দেশে লাফিয়ে লাফিয়ে বেড়েই চলেছে সংক্রমণ। রাশিয়াকে পেছনে ফেলে বিশ্বে করোনাআক্রান্ত দেশগুলির ক্রম তালিকায় ৩ নম্বরে উঠে এসেছে আমাদের দেশ। তারপরও এদেশের মানুষের মধ্যে যে সচেতনতার কতটা অভাব রয়েছে তারই উদাহরণ ওড়িশার গঞ্জাম জেলার একটি বিয়েবাড়ি।

আরও পড়ুন: লকডাউনে অফিসের টাকা ব্যবহার করার শাস্তি, যুবকের গোপনাঙ্গে স্যানিটাইজার স্প্রে মালিকের

ওড়িশার গঞ্জাম অন্যতম করোনা হটস্পট জেলা। গত ২ তারিখ গোপালপুর অন সি-র একটি হোটেলে বসেছিল বিয়ের আসর। সেখানে বরযাত্রীকে দেখা যায় দূরত্ববিধি বেমালুম ভুলে গিয়ে মাস্ক  না পরে নাচতে নাচতে বিয়ের আসরের দিকে যাচ্ছেবন সকলে। অনেকে আবার হাত ধরেও নাচছেন। নিয়ম কানুনকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে সেই দলে যোগ দিয়েছেন খোদ বরবাবাজীও। এই নাচগানার একটি ভিডিও প্রকাশ্যে আসতেই নড়েচড়ে বসে প্রশাসন। 

 

জেলা প্রশসানের তরফে  ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।  গ্রেফতার করা হয়েছে বরের  বাবা ও ভাইকে। বরের বাবা এলাকায় নিজেও একজন বিখ্যাত হোটেল মালিক বলে জানা যাচ্ছে। এই ঘটনার পর তাঁর হোটেলও ৭ দিনের জন্য সিল করে দেওয়া হয়। বর কনের পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের বিরুদ্ধেও এফআইআর করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: চিনে মহামারির আতঙ্ক তৈরি করা বিউবনিক প্লেগ কতটা মারাত্মক হতে পারে, জানুন এর উৎস ও উপসর্গ

কেন্দ্রীয় সরকারের কোভিড স্বাস্থ্যবিধি অনুযায়ী বিয়ের মত সামাজিক অনুষ্ঠানে সর্বোচ্চ ৫০ জনের বেশি জমায়েত করা যাবে না। সকলের মুখেই থাকতে হবে মাস্ক। কিন্তু ওড়িশার এই বিয়েবাড়িতে একদিকে যেমন ৫০ জনের বেশি বরযাত্রী ছিলেন, তারসঙ্গে মানা হয়নি সামাজিক দূরত্ব বিধিও। ইতিমধ্যে ওই বিয়েবাড়িতে অংশ নেওয়া সকলকেই কোয়ারেন্টাইনে পাঠিয়েছে প্রশাসন।