রঙের উৎসব থেকে মুছে গেল সব রঙ। কয়েক মুহূর্তে আনন্দ বদলে গেল বিষাদে। সোমবার দুপুরে দোল উৎসব উপলক্ষে এক অনুষ্ঠানে যোগ দিতে আসার পথে, নৌকাডুবি-র মুখে পড়লেন কলকাতার একটি নৃত্য অ্যাকাডেমির সদস্যরা। রাত পর্যন্ত নিখোঁজ কলকাতার টালিগঞ্জ এলাকার এক তরুনী।

বলে জানা গিয়েছে, ১৯ বছরের প্রতিশ্রুতিমান ওই তরুণীর নাম প্রিয়ঙ্কা পাইক। সে কলকাতারই এক নৃত্য অ্যাকাডেমির সদস্য। সোমবার হাওড়া জেলার বাউড়িয়ায় ওই অ্য়াকাডেমির একটি অনুষ্ঠান ছিল। সেই উপলক্ষ্যেই প্রিয়াঙ্কা-সহ ওই অ্যাকাডেমির ৯ সদস্য এদিন দুপুরে দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার বজবজ কালীবাড়ি ঘাট একটি নৌকা ভাড়া করে বাউড়িয়ার উদ্দেশে রওনা হয়েছিলেন। হুগলী নদীর বুকেই দুর্ঘটনাটি ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে সোমবার দোল যাত্রা উপলক্ষে যাত্রী পরিবহনের জন্য লঞ্চ পরিষেবা বন্ধ ছিল। তার পরেও বেআইনি ভাবে কিছু নৌকা চলাচল করছিল। তারই একটিতে উঠেছিলেন কলকাতার নয় জনের ওই ডান্স গ্রুপটি। মাঝ নদীতে আচমকা নৌকাটি উল্টে যায়। ঘটনার পরই স্থানীয় বাসিন্দারা যাত্রীদের উদ্ধারের জন্য ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন। তাঁরা দ্রুত বেশ কয়েকটি নৌকা নিয়ে দুর্ঘটনাস্থলে পৌঁছে গিয়েছিলেন। খবর দেওয়া হয় স্থানীয় থানায়। খবর যায় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর কাছেও।

পুলিশ, বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর সদস্যরা এবং স্থানীয়দের প্রচেষ্টায় মাঝি ও আটজনকে উদ্ধার করা হয়। তাদের চিকিৎসার জন্য বাউড়িয়া স্টেট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু, রাত পর্যন্ত খোঁজাখুঁজি করেও ওই তরুণীকে কোথাও পাওয়া যায়নি। তার সন্ধান চালাচ্ছে পুলিশ ও বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী। পারে ভিড় রয়েছে স্থানীয়দেরও। নৌকার মাঝিকে পুলিশ আটক করেছে।

এদিন সকালে ডান্স গ্রুপের বাকিদের সঙ্গে একপ্রস্থ রং-ও খেলেছিলেন প্রিয়ঙ্কা। সেই ছবিও দেন সোশ্য়াল মিডিয়ায়। কিন্তু, কয়েক মুহুর্তেই এদিক ওদিকেই সেই রঙ মুছে যাওয়ার উপক্রম।