বাজি কারখানায় আচমকা বিস্ফোরণ, উড়ল বাড়ির ছাদ

First Published 28, Sep 2020, 8:10 PM

বাজি কারখানায় ভয়াবহ বিস্ফোরণের জেরে আতঙ্ক ছড়াল এলাকায়। বিস্ফোরণের তীব্রতা এতটাই বেশি ছিল যে, বাজি কারখানার চাল উড়ে যায়। দুমড়ে মুচড়ে যায় পাশে রাখা টিন। ওই কারখানায় আতজবাজি তৈকি হত বলে দাবি স্থানীয় বাসিন্দাদের। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে বারুইপুর থানার পুলিশ।    

<p>মাঝরাতে তীব্র বিস্ফোরণে কেঁপে উঠল বারুইপুর। বাজি কারখানায় বিস্ফোরণের জেরে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়।&nbsp;</p>

মাঝরাতে তীব্র বিস্ফোরণে কেঁপে উঠল বারুইপুর। বাজি কারখানায় বিস্ফোরণের জেরে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। 

<p><br />
বিস্ফোরণের তীব্রতা এতটাই বেশি ছিল যে, অ্যাসবেটরের তৈরির ওই কারখানার &nbsp;চাল উড়ে যায়। একই সঙ্গে আগুন ধরে যায় ওই কারখানায়। স্থানীয় বাসিন্দারা নিজেরাই আগুন লাগানোর চেষ্টা করেন।</p>


বিস্ফোরণের তীব্রতা এতটাই বেশি ছিল যে, অ্যাসবেটরের তৈরির ওই কারখানার  চাল উড়ে যায়। একই সঙ্গে আগুন ধরে যায় ওই কারখানায়। স্থানীয় বাসিন্দারা নিজেরাই আগুন লাগানোর চেষ্টা করেন।

<p>রবিবার মাঝরাতে বারুইপুরের চম্পাহাটির হাড়াল এলাকায় বাজি কারখানায় তীব্র বিস্ফোরণ হয়। রাতের সময় আচমকা বিকট শুব্দ শুনে ছুটে আসেন আশেপাশের বাসিন্দারা।&nbsp;</p>

রবিবার মাঝরাতে বারুইপুরের চম্পাহাটির হাড়াল এলাকায় বাজি কারখানায় তীব্র বিস্ফোরণ হয়। রাতের সময় আচমকা বিকট শুব্দ শুনে ছুটে আসেন আশেপাশের বাসিন্দারা। 

<p>বিস্ফোরণের জেরে ওই কারখানার ছাদ উড়ে গিয়েছে। পাশে থাকা টিন গুলিও দমুড়ে মুচড়ে যায়। কারখানার ভিতরেও আগুন লেগে যায়।&nbsp;<br />
&nbsp;</p>

বিস্ফোরণের জেরে ওই কারখানার ছাদ উড়ে গিয়েছে। পাশে থাকা টিন গুলিও দমুড়ে মুচড়ে যায়। কারখানার ভিতরেও আগুন লেগে যায়। 
 

<p>প্রতিবেশীরা জানান, আতসবাজি তৈরি হত ওই বাজি কারখানায়। তবে বেআইনি বাজি সেখানে তৈরি হত বলে তাঁদের দাবি। ওই এলাকায় আরও অনেক বাজি তৈরির কারখানা রয়েছে।&nbsp;</p>

প্রতিবেশীরা জানান, আতসবাজি তৈরি হত ওই বাজি কারখানায়। তবে বেআইনি বাজি সেখানে তৈরি হত বলে তাঁদের দাবি। ওই এলাকায় আরও অনেক বাজি তৈরির কারখানা রয়েছে। 

<p>ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে বারুইপুর থানার পুলিশ। ওই বাজি কারখানায় বৈধ অনুমতি ছিল কিনা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।<br />
&nbsp;</p>

ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে বারুইপুর থানার পুলিশ। ওই বাজি কারখানায় বৈধ অনুমতি ছিল কিনা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।
 

loader