শনিবার (২৬ ডিসেম্বর) জম্মু ও কাশ্মীরের শোপিয়ানের কনিগাম এলাকায় নিরাপত্তা বাহিনী সঙ্গে সংঘর্ষে নিহত হল আল-বদর জঙ্গি গোষ্ঠীর দুই সদস্য। গোলাগুলি চলাকালীন দুই সেনা জওয়ানও আহত হয়েছেন। তাঁদের নিকটবর্তী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে, চিকিৎসা চলছে। এই অভিযান এখনও চলছে বলে জানা গিয়েছে। ওই এলাকায় আরও জঙ্গি লুকিয়ে থাকতে পরারে বলে সন্দেহ করা হচ্ছে।

এদিন, জম্মু ও কাশ্মীর পুলিশের ডিজিপি দিলবাগ সিং জানিয়েছেন, শুক্রবার দক্ষিণ কাশ্মীরের শোপিয়ান জেলার ইমামসাহিব বেল্টের কনিগাম গ্রামে জঙ্গিরা লুকিয়ে আছে বলে সুনির্দিষ্ট তথ্য এসেছিল নিরাপত্তা বাহিনীর কাছে। রাতেই পুলিশ, সেনাবাহিনীর ৪৪ রাইফেল রেজিমেন্ট এবং সিআরপিএফের একটি যৌথ বাহিনী ওই অঞ্চলটি ঘিরে ফেলে জঙ্গিদের সন্ধানে অভিযান শুরু করে। নিরাপত্তা বাহিনীকে লক্ষ্য করে সন্ত্রাসবাদীরা আচমকা গুলি ছোঁড়ায় দুই জওয়ান আহত হন। তারপরই দুই পক্ষের গুলির লড়াই শুরু হয়েছিল।

দিলবাগ সিং আরও জানিয়েছেন, শুক্রবার রাতেই আহত ওই দুই সেনা জওয়ান-কে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আর কোনও হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। যে দুই সন্ত্রাসবাদীর মৃত্যু হয়েছে, তারা দুজনেই আল-বদর গোষ্ঠীর সদস্য বলে সনাক্ত করা গিয়েছে। কিছু সন্ত্রাসবাদী এখনও এই এলাকায় লুকিয়ে রয়েছে। সূত্রমতে, বন্দুকযুদ্ধও এখনও চলছে। শুক্রবারই উত্তর কাশ্মীরের বারমুলা জেলার কেরিতে নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে আরও দুই সন্ত্রাসবাদীর মৃত্যু হয়েছিল।