বিশ্বনাথ দাস, হাওড়া-রাজ্য ও কেন্দ্রীয় নীতির বিরোধিতা সহ সাত দফা দাবিতে আগামী ২৬ নভেম্বর ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে বামপন্থী সংগঠনগুলি। ধর্মঘটকে সমর্থন জানিয়েছে ভারত কিষাণ কো-অর্ডিনেশন কমিটি। পশ্চিমবঙ্গে বামেদের এই ধর্মঘটকে সফল করার উদ্দেশ্যে রবিবার হাওড়ায় মিছিল করল বামপন্থী শ্রমিক সংগঠনগুলি।

আরও পড়ুন-আল-কায়দা জঙ্গি যোগের পর কড়া নজর মুর্শিদাবাদে, সীমান্তে ঘাঁটি গেড়ে তদন্ত NIA-র

ধর্মঘটের সমর্থনে রবিবার সকালে বালিখাল থেকে শিবপুর বোটানিক্যাল গার্ডেন পর্যন্ত মিছিল করে বামপন্থী শ্রমিক সংগঠনগুলি। ধর্মঘটে সাত দফা দাবি জানিয়েছে বামেরা। তাঁদের দাবি, অতিমারি সময়ে অসহায় গরিব পরিবারকে দশ হাজার টাকা অনুদান, বেকারদের চাকরি, প্রত্যেকের জন্য নূন্যতম ১০ কেজি রেশন, বিনামূল্যে কোভিড চিকিৎসা, নারী নিরাপত্তা সহ আরও বেশ কয়েকটি দাবি জানানো হয়েছে বামেদের পক্ষ থেকে। ধর্মঘট নিয়ে সিপিএমের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য শ্রীদীপ ভট্টাচার্যের অভিযোগ, ''তৃণমূলের সঙ্গে বিজেপির গোপন বোঝাপড়া হয়েছে। তাই প্রশাসনকে ব্যবহার করে ধর্মঘটকে ভাঙার চেষ্টা করবে। কিন্তু সাধারণ মানুষের স্বতঃস্ফূর্ত সমর্থনে এই ধর্মঘট সফল হবেই''।

আরও পড়ুন-'মুকুলকে রেখে সারদা নিয়ে জ্ঞান দেবেন না', কৈলাসকে তীব্র হুঁশিয়ারি কুণাল ঘোষের

অন্যদিকে, বামেদের এই ধর্মঘটকে কটাক্ষ করেছে তৃণমূল। মন্ত্রী অরূপ রায় বলেন, ''সিপিএম আগে প্রত্যেকবছর দুটো করে বনধ ডাকত। এটা তাঁদের রাজনৈতিক কর্মসূচির মধ্যে পড়ে। অতিমারির সময়ে গোটা দেশ আর্থিক দূরাবস্থার মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। এই সময় ধর্মঘট হলে রুটি-রুজি মার খাবে মানুষের। সিপিএমের সঙ্গে গোপন আঁতাত রয়েছে বিজেপির। এই ধর্মঘটের সরাসরি বিরোধিতা করছে তৃণমূল''।