বিশ্বনাথ দাস, হাওড়া:  করোনা আতঙ্কের মাঝেই স্বাভাবিক ছন্দ ফিরছে জনজীবনে। সড়কপথে সচল পরিবহণও। কিন্তু লোকাল ট্রেন পরিষেবা কবে চালু হবে? ক্ষোভ বাড়ছে নিত্যযাত্রীদের। স্পেশাল ট্রেনে সফরে বাধাকে কেন্দ্র করে এবার রণক্ষেত্রের চেহারা নিল হাওড়ার লিলুয়া।  স্টেশনে ব্য়াপক ভাঙচুর চালালেন ক্ষুদ্ধ যাত্রীরা। এদিকে আবার সোমবার ফের রেল অবরোধ হল হুগলি চুঁচুডায়ও।

আরও পড়ুন: ফের করোনার ছোবল তৃণমূলের অন্দরে, আক্রান্ত কেশপুরের বিধায়ক শিউলি সাহা

করোনার আতঙ্ক কাটেনি এখনও। বরং লাফিয়ে লাফিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে রাজ্যে। এরইমধ্যে আনলক প্রক্রিয়া জারি রেখেছে সরকার। বাস-ট্যাক্সি-অটো, সবই চলছে। এমনকী, দিন কয়েক কলকাতার চালু হয়ে গিয়েছে মেট্রোও। ব্যতিক্রম শুধু লোকাল ট্রেন। সাধারণ যাত্রীদের সফর নিষেধ, স্রেফ কর্মীদের জন্য হাতেগোনা কয়েকটি স্পেশাল ট্রেন চালাচ্ছে রেল। ফলে কর্মস্থলে পৌঁছতে গিয়ে নাজেহাল হচ্ছেন নিত্যযাত্রীরা। পরিস্থিতি এমনই যে, নিরুপায় হয়ে নিয়মের তোয়াক্কা না করে স্পেশাল ট্রেনে উঠে পড়ছেন অনেকেই। আর তাতেই ঘটল বিপত্তি।

আরও পড়ুন: শুরু ৭২ ঘণ্টা ট্রাক ধর্মঘট, কী কী সমস্যার মুখে পড়তে চলেছে মধ্যবিত্ত

জানা গিয়েছে, আগাম খবর পেয়ে সোমবার সকালে লিলুয়া স্টেশনে হাওড়াগামী একটি স্পেশাল ট্রেনে তল্লাশি চালানো হচ্ছিল। তখনই ধরা পড়ে যায় বহু সাধারণ যাত্রীরা। ট্রেন থেকে নামিয়ে তাঁদের কাছ জরিমানা করা হয়। ব্যস আর যায় কোথায়! চোখের নিমেষে পরিস্থিতি অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে। কর্তব্যরত রেলকর্মীদের সঙ্গে বচসা শুরু হয়ে যাত্রীদের। এরপর স্টেশনের অফিসেও ক্ষুদ্ধ যাত্রীরা হামলা চালান অভিযোগ। ভেঙে  ফেলা হয় সেখানকার বেশির সামগ্রীই। পুলিশ ও ব়্যাফ নামিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়। এদিকে আবার স্পেশাল ট্রেনে সফরের অনুমতির দাবিতে সোমবার সকালে রেললাইনে আটকে যাত্রীরা বিক্ষোভ দেখান হুগলি চুঁচুড়া স্টেশনেও। এর আগে রবিবারও হুগলি ও পানডুয়া স্টেশনে স্পেশাল ট্রেন আটকে বিক্ষোভ দেখিয়েছিলেন নিত্যযাত্রীরা।