দিনের আলো তখনও ফোটেনি। রাতের অন্ধকার থাকতেই শুরু হয়েছিল গুলির লড়াই। স্থানীয় প্রশাসন জানিয়েছিল, গোপন সূত্রে তাঁরা খবর পেয়েছিলেন জম্মু ও কাশ্মীরের শ্রীনগরের নবা কদল এলাকায় লুকিয়ে রয়েছে একদন সন্ত্রাসবাদী। তাঁদের খোঁজেই এলাকা ঘিরে ফেলেন স্থানীয় পুলিশ ও সিআরপিএফ জওয়ানদের একটি যৌথবাহিনী। শুরু হয় তল্লাশি। কিন্তু সেই সময়ই জঙ্গিবার বাধা দেয়। তারপর থেকে একে অপরকে লক্ষ্য করে গুলি ছুঁড়তে থাকে নিরাপত্তা বাহিনী ও জঙ্গিরা। 


আর সেই গুলির লড়াইয়ে এখনও পর্যন্ত দুই হিজবুল জঙ্গিকে নিকেশ করা গেছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় প্রশাসনের এক আধিকারিক। তিনি আরও জানিয়েছেন এনকাউন্টার চলাকালীন এক নিরাপত্তা কর্মীও গুরুতর জখম হয়েছে। তবে এনকাউন্টার এখনও চলছে বলেও জানিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন। সংশ্লিষ্টস্থান থেকে বেশ কয়েকটি আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার হয়েছে। 

আরও প়ড়ুনঃ সজারুর কাঁটায় কি ঘায়েল হল ছোট্ট চিতাবাঘটি, জানতে দেখুন ভাইরাল হওয়া সেই ভিডিও ...

স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছে মধ্য রাত থেকেই প্রশাসনের সঙ্গে নিরাপত্তার রক্ষীদের গুলির লড়াই শুরু হয়েছিল। মাঝ থেকেই তাঁরা গুলির শব্দ পেয়েছিলেন। বিশেষ রাজ্যের তকমা চলে যাওয়ার পর থেকে মোবাইল ও ইন্টারনেটের ওপর নিষেধাঞ্জা জারি করা হয়েছিল। সেই নিষেধাজ্ঞা এখনও বজায় রয়েছে। তবে কাশ্মীর জোনের পুলিশ সন্ত্রাসবাদীদের সঙ্গে সংঘর্ষের বার্তা জানিয়েছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। পাশাপাশি জানান হয়েছিল পুলিশ ও সিআরপিএফ জওয়ানরা তাঁদের কাজ করছেন। 

আরও পড়ুনঃ বঙ্গোপসাগরের সবথেকে শক্তিশালী ঝড় আমফান, আটলান্টিক হ্যারিকেনের চতুর্থ পর্বের সমতুল ...

গত রবিবারও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছিল উপত্যকায়। ডোডা জেলায় নিহত হয়েছিল দুই হিজবুল জঙ্গি। নিহতদের মধ্যে একজন পুলওয়ামা জেলার বাসিন্দা তাহির ভাট। আপারেশন চলাকালীন এক সেনা জওয়ানও মারা গিয়েছিলেন। এনকাউন্টারের সময় তাঁরা তিন তলা বাড়িতে লুকিয়ে ছিলেন বলেও জানিয়েছেন। এমাসের গোড়ার দিকেই পুলিশ ডোডা জেলা থেকে হিজবুল মুজাহিদিন জঙ্গি তানভির আহমেদকে গ্রেফতার করেছিল। তানভির আহমেদ হারুন আব্বাস ওয়ানির সঙ্গে কাজ করত বলেই সূত্রের খবর।  

আরও পড়ুনঃ করোনার আঁতুড় ঘর চিন কি পারবে রোগমুক্তির পথ দেখাতে, ওষুধ তৈরি হয়েছে বলেই দাবি বিজ্ঞানীদের