ফের শীর্ষে ভারত। কেবল শীর্ষে নয় তালিকায় বিশ্বের প্রথম ৫টি শহরের মধ্যে ৩টি শহরই ভারতের। তবে এই সম্মান গরিমার নয়। সম্প্রতি বিশ্বের সবচেয়ে খারাপ ট্রাফিকের একটি তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। বিশ্বের ৫৭টি দেশের ৪১৫টি শহরের মধ্যে সেই তালিকার শীর্ষে রয়েছে ভারতের তথ্যপ্রযুক্তি শহর বেঙ্গালুরু। তালিকায় প্রথম পাঁচে স্থান পেয়েছে ভারতের আরও ২টি শহরও।

আরও পড়ুন: জাতীয় সঙ্গীত গাওয়ার অপরাধ, সাসপেন্ড হলেন প্যান্টালুনসের ২৫জন কর্মী

টমটম নামে নেদারল্যান্ডের একটি সংস্থা বিশ্বের ট্রাফিকের অবস্থা নিয়ে এই সমীক্ষা চালিয়েছিল। তাতে ৫৭টি দেশের মধ্যে ছিল ভারতও। ভারতে গাড়ি বিক্রিতে মন্দা চললেও এবং অন্যান্য পাশ্চাত্য দেশের তুলনায় গাড়ি বিক্রির পরিমাণ কম হলেও ট্রাফির সমস্যার শীর্ষে স্থান করে নিয়েছে আমাদের দেশ। ৪১৬টি শহরের উপর চালানো হয়েছিল এই সমীক্ষা। তাতে প্রথম দশে জায়গা করে নিয়েছে ভারতের চারটি শহর। আর সবাইকে পেছনে ফেলে ২০১৯ সালে ট্রাফিক সমস্যায় শীর্ষে রয়েছে বেঙ্গালুরু। সমীক্ষা বলছে, ভারতের তথ্য প্রযুক্তি হাব বেঙ্গালুরুতে ট্রাফিক সমস্যা চরমে। প্রায় ৭১ শতাংশ বেশি ট্রাফিক জ্যাম হয়ে থাকে বেঙ্গালুরুতে। এই সমস্যার জন্য গড়ে ২৪৩ ঘণ্টা সময় নষ্ট হয় বেঙ্গালুরুবাসীর। 

 

 

টমটমের প্রকাশিত এই তালিকায় প্রথমে দশে বেঙ্গালুরু ছাড়াও রয়েছে আরও ৩টি শহর। ট্রাফিক সমস্যায় মুম্বই রয়েছে চতুর্থ স্থানে। ট্রাফিকের কারণে মুম্বইবাসীর ২০৯ ঘণ্টা সময় নষ্ট হয়। পঞ্চম স্থানে রয়েছে মহারাষ্ট্রের আরেক শহর পুণে। পুণের বাসিন্দারা গড়ে ১৯৩ ঘণ্টা সময় নষ্ট করে ট্রাফিকের কারণে। আর রাজধানী দিল্লি রয়েছে অষ্টম স্থানে। দিল্লিবাসী ট্রাফিক সমস্যার কারণে নষ্ট করে ১৯০ ঘণ্টা। 

আরও পড়ুন: সরস্বতী পুজোর দ্বিতীয় দিনেও আকাশ মেঘলা, শনিবার থেকে ফের নামবে তাপমাত্রা

সমীক্ষায় উঠে এসেছে গাড়ি বিক্রির বিষয়টিও। বিশ্বের অন্যান্য দেশের তুলনায় ভারতে গাড়ি বিক্রির সংখ্যা অনেক কম। আমেরিকা ও চিনে রেকর্ড পরিনমাণ গাড়ি বিক্রি হলেও, দেশ দুটির অধিকাংশ শহরেই ট্রাফিকের সমস্যা নেই। খারাপ ট্রাফিকের তালিকায় প্রথম দশ স্থান পায়নি আমেরিকা, চিন ও ব্রিটেনের কোশনো শহরই। 

 

 

তবে খারাপ ট্রাফিকের তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ফিলিপিন্সের ম্যানিলা শহর। রাশিয়ার রাজধানী মস্কো রয়েছে ষষ্ঠস্থানে।