লকডাউনে রণক্ষেত্র হাওড়া। টিকিয়াপাড়ার বেলিলিয়াস রোডে ভিড় সরাতে গিয়ে আক্রান্ত হলেন পুলিশকর্মীরাই। ঘটনার নেপথ্যে কারা? নয়া জল্পনা উস্কে দিলেন খোদ রাজ্যের মন্ত্রী অরূপ রায়। তিনি আবার মধ্য হাওড়া বিধানসভাকেন্দ্রের বিধায়কও বটে। মন্ত্রীর দাবি, পুলিশকর্মী ও ব়্যাফের উপর পরিকল্পনামাফিকই হামলা চালানো হয়েছে। 

ঘটনার সূত্রপাত মঙ্গলবার বিকেলে। লকডাউন উপেক্ষা করে আচমকাই রাস্তায় বেরিয়ে পড়েন প্রচুর মানুষ। রীতিমতো ভিড় জমে যায় টিকিয়াপাড়ার বেলিলিয়াস রোডে। পুলিশ যখন ভিড় সরাতে যায়, তখনই পরিস্থিতি অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে। জনরোষের মুখে পড়েন পুলিশকর্মীরা। তাঁদের লক্ষ্য করে শুরু হয় ইঁটবৃষ্টি, ছোঁড়া হয় বোতলও। গুরুতর আহত হন দু'জন। ভাঙচুর চলে পুলিশের দুটি গাড়িতেও। ঘটনায় শোরগোল পড়ে গিয়েছে প্রশাসনিক মহলে। মঙ্গলবার রাতেই অপসারিত হন হাওড়ার পুর কমিশনার বিজিন কৃষ্ণা। আপাতত পুর কমিশনারের দায়িত্ব সামলাবেন অতিরিক্ত জেলাশাসক ধবল জৈন।

কিন্তু এমন ঘটনা ঘটল? সমবায়মন্ত্রী অরূপ রায়ের ব্যাখ্যা, স্থানীয় কয়েকজন যুবকের উস্কানিতেই পুলিশকর্মীদের উপর হামলা চালিয়েছে উন্মত্ত জনতা। রেহাই পায়নি ব়্যাফ। পুলিশকে ঘটনাটি খতিয়ে দেখার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।  এদিকে আবার মঙ্গলবার রাতে টুইট করে দোষীদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার বার্তা দিয়েছে রাজ্য পুলিশ।