পুজোর আগেও আগুনে আকাশ, প্রবল বর্ষায় কাবু হতে পারে কারা কারা, দেখুন ছবি

First Published 13, Sep 2020, 6:11 PM


রবিবার শহর ও শহরতলি আকাশ সারাদিনই কম-বেশী মেঘলা ছিল, তবে সূর্যাস্তের সময় কলকাতার আকাশে ছড়িয়ে আগুনে লাভার রঙ। রাজ্য়ে ইতিমধ্যেই একাধিক জায়গায় বৃষ্টির পরিমাণ বেড়েছে। দিনভর কমবেশি কোথাও যাচ্ছে না বাদ। জল জমার আশঙ্কায় রয়েছে দক্ষিণ কলকাতা সহ উত্তর-দক্ষিণ দুই বঙ্গেরই বাসিন্দারা। এবং রবিবারই নিম্নচাপ সক্রিয় হতে পারে বলে সম্ভবনার কথা জানোন হয়েছিল।  বৃষ্টি নিয়ে এইমুহূর্তে কী বলছে হাওয়া অফিস, এবার জেনে নেওয়া যাক।

<p>রবিবার শহর ও শহরতলি আকাশ সারাদিনই কম-বেশী মেঘলা ছিল, তবে সূর্যাস্তের সময় কলকাতার আকাশে ছড়িয়ে আগুনে লাভার রঙ। রাজ্য়ে ইতিমধ্যেই একাধিক জায়গায় বৃষ্টির পরিমাণ বেড়েছে। আবহাওয়া সূত্রে খবর, &nbsp;বঙ্গোপসাগরে নতুন করে তৈরি হতে পারে নিম্নচাপ। তবে রবিবারের পর থেকেই পরিস্থিতি বদলাবে। অন্ধ্রপ্রদেশের উপকূল বরাবর এই নিম্নচাপ তৈরি হবে অনুমান আবহবিদদের।&nbsp;<br />
&nbsp;</p>

রবিবার শহর ও শহরতলি আকাশ সারাদিনই কম-বেশী মেঘলা ছিল, তবে সূর্যাস্তের সময় কলকাতার আকাশে ছড়িয়ে আগুনে লাভার রঙ। রাজ্য়ে ইতিমধ্যেই একাধিক জায়গায় বৃষ্টির পরিমাণ বেড়েছে। আবহাওয়া সূত্রে খবর,  বঙ্গোপসাগরে নতুন করে তৈরি হতে পারে নিম্নচাপ। তবে রবিবারের পর থেকেই পরিস্থিতি বদলাবে। অন্ধ্রপ্রদেশের উপকূল বরাবর এই নিম্নচাপ তৈরি হবে অনুমান আবহবিদদের। 
 

<p><br />
উত্তরবঙ্গে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস এবং দক্ষিণবঙ্গের ৪ জেলায় ভারী বৃষ্টিপাত হবে জানাল হাওয়া অফিস।হাওয়া অফিস জানাচ্ছে, রবিবার পর্যন্ত ভারী বৃষ্টি হবে উত্তরবঙ্গে আর দক্ষিণবঙ্গেও বজ্রবিদ্যুৎ-সহ বৃষ্টি চলবে। হাওয়া অফিস জানিয়েছে, দক্ষিণবঙ্গে বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি হলেও উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।&nbsp;</p>


উত্তরবঙ্গে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস এবং দক্ষিণবঙ্গের ৪ জেলায় ভারী বৃষ্টিপাত হবে জানাল হাওয়া অফিস।হাওয়া অফিস জানাচ্ছে, রবিবার পর্যন্ত ভারী বৃষ্টি হবে উত্তরবঙ্গে আর দক্ষিণবঙ্গেও বজ্রবিদ্যুৎ-সহ বৃষ্টি চলবে। হাওয়া অফিস জানিয়েছে, দক্ষিণবঙ্গে বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি হলেও উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। 

<p><br />
কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টি চলবে রবিবার পর্যন্ত। বজ্রবিদ্যুৎ সহ হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনা। দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় বজ্রপাতের আশঙ্কা। উত্তরবঙ্গে পার্বত্য এলাকায় ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস।</p>


কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টি চলবে রবিবার পর্যন্ত। বজ্রবিদ্যুৎ সহ হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনা। দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় বজ্রপাতের আশঙ্কা। উত্তরবঙ্গে পার্বত্য এলাকায় ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস।

<p>&nbsp;উত্তরবঙ্গের দার্জিলিং, কালিম্পং, আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার, জলপাইগুড়ি। এই পাঁচ জেলায় রবিবার পর্যন্ত ভারী বৃষ্টিতে হলু সতর্কতা জারি। বিক্ষিপ্তভাবে ভারী বৃষ্টি হবে এই পাঁচ জেলাতে।&nbsp;</p>

 উত্তরবঙ্গের দার্জিলিং, কালিম্পং, আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার, জলপাইগুড়ি। এই পাঁচ জেলায় রবিবার পর্যন্ত ভারী বৃষ্টিতে হলু সতর্কতা জারি। বিক্ষিপ্তভাবে ভারী বৃষ্টি হবে এই পাঁচ জেলাতে। 

<p><br />
মালদা ও উত্তর দক্ষিণ দিনাজপুরের বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির পূর্বাভাস। বাতাসে জলীয় বাষ্প বেশি থাকায় আর্দ্রতা জনিত অস্বস্তি থাকবে। দু-এক পশলা বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির সর্তকতা। &nbsp;মৌসুমী অক্ষ রেখার অবস্থান দক্ষিণবঙ্গে। পুরুলিয়া, খড়গপুর এর ওপর দিয়ে দক্ষিণ-পূর্ব দিকে অগ্রসর হয়ে মৌসুমী অক্ষরেখা উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত। &nbsp;</p>


মালদা ও উত্তর দক্ষিণ দিনাজপুরের বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির পূর্বাভাস। বাতাসে জলীয় বাষ্প বেশি থাকায় আর্দ্রতা জনিত অস্বস্তি থাকবে। দু-এক পশলা বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির সর্তকতা।  মৌসুমী অক্ষ রেখার অবস্থান দক্ষিণবঙ্গে। পুরুলিয়া, খড়গপুর এর ওপর দিয়ে দক্ষিণ-পূর্ব দিকে অগ্রসর হয়ে মৌসুমী অক্ষরেখা উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত।  

<p><br />
এদিকে রবিবার ছিল দুপুরে রাজ্য়ে ছিল সর্বোভারতীয় মেডিকেল প্রবেশিকা পরীক্ষা নিট। আর রবিবার তেমনই ছিল গরম। যার জেরে হাঁসফাঁস অবস্থা ছাত্র-ছাত্রীদের।&nbsp; হাওয়া অফিস সূত্রে খবর, রবিবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা &nbsp;৩৫.০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। স্বাভাবিকের ৩ ডিগ্রি উপরে। &nbsp;সর্বনিম্ন তাপমাত্রা &nbsp;২৭.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। &nbsp;স্বাভাবিকের ১ ডিগ্রি উপরে। আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ- সর্বাধিক &nbsp;৯১ শতাংশ এবং ন্যুনতম ৬৫ শতাংশ। রবিবার এই মুহূর্তে বিকেল ৫টা ৪০ মিনিটে শহরের তাপমাত্রা ৩৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস।&nbsp;<br />
&nbsp;</p>


এদিকে রবিবার ছিল দুপুরে রাজ্য়ে ছিল সর্বোভারতীয় মেডিকেল প্রবেশিকা পরীক্ষা নিট। আর রবিবার তেমনই ছিল গরম। যার জেরে হাঁসফাঁস অবস্থা ছাত্র-ছাত্রীদের।  হাওয়া অফিস সূত্রে খবর, রবিবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা  ৩৫.০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। স্বাভাবিকের ৩ ডিগ্রি উপরে।  সর্বনিম্ন তাপমাত্রা  ২৭.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।  স্বাভাবিকের ১ ডিগ্রি উপরে। আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ- সর্বাধিক  ৯১ শতাংশ এবং ন্যুনতম ৬৫ শতাংশ। রবিবার এই মুহূর্তে বিকেল ৫টা ৪০ মিনিটে শহরের তাপমাত্রা ৩৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। 
 

loader