বিজেপির লক্ষ্য বিধানসভা নির্বাচন, শিলিগুড়িতে শাসক দলকে কড়া হুঁশিয়ারি জেপি নাড্ডার

First Published 20, Oct 2020, 12:58 AM

লক্ষ্য বিধানসভা নির্বাচন। ২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনের পর উত্তরবঙ্গকে পাখির চোখ করেছে বিজেপি।রবিবার  শিলিগুড়িতে সাংগঠনিক বৈঠক করলেন বিজেপির সর্ব ভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা। দলের সবস্তরের নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করলেন তিনি। বিজেপির বিভিন্ন জাতি গোষ্ঠীর সদস্যদের সঙ্গে বৈঠক করেন। রাজ্যের বর্তমান শাসকদল দুর্নীতিগ্রস্ত, রাজ্য জুড়ে হিংসার বাতাবরণ তৈরি করেছে। সাধারণ মানুষের কাছে এই বার্তা পৌঁছানোর বার্তা দিলেন বিজেপি সভাপতি। পাশাপাশি, তৃণমূল সরকারকে রাজ্য থেকে উৎখাত করার বার্তা দিলেন জেপি নাড্ডা। 

<p>উত্তরবঙ্গ ৮ লোকসভা কেন্দ্রে ভাল ফল করেছিল বিজেপি। লোকসভা ভোটের সময় নির্বাচনের দায়িত্বে ছিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা। এবার লক্ষ একুশের বিধানসভা নির্বাচন। রবিবার উত্তরবঙ্গের সাংগঠনিক শক্তি বৃদ্ধিতে শিলিগুড়িতে নেতা কর্মীদের সঙ্গে বৈঠক করলেন জেপি নাড্ডা।<br />
&nbsp;</p>

উত্তরবঙ্গ ৮ লোকসভা কেন্দ্রে ভাল ফল করেছিল বিজেপি। লোকসভা ভোটের সময় নির্বাচনের দায়িত্বে ছিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা। এবার লক্ষ একুশের বিধানসভা নির্বাচন। রবিবার উত্তরবঙ্গের সাংগঠনিক শক্তি বৃদ্ধিতে শিলিগুড়িতে নেতা কর্মীদের সঙ্গে বৈঠক করলেন জেপি নাড্ডা।
 

<p style="text-align: justify;">শিলিগুড়ি বিমানবন্দর থেকে জেপি নাড্ডাকে সাদর অভ্যর্থনা জানান বিজেপি কর্মী সমর্থকরা। সেখানে পৌঁছেই পঞ্চানন বর্মার মূর্তিতে মাল্যদান করেন জেপি নাড্ডা। তাঁর মূর্তিতে মালা দিয়ে পঞ্চানন বর্মার প্রতি শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি। শিলিগুড়ির নৌকাঘাট চত্বরে পঞ্চানন মূর্তিতে মাল্যদান করেন তিনি।</p>

শিলিগুড়ি বিমানবন্দর থেকে জেপি নাড্ডাকে সাদর অভ্যর্থনা জানান বিজেপি কর্মী সমর্থকরা। সেখানে পৌঁছেই পঞ্চানন বর্মার মূর্তিতে মাল্যদান করেন জেপি নাড্ডা। তাঁর মূর্তিতে মালা দিয়ে পঞ্চানন বর্মার প্রতি শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি। শিলিগুড়ির নৌকাঘাট চত্বরে পঞ্চানন মূর্তিতে মাল্যদান করেন তিনি।

<p style="text-align: justify;"><br />
এরপর শিলিগুড়ির সেবক রোডে বিজেপি কর্মী সমর্থকদের সঙ্গে রুদ্ধদ্বার বৈঠক করেন বিজেপি সভাপতি। বিজেপি জাতিগোষ্ঠী নেতাদের সঙ্গে দলীয় সংগঠন নিয়ে আলোচনা করেন তিনি। নেতা কর্মীদের উদ্দেশ্যে তাঁর বার্তা, আমি পশ্চিমবঙ্গবাসীর অনুভব বুঝতে পারি। প্রতি জাতি গোষ্ঠীর পাশে থাকবে ভারতীয় জনতা পার্টি।</p>


এরপর শিলিগুড়ির সেবক রোডে বিজেপি কর্মী সমর্থকদের সঙ্গে রুদ্ধদ্বার বৈঠক করেন বিজেপি সভাপতি। বিজেপি জাতিগোষ্ঠী নেতাদের সঙ্গে দলীয় সংগঠন নিয়ে আলোচনা করেন তিনি। নেতা কর্মীদের উদ্দেশ্যে তাঁর বার্তা, আমি পশ্চিমবঙ্গবাসীর অনুভব বুঝতে পারি। প্রতি জাতি গোষ্ঠীর পাশে থাকবে ভারতীয় জনতা পার্টি।

<p style="text-align: justify;">নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি আরও বলেন, বাংলাবাসীর সব ইচ্ছা পুরন করবে বিজেপি। সব ধরনের সমস্যার সামাধান করবে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে বিজেপিকে ভোট দেবেন রাজ্যবাসী। সব কা সাথ, সব কা বিশ্বাস, সব বিশ্বাস।&nbsp;</p>

নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি আরও বলেন, বাংলাবাসীর সব ইচ্ছা পুরন করবে বিজেপি। সব ধরনের সমস্যার সামাধান করবে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে বিজেপিকে ভোট দেবেন রাজ্যবাসী। সব কা সাথ, সব কা বিশ্বাস, সব বিশ্বাস। 

<p style="text-align: justify;">অন্যদিকে, রাজ্যের আইন-শঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়েও তৃণমূল সরকারকে বিঁধলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি। রাজ্যের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি অবনতী হয়েছে বলে অভিযোগ করেন জেপি নাড্ডা।&nbsp;</p>

অন্যদিকে, রাজ্যের আইন-শঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়েও তৃণমূল সরকারকে বিঁধলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি। রাজ্যের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি অবনতী হয়েছে বলে অভিযোগ করেন জেপি নাড্ডা। 

<p style="text-align: justify;">নাড্ডার অভিযোগ, ডিভাইডেড এন্ড রুল পলিসি নিয়েছে রাজ্য সরকার। বঙ্গবাসী জানে কাকে বিশ্বাস করা যায়। আর কাকে বিশ্বাস করা যায় না। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে বাংলায় প্রত্যেকটি নাগরিকের অধিকার সুরক্ষিত করবে বিজেপি।&nbsp;</p>

নাড্ডার অভিযোগ, ডিভাইডেড এন্ড রুল পলিসি নিয়েছে রাজ্য সরকার। বঙ্গবাসী জানে কাকে বিশ্বাস করা যায়। আর কাকে বিশ্বাস করা যায় না। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে বাংলায় প্রত্যেকটি নাগরিকের অধিকার সুরক্ষিত করবে বিজেপি। 

<p style="text-align: justify;">নাড্ডা বলেন, একে অপরের পাশে থাকা হল বিজেপির মতাদর্শ। কিন্তু, নিজেদের ভোট ব্যাঙ্কের স্বার্থে বাংলার ভেদাভেদের রাজনীতি করছে তৃণমূল সরকার। অন্যদিকে, বিজেপি সমাজের প্রত্যেকটি স্তরের মানুষের সঙ্গে কাজ করছে।</p>

নাড্ডা বলেন, একে অপরের পাশে থাকা হল বিজেপির মতাদর্শ। কিন্তু, নিজেদের ভোট ব্যাঙ্কের স্বার্থে বাংলার ভেদাভেদের রাজনীতি করছে তৃণমূল সরকার। অন্যদিকে, বিজেপি সমাজের প্রত্যেকটি স্তরের মানুষের সঙ্গে কাজ করছে।

<p style="text-align: justify;">আগামী বিধানসভা নির্বাচনে বাংলার বর্তমান সরকারকে উৎখাত করাই হল বঙ্গবাসীর প্রতি বিজেপির দায়িত্ব। আমি আপনাদের নিশ্চিত করছি, আগামী কয়েক মাসের মধ্যে বাংলায় সরকার গড়বে বিজেপি। নেতা-কর্মীদের বললেন জে পি নাড্ডা।</p>

আগামী বিধানসভা নির্বাচনে বাংলার বর্তমান সরকারকে উৎখাত করাই হল বঙ্গবাসীর প্রতি বিজেপির দায়িত্ব। আমি আপনাদের নিশ্চিত করছি, আগামী কয়েক মাসের মধ্যে বাংলায় সরকার গড়বে বিজেপি। নেতা-কর্মীদের বললেন জে পি নাড্ডা।

<p>আগামী বিধানসভা নির্বাচনে বাংলার বর্তমান সরকারকে উৎখাত করাই হল বঙ্গবাসীর প্রতি বিজেপির দায়িত্ব। আমি আপনাদের নিশ্চিত করছি, আগামী কয়েক মাসের মধ্যে বাংলায় সরকার গড়বে বিজেপি। নেতা-কর্মীদের বললেন জে পি নাড্ডা।</p>

আগামী বিধানসভা নির্বাচনে বাংলার বর্তমান সরকারকে উৎখাত করাই হল বঙ্গবাসীর প্রতি বিজেপির দায়িত্ব। আমি আপনাদের নিশ্চিত করছি, আগামী কয়েক মাসের মধ্যে বাংলায় সরকার গড়বে বিজেপি। নেতা-কর্মীদের বললেন জে পি নাড্ডা।

<p>করোনা আবহে কেন্দ্রের স্বাস্থ্য বিমা নিয়েও মমতাকে কটাক্ষ করেন জেপি নাড্ডা। বলেন, বার্ষিক পাঁচ লক্ষ টাকার স্বাস্থবিমা বাংলায় কার্যকর করেনি তৃণমূল সরকার। আপনারা যদি বিজেপি ক্ষমতায় আনেন তা হলে এই রাজ্যে সবার জন্য স্বাস্থ্য বিমা চালু করবে বিজেপি।</p>

করোনা আবহে কেন্দ্রের স্বাস্থ্য বিমা নিয়েও মমতাকে কটাক্ষ করেন জেপি নাড্ডা। বলেন, বার্ষিক পাঁচ লক্ষ টাকার স্বাস্থবিমা বাংলায় কার্যকর করেনি তৃণমূল সরকার। আপনারা যদি বিজেপি ক্ষমতায় আনেন তা হলে এই রাজ্যে সবার জন্য স্বাস্থ্য বিমা চালু করবে বিজেপি।