চরম বিরোধিতার মধ্যেই রবিবার ধ্বনী ভোটে রাজ্যসভায় পাশ হয়েছে জোড়া কৃষি বিল। আর সেই সময়টিকে ভারতীয় কৃষিকাজের  ইতিহাসের এক সন্ধিক্ষণ করেই দাবি করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা দিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ওই বিল পাশের জন্য দেশের পরিশ্রমী কৃষকদের অভিনন্দন জানিয়েছেন। তিনি বলেন এই বিলের ফলে কৃষিক্ষেত্রে সম্পূর্ণ রূপান্ত ঘটবে। কোটি কোটি কৃষকের ক্ষমতয়ান নিশ্চিত করবে। 

কৃষি বিল পাশের পর সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ কয়েকটি বার্তা দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেখানে তিনি বলেন, কয়েক দশক ধরে ভারতীয় কৃষকরা বিভিন্ন প্রতিবব্ধকতার মধ্যেই আবদ্ধ রয়েছে। মধ্যস্থতাকারীরা প্রতিপদে কৃষকদের অসহায়তার সুযোগ নিচ্ছে। সংসদে পাশ হওয়ায় কৃষি বিল কৃষকদের ওজাতীয় প্রতিকূলতা থেকে মুক্ত দেবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেছেন। প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, পাশ হওয়া কৃষি বিল কৃষকদের আয় দ্বিগুণ করবে। কৃষকদের আরও বৃহত্তর সমৃদ্ধি নিশ্চিত করবে। পাশাপাশি কৃষকদের বিত্তশালী হওয়ার গতিকে আরও তরান্বিত করবে। 

বিরোধীরা ধ্বনীভোটে কৃষি বিল পাশ হওয়ার তীব্র বিরোধিতা করেন। বিরোধীদের দাবি ছিল রাজ্যসভায় কৃষি বিল পাশ করার মত সংখ্যা ছিল না সরকারের। তাই সমস্ত বিধি লঙ্ঘন করেই এই বিল পাশ করা হয়েছে। গত শুক্রবারই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী কৃষি বিলের সমর্থনে সরব হয়েছিলেন। বিহারের একটি রেল সেতুর উদ্বোধনেও কৃষি বিলের পক্ষে সওয়াল করেন তিনি। বলেন কৃষি বিল নিয়ে বিরোধীরা অপপ্রচার করছে। ভুল বোঝাচ্ছে। এই বিল পাশ হলে লাভবান হবেন দেশের অন্নদাতারা। পাশাপাশি দেশের কৃষকদের বিরোধীদের থেকে সাবধানে থাকার পরামর্শও দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। কৃষি বিল ইস্যুতেই বিজেপির দীর্ঘ দিনের জোট সঙ্গে শিরোমণি অকালি দলের সঙ্গে সম্পর্কে চিড় ধরে। কিন্তু এদিন রাজ্যসভায় বিজেপি পাশে পেয়েছে এআইডিএমকে ও ওয়াইআরএস কংগ্রেসকে।