বিশ্বনাথ দাস, হাওড়া: মানসিক অবসাদ তো ছিলই, করোনা আবহে উদ্বেগ কি আরও বেড়ে গিয়েছিল? অসুস্থ স্ত্রীকে 'খুন' করে আত্মহত্যা করলেন এক বৃদ্ধ। মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে হাওড়ার সালকিয়ায়। 

আরও পড়ুন: পাখির চোখ একুশের বিধানসভা, ঘাসফুল-গেরুয়া শিবিরে তুমুল প্রতিযোগিতা

জানা গিয়েছে, সালকিয়ার গোপাল মিস্ত্রি লেনে বাসিন্দা ধনঞ্জয় দাস। পেশায় তিনি ফুল ব্যবসায়ী। স্থানীয় হরগঞ্জ বাজারে দোকান চালাতেন বছর আশির ওই বৃদ্ধ। ছেলে ও স্ত্রী নিয়ে ভরা সংসার। কিন্তু ঘটনা হল, বারো বছর ধরে পক্ষাঘাতে শয্যাশায়ী স্ত্রী বাসন্তী। নিজের হাতে তাঁর সেবা শুশ্রুয়া করতেন ধনঞ্জয়বাবু। বুধবার রাতে ছেলে তাপস যখন অফিসে থেকে ফেরেন, তখন দেখেন বাবা-মা-এর ঘরের দরজা বন্ধ। ঘরের ভিতর আলোও জ্বলছে না। কী ব্যাপার? মৃত দম্পতির ছেলের দাবি,  ঘরের দরজা খুলে দেখেন, ঘরের সিলিং থেকে গলা ফাঁস দিয়ে ঝুলছেন ধনঞ্জয়বাবু, আর বিছানায় মৃত অবস্থায় পড়েছেন তাঁর স্ত্রী!  এরপর তিনি পরিবারের অন্য সদস্য়দের খবর দেন। ঘটনাটি জানাজানি হতেই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়।

আরও পড়ুন: দীঘায় ভয়ঙ্কর জলচ্ছাস, লকডাউনেও ভিড় পর্যটকদের

ঘর থেকে দেহ দুটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে স্থানীয় মালিপাঁচঘরা থানার পুলিশ। ঘটনাস্থল থেকে একটি সুইসাইড নোটও পাওয়া গিয়েছে। অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করে শুরু করে তদন্ত। তদন্তকারীদের অনুমান, স্ত্রীর অসুস্থতার কারণে মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন ধনঞ্জয়বাবু। তার উপর করোনা পরিস্থিতি আরও আতঙ্কিত হয়ে পড়েছিলেন তিনি। তারজেরে এমন মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেছে। ওই বৃদ্ধ যে মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন, সেকথা স্বীকার করে নিয়েছেন পরিবারের লোকেরাও।