15

এলাকায় মদের দোকান নিয়ে দীর্ঘদিনের অভিযোগ ছিল গ্রামবাসীদের। মদ্যপদের দৌরাত্ম্য বেড়ে যাওয়ায় নানা সমাজবিরোধী কাজকর্ম বাড়ছিল বলেও অভিযোগ। লাইসেন্স প্রাপ্ত মদের দোকানের বিরোধিতা একজোট গ্রামবাসীরা।

Subscribe to get breaking news alerts

25

বিশেষ করে মদ্যপদের তাণ্ডবে ওই এলাকায় মহিলাদের নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করে। প্রতিবাদে মদ বিরোধী নাগরিক কমিটি গঠব করেন গ্রামবাসীরা।

35


লাইসেন্স মদ দোকানের বিরোধিতায় গণ স্বাক্ষর করেন গ্রামবাসীরা। সোমবার মারিশদা থানার ওসি ও বিডিওর কাছে ডেপুটেশন দিতে যাওয়ার কর্মসূচি নেন তাঁরা। সেই সময় কয়েকজন দুষ্কৃতী তাঁদের উপর হামলা চালায় বলে অভিযোগ। 

45

এরপরই ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন গ্রামবাসীরা। সাত থেকে আটটি গ্রামের বাসিন্দারা একজোট হয়ে ওই মদের দোকানে ভাঙচুর চালায়। প্রতিবাদে সবচেয়ে আগে সামিল হন মহিলারা।  দুষ্কৃতীরা বিপদ বুঝে পালানোর চেষ্টা করলে তাঁদেরকে তাড়া করেন গ্রামবাসীরা। 

55

দফায় দফায় বিক্ষোভের জেরে উত্তেজনা ছড়ায় মারিশদা থানার দেবেন্দ্র ও ভাজাচাউলি এলাকা। ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌঁছে পরিস্থিতি আনে। এলাকায় মদের দোকান বন্ধের আশ্বাস দেয় পুলিশ ও রাজনৈতিক নেতারা।