সিএএ নিয়ে উত্তাল রাজধানী। উত্তর-পূর্ব দিল্লিতে সংঘর্ষের ঘটনায় মৃত বেড়ে ১৩। আহতের সংখ্যা শিশু সহ দেড়শোর কাছাকাছি। মঙ্গলবার সারাদনিও দিল্লির নানা প্রান্তে চলেছে লুঠপাট, অগ্নিসংযোগ ও গাড়ি ভাঙচুরের ঘটনা। পরিস্থিতি ক্রমেই দিল্লি পুলিশের হাতের বাইরে চলে যাচ্ছে। এই অবস্থায় আসরে নামতে হল জাতীয় নিরাপত্তা উরদেষ্টা অজিত ডোভালকে। রাতে ডিসিপি উত্তর-পূর্বের অফিসে তিনি দিল্লির পুলিশ আধিকারিকদের নিয়ে বৈঠক করেন।

সোমবার রাতে দিল্লির পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে বৈঠক করেছিলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। মঙ্গলবার দুপুরে মুখ্যমন্ত্রী কেজরিওয়ালের সঙ্গে তিনি বৈঠক করেন। মঙ্গলবার রাতেও ফের একবার জরুরী বৈঠকে বসে তিনি। তার পরেই দিল্লি পুলিশের সঙ্গে বৈঠকে বসেন ডোভাল।

 

মঙ্গলবার রাতে রাইসিনা হিলে  রাষ্ট্রপতি ভবনে নৈশভোজের পর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বিমানে উঠতেই দিল্লিতে পুলিশি অ্যাকশন তীব্র হয়ে ওঠে। গো়ড়ায় দেখামাত্র গুলি চালনার কথা পুলিশের হেড কোয়ার্টার থেকে ঘোষণা করা হয়নি। কিন্তু দেখা যায় উত্তর-পূর্ব জেলায় যমুনা বিহারের পুলিশ সুপার মাইকে সে কথা ঘোষণা করছেন। পরে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে শ্যুট অ্যাট সাইটের নির্দেশের কথা স্বীকার করে নিয়েছে পুলিশ।

এদিকে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাগুলিতে বুধবার সিবিএসই বোর্ড পরীক্ষা স্থগিত রাখাক নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। দশ শ্রেণির দুটি ও দ্বাদশ শ্রেণির তিনটি পরীক্ষা পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে।