ফের করোনা আক্রান্ত হলেন স্বাস্থ্যকর্মী। উলুবেড়িয়া মহকুমা হাসপাতালের এক গ্রুপ-ডি কর্মীর শরীরে ধরা পড়ল করোনা সংক্রমণ। তিনি হাসপাতালের ক্রিটিক্যাল কেয়ার ইউনিটের স্টাফ। নিয়ম মাফিক হাসপাতালের ১৭ জন কর্মীর করোনা টেস্ট করা হয়।

 শনিবার রিপোর্ট এলে ওই কর্মীর রিপোর্টে পজিটিভ পাওয়া যায়, বাকিদের রিপোর্ট নেগেটিভ হয়। রবিবার তাকে কোভিড হাসপাতালে ভর্তি করা হয় এবং তাঁর বাড়ির চারজনকে কোয়ারেন্টিন সেন্টারে নিয়ে যাওয়া হয়। হাসপাতালে এই কর্মী উলুবেড়িয়ার ৩২ নম্বর ওয়ার্ডের ফতেপুরের বাসিন্দা। এই ঘটনার পর অন্যান্য স্বাস্থ্য কর্মী ও হাসপাতালে ভর্তি রোগীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

এদিকে, ক্রমশই করোনা পরিস্থিতি আরও বাড়ছে রাজ্যে। আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি দেখে চিন্তা বাড়ছে স্বাস্থ্য় দফতরের। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্য়ে নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা ১৫৩। মারা গেছেন ১৪ জন। রবিবার সন্ধেয় স্বাস্থ্য ভবনের বুলেটিনে এমনটাই জানানো হয়েছে। ফলে রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা এই মুহূর্তে ১৯৩৯।

বুলেটিন বলছে, শেষ ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে আরও ১৪ জন মারা যাওয়ার ফলে রাজ্যে মোট কোভিডে মৃত্যু দাঁড়াল ১১৩। আরও ৭২ জন করোনা সংক্রামিত ব্যক্তি ইতিমধ্যেই মারা গেছেন কো-মর্বিডিটির কারণে। অর্থাৎ করোনা সংক্রমণ শরীরে থাকা অবস্থায় এ রাজ্যে মোট মৃত্যু হয়েছে ১৮৫ জনের।

তবে ভালো খবর, গত ২৪ ঘন্টায় সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৯৯জন৷ ফলে এই পর্যন্ত মোট ৩৭২ জন সুস্থ হয়েছেন৷ যা শতাংশের হিসেবে ২০.৮৩%। এই মুহূর্তে রাজ্যের করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১৯৩৯ জন৷ এর মধ্যে অ্যাক্টিভ করোনা আক্রান্ত ১,৩৩৭ জন৷