15

 

গাদিয়ারা থেকে মাত্র ২৩ কিমি দূরেই গড়চুমুক। নদীর কোল ঘেষে শহর থেকে সরে এসে বেশ ভালই লাগবে। পাখিদের কিচিরমিচিরে ভরা গড়চুমুক পর্যটন কেন্দ্র ও গড়চুমুক ইকোটুরিজমে গেলে পয়সা উসুল। এখানে আপনি প্রচুর হরিণ দেখতে পাবেন।

Subscribe to get breaking news alerts

25

 

গড়চুমুকে গেলে গাদিয়ারা ও গেঁওখালি যাবেন না, তা কি হয়। আসলে গাদিয়ারা ও গেঁওখালি দুই যমজ নদী। এখানেও ভীড় পাবেন না। সপ্তাহান্তে নিজেদের  অন্যভাবে ফিরে পেতে কাপল কিংবা পরিবারের ঘোরার জন্য অনবদ্য। এটিও কলকাতা থেকে মোটেই দূরে নয়। 

35

কলকাতার কাছে মা ভবতারিণীর মন্দির-দক্ষিণেশ্বরে গেলে মন ছুয়ে যাবে। আপনি এখানে গিয়ে সন্ধা-আরতি সেরে গঙ্গা নদী পথে ওপারে বেলুড়ের শোভা নিতে পারেন। রামকৃষ্ণ-বিবেকানন্দের ছোঁওয়ার অন্য এক আধ্যাত্মিক অনুভূতি হবে। 

45

আলোর শহর চন্দন নগর। এখানের  জগদ্ধাত্রী পুজো জগৎ বিখ্যাত। এখানের লাইটিং দেখার জন্য দূর থেকে মানুষ আসে। পাশাপাশি এখানে পর্তুগীজ কলোনীও এখানে অন্যতম আকর্ষণ। চার্চ, স্ট্র্য়ান্ডে ঘুরে নদীর হাওয়া গায়ে লাগিয়ে মন ফ্রেশ হয়ে যাবে।

55

কলকাতার কাছেই ঘুরে আসতে পারেন ২ দিনের জন্য বাঁকুড়ার বড়দি পাহাড়। শীত পড়লে এই জায়গাটা আরও সুন্দর হয়ে ওঠে। সুতরাং চটপট ব্য়াগ গুছিয়ে বেরিয়ে পড়ুন বড়দি পাহাড়ে রাত কাটাতে।