সকলে মিলে  জাতীয় সঙ্গীত গেয়েছিলেন প্যান্টালুনস কর্মীরা। আর সেই অপরাধেই নাকি  সাসপেন্ড করা হয়েছে ২৫জন কর্মীকে। এমনই অভিযোগই উঠেছে  প্যান্টালুনস ফ্যাশন অ্যান্ড রিটেল লিমিটেডের থেকে। 

ভরাতের বস্ত্র ব্যবসায় এক অগ্রগন্য নাম প্যান্টালুনস। কলকাতায় সংস্থার একাধিক বিপণি রয়েছে। অধুনিক যুব সমাজের কাছে জনপ্রিয় এই সংস্থা। আর তাদেরই ২৫ জন কর্মীকে কলকাতা শহরে  জাতীয় সঙ্গীত গাওয়ার অপরাধে বরখাস্ত করা হয়েছে বলে দাবি করা হচ্ছে। এর প্রতিবাদে গত ৬ দিন ধরে ধরনায় বসেছেন সংস্থার কর্মীরা।

আরও পড়ুন: সরস্বতী পুজোর দ্বিতীয় দিনেও আকাশ মেঘলা, শনিবার থেকে ফের নামবে তাপমাত্রা

জাতীয় সঙ্গীত গাওয়ার জন্য কর্মীদের এইভাবে সাসপেন্ড করার জন্য তৃণমূলের দিকেই অভিযোগের আঙ্গুল উঠছে। গোটা বিষয়টি প্যান্টালুনস কর্তৃপক্ষ জানে কিনা তা নিয়েও প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

বাংলায় এনআরসি, সিএএ নিয়ে প্রতিবাদ আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী। রাজ্যের  নানা প্রান্তেই চলছে কেন্দ্র বিরোধী বিক্ষোভ আন্দোলন। এই অবস্থায় প্যান্টালুনস কর্মীদের জাতীয় সঙ্গীত গাওয়ার জন্য রোশানলে পড়তে হওয়া নিয়ে নতুন বিতর্ক তৈরি হচ্ছে। রাজ্যের তৃণমূল সরকারের দিকেই উঠছে অভিযোগের আঙ্গুল।

আরও পড়ুন: বসন্ত পঞ্চমীতে ঘোষণা হল দিন, ৩০ এপ্রিল ফের খুলছে বদ্রিনাথের দরজা

এদিকে সোশ্যাল মিডিয়ায় কর্মীদের বয়কট সংক্রান্ত ভিডিও ছড়িয়ে পড়তেই নেটিজেনদের মধ্যে তীব্র প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়। জাতীয় সঙ্গীত গাইবার জন্য কাজ হারানোর ঘটনায় প্যান্টালুনসের পণ্য বয়কট করার দাবি ওঠে। 

 

সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশিত ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, সাসপেন্ডের প্রতিবাদে ধরনায় বসেছেন প্যান্টলুনস কর্মীরা। এক কর্মী জানান, জাতীয় সঙ্গীত গাইবার পর থেকেই একের পর এক কর্মীকে সাসপেন্ড করা হচ্ছে।