলোকে নিয়ে এ রকম বৈঠক ডাকতে। কারণ কিছু মুসলিম দেশ কাশ্মীর ইস্যুতে পাকিস্তানের পাশে দাঁড়াতে প্রস্তুত রয়েছে। তার মন্তব্যে ব্যাপকভাবে ক্ষুব্ধ হয়েছে সৌদি আরব। কারণ ওআইসিতে বর্তমানে সৌদি আরবের বড় ভূমিকা ও প্রভাব রয়েছে।

<p><strong>কুরেশির বার্তা মানতে চায়নি সৌদি আরব। এদিকে একাধিকবার পাকিস্তানের বিদেশমন্ত্রী সৌদির বিরুদ্ধে গড়া চড়িয়েছেন। তাতেই ক্ষুব্ধ হন সৌদির রাজপুত্র মহম্মদ বিন সলমান।</strong></p>

কুরেশির বার্তা মানতে চায়নি সৌদি আরব। এদিকে একাধিকবার পাকিস্তানের বিদেশমন্ত্রী সৌদির বিরুদ্ধে গড়া চড়িয়েছেন। তাতেই ক্ষুব্ধ হন সৌদির রাজপুত্র মহম্মদ বিন সলমান।

<p><strong>গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে সৌদি যুবরাজের পাকিস্তান সফরের সময়ে ৬২০ কোটি ডলারের ঋণ ও তেল সরবরাহের চুক্তি স্বাক্ষরিত হয় দুই দেশের মধ্যে। তবে ওআইসি’র পররাষ্ট্র মন্ত্রীদের বিশেষ বৈঠক ডাকতে ইসলামাবাদ রিয়াদের ওপর চাপ প্রয়োগ করলে ওই চুক্তি বাতিলের কথা জানায় সৌদি আরব। আর এর মধ্য দিয়ে এই দুই পুরনো মিত্রের সম্পর্কের অবনতি প্রকাশ্যে চলে আসে।</strong></p>

গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে সৌদি যুবরাজের পাকিস্তান সফরের সময়ে ৬২০ কোটি ডলারের ঋণ ও তেল সরবরাহের চুক্তি স্বাক্ষরিত হয় দুই দেশের মধ্যে। তবে ওআইসি’র পররাষ্ট্র মন্ত্রীদের বিশেষ বৈঠক ডাকতে ইসলামাবাদ রিয়াদের ওপর চাপ প্রয়োগ করলে ওই চুক্তি বাতিলের কথা জানায় সৌদি আরব। আর এর মধ্য দিয়ে এই দুই পুরনো মিত্রের সম্পর্কের অবনতি প্রকাশ্যে চলে আসে।

<p><strong>পরিস্থিতি সামল দিতে ইমরান অবশ্য দেশের সেনা প্রধানকে রিয়াধে পাঠিয়েছিলেন। সেখানে সৌদির রাজপুত্র সলমানের সঙ্গে দেখা করার কথা ছিল পাকিস্তানের সেনা প্রধান জেনারেল বাজওয়ার। কিন্তু শেষ মুহূর্তে বাজওয়াকে পাত্তা না দিয়ে,তাঁর সঙ্গে বৈঠকই বাতিল করে দেন সৌদির রাজপুত্র।</strong></p>

পরিস্থিতি সামল দিতে ইমরান অবশ্য দেশের সেনা প্রধানকে রিয়াধে পাঠিয়েছিলেন। সেখানে সৌদির রাজপুত্র সলমানের সঙ্গে দেখা করার কথা ছিল পাকিস্তানের সেনা প্রধান জেনারেল বাজওয়ার। কিন্তু শেষ মুহূর্তে বাজওয়াকে পাত্তা না দিয়ে,তাঁর সঙ্গে বৈঠকই বাতিল করে দেন সৌদির রাজপুত্র।

<p><strong>সৌদি মুখি ফিরিয়ে নেওয়ায়  চিনের দ্বারস্থ হয়েছিলেন পাকিস্তানের বিদেশমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি। সোজা দৌড়েছিলেন চিনে। এরপরই ইসলামাবাদের পাশে দাঁড়িয়ে পাকিস্তানকে ‘ভাল ভাই’ বলে বিবৃতি দিয়েছিলেন চিনের রাষ্ট্রপতি শি জিনপিং।</strong></p>

সৌদি মুখি ফিরিয়ে নেওয়ায়  চিনের দ্বারস্থ হয়েছিলেন পাকিস্তানের বিদেশমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি। সোজা দৌড়েছিলেন চিনে। এরপরই ইসলামাবাদের পাশে দাঁড়িয়ে পাকিস্তানকে ‘ভাল ভাই’ বলে বিবৃতি দিয়েছিলেন চিনের রাষ্ট্রপতি শি জিনপিং।

<p><strong>তার ফল এবার হাতেনাতে পেল বেজিং। তাদের সঙ্গে থাকা ১০ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের তেল সংশোধনাগার তৈরির চুক্তি বাতিল করল সৌদি আরব।</strong></p>

তার ফল এবার হাতেনাতে পেল বেজিং। তাদের সঙ্গে থাকা ১০ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের তেল সংশোধনাগার তৈরির চুক্তি বাতিল করল সৌদি আরব।

<p><strong>সৌদি আরবের তাবড় তেল কম্পানি অ্যারামকোর সঙ্গে চিনের ১০ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের চুক্তি হয়েছিল আগেই। সেই চুক্তিকে এবার বাতিল করল সৌদি আরব। কথা ছিল, সৌদির তেল কম্পানি অ্যারামকো একটি পরিশোধনাগার ও একটি পেট্রোক্যামিকেল কম্প্লেক্স চিনে গড়ে তুলবে। তার জন্যই প্রস্তুতি চলছিল। তবে সৌদির পদক্ষেপে তা ভেস্তে গেল।</strong></p>

সৌদি আরবের তাবড় তেল কম্পানি অ্যারামকোর সঙ্গে চিনের ১০ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের চুক্তি হয়েছিল আগেই। সেই চুক্তিকে এবার বাতিল করল সৌদি আরব। কথা ছিল, সৌদির তেল কম্পানি অ্যারামকো একটি পরিশোধনাগার ও একটি পেট্রোক্যামিকেল কম্প্লেক্স চিনে গড়ে তুলবে। তার জন্যই প্রস্তুতি চলছিল। তবে সৌদির পদক্ষেপে তা ভেস্তে গেল।

<p><strong>আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে, সৌদি আরবের সবথেকে বড় তেল কোম্পানি আরামকো চিনের উত্তর-পূর্ব প্রান্তে অবস্থিত লিয়নিং  প্রদেশে একটি তেল পরিশোধনাগার ও পেট্রোকেমিক্যাল কমপ্লেক্স তৈরি করার পরিকল্পনা নিয়েছিল। এই জন্য চিন নর্থ ইন্ডাস্ট্রিজ গ্রুপ কর্পোরেশন ও অন্য একটি কোম্পানির সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধে ১০ লক্ষ মার্কিন ডলারের চুক্তিও করেছিল। সেই অনুযায়ী শুরু হয়ে গিয়েছিল কাজও। আচমকা সেই চুক্তি বাতিল করে দিল সৌদি আরব সরকারের নিয়ন্ত্রণাধীন আরামকো তেল কোম্পানি কর্তৃপক্ষ।</strong></p>

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে, সৌদি আরবের সবথেকে বড় তেল কোম্পানি আরামকো চিনের উত্তর-পূর্ব প্রান্তে অবস্থিত লিয়নিং  প্রদেশে একটি তেল পরিশোধনাগার ও পেট্রোকেমিক্যাল কমপ্লেক্স তৈরি করার পরিকল্পনা নিয়েছিল। এই জন্য চিন নর্থ ইন্ডাস্ট্রিজ গ্রুপ কর্পোরেশন ও অন্য একটি কোম্পানির সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধে ১০ লক্ষ মার্কিন ডলারের চুক্তিও করেছিল। সেই অনুযায়ী শুরু হয়ে গিয়েছিল কাজও। আচমকা সেই চুক্তি বাতিল করে দিল সৌদি আরব সরকারের নিয়ন্ত্রণাধীন আরামকো তেল কোম্পানি কর্তৃপক্ষ।

<p><strong>সৌদির পদক্ষেপে চিনের ব্যবসায়িক দিকে যে ধাক্কা লেগেছে তা বলাই বাহুল্য।</strong></p>

সৌদির পদক্ষেপে চিনের ব্যবসায়িক দিকে যে ধাক্কা লেগেছে তা বলাই বাহুল্য।

<p><strong>যদিও এপ্রসঙ্গে ওই সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, করোনা ভাইরাসের কারণে বিশ্বজুড়ে কমেছে তেলের চাহিদা। তাই বাধ্য হয়ে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করা হবে।</strong></p>

যদিও এপ্রসঙ্গে ওই সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, করোনা ভাইরাসের কারণে বিশ্বজুড়ে কমেছে তেলের চাহিদা। তাই বাধ্য হয়ে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করা হবে।

loader