দেশের মধ্যে করোনা সংক্রমণে সবচেয়ে খারাপ অবস্থা মহারাষ্ট্রের। মারাঠা রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা এবার ৩ লক্ষ ছুঁই ছুঁই। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ফের ৮ হাজারের গণ্ডি ছাড়িয়েছে। রাজ্যে মৃতের সংখ্যা ১১ হাজার ছাড়িয়ে গিয়েছে। কীভাবে পরিস্থিতির মোকাবিলা করা যাবে তা বুঝে উঠতে পারছে না প্রশাসন। আর এর মধ্যেই চিকিৎসা করাতে এসে কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে চরম নির্যাতনের শিকার হলেন এক বছর চল্লিশের মহিলা।

জানা গেছে, করোনার উপসর্গ দেখা যাওয়ার পর ওই মহিলাকে নভি মুম্বইয়ের পানভেলের কোনগাওঁয়ের ইন্ডিয়াবুলস কোয়ারেন্টিন সেন্টারে নিয়ে আসা হয়। হাসপাতালের পঞ্চমতলে ছিলেন তিনি। সেখানেই গত ১৫ তারিখ ২৫ বছরের শুভম খাতু নিজেকে চিকিৎসক পরিচয় দিয়ে ওই মহিলার ঘরে ঢোকে ও রাতে তাঁকে ধর্ষণ করে। পরদিন সকালে মহিলা পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করেন। 

আরও পড়ুন: দৈনিক আক্রান্ত ফের ৩৫ হাজারের কাছাকাছি, দেশে মৃতের সংখ্যা ২৬ হাজার ছাড়াল

মহিলা জানান, অভিযুক্ত তাঁকে জোড় করে হাসপাতালের শৌচালয়ে নিয়ে যায়। সেখানেই মুখ চেপে ধরে ধর্ষণ করা হয়। শুক্রবারই ওই যুবকের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। জানা গিয়েছে অভিযুক্ত স্থানীয় একটি মলে কাজ করতো। কিন্তু লকডাউনের পরেই কাজ চলে যায় তার।

আরও পড়ুন: করোনার মাঝেই আরেক যুদ্ধ জয়, ২৩ রকম নিউমোনিয়ার থেকে সুরক্ষা দিতে ভ্যাকসিন বানাল ভারত

পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, অভিযুক্ত ব্যক্তিও ওই সেন্টারেই ছিল। শুক্রবারই তার করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। মুম্বই শহরতলী এলাকায় এই প্রথম কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে ধর্ষণের অভিযোগ উঠল। এর আগে চলতি সপ্তাহেই পাটনা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে এক নাবালিকাকে ধর্ষণের অভিযোগ ওঠে সেখানকার নিরাপত্তারাক্ষীর বিরুদ্ধে।