এবার ঘরের মাঠে সরাসরি নরেন্দ্র মোদীকে চ্যালেঞ্জ জানালেন আসাদউদ্দিন ওয়াইসি। সামনেই গ্রেটার হায়দরাবাদ মিউনিসিপাল কর্পোরেশনের নির্বাচন। তার আগে বুধবার, এইআইমিম প্রধান তথা হায়দরাবাদের সাংসদ বিজেপিকে চ্যালেঞ্জ করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে হায়দরাবাদ প্রচারে আনার জন্য। তিনি বিজেপিকে উদ্দেশ্য করে বলেছেন, নরেন্দ্র মোদীর প্রচারের পর দেখা যাবে বিজেপি হায়দরাবাদে কতগুলি আসনে জয়ী হয়।

এখনও পর্যন্ত হায়দরাবাদের পুরভোটে বিজেপির হয়ে প্রচারে এসেছেন বেঙ্গালুরু দক্ষিণের সাংসদ তেজস্বী সূর্য, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রকাশ জাভাদেকার এবং স্মৃতি ইরানি। বৃহস্পতিবারই, দলের নির্বাচনী ইস্তেহার প্রকাশ করবেন মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিস। আগামী দিনে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নাড্ডা, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথকে হায়দরাবাদে প্রচারে নিয়ে আসবে বলে মনে করা হচ্ছে। তবে, পুরভোটের প্রচারে প্রধানমন্ত্রীর এখনও পর্যন্ত প্রচারে আসার কোনও সম্ভাবনা নেই।  

আরও পড়ুন - কারা ডাকল ধর্মঘট, বন্ধ থাকবে কোন কোন পরিষেবা, ধর্মঘটিদের দাবি কী কী - জেনে নিন সব কিছু

আরও পড়ুন - বেড়াতে গেলেই মিলবে করোনা ভ্যাকসিন, অবাক করা পর্যটন চালু করল মুম্বইয়ের সংস্থা

আরও পড়ুন - একের পর এক মৃতদেহ ধর্ষণ, বাংলাদেশে সিরিয়াল কিলার ধরতে গিয়ে সামনে এল বিকৃত অপরাধ

তবে, মোদী বনাম ওয়াইসি এখনও পর্যন্ত না দেখা গেলেও হায়দরাবাদে ইতিমধ্যেই বিজেপির তরুণ নেতা তেজস্বী সূর্যর সঙ্গে বাকযুদ্ধে জড়িয়ে পড়েছেন এআইমিম প্রধান। বাবরি মসজিদ ধ্বংসের প্রসঙ্গ তুলে ওয়াইসি বিজেপির বিরুদ্ধে মসজিদ ভাঙার অভিযোগ তুলেছেন। পাশাপাশি দাবি করেছেন, এআইমিম তাঁরা ধ্বংসের পক্ষে নয়, বরং মন্দির তৈরির জন্য তাঁরা ১০ কোটি টাকা তহবিল সংগ্রহ করেছেন। প্রসঙ্গত, তেলেঙ্গানা বিধানসভায় এআইমিম নেতা আকবরউদ্দিন ওয়াইসি একটি মন্দির তৈরির জন্য ১০ কোটি টাকা বরাদ্দের দাবি করেছিলেন।

বিজেপি নেতা তেজস্বী সূর্য আহার এর জবাবে, ওয়াইসির বিরুদ্ধে হায়দরাবাদে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের আশ্রয় দেওয়ার অভিযোগ করেছেন। তিনি বলেন, সব অবৈধ শরণার্থীদের বের করে দেওয়া হবে। বিজেপির এই অভিযোগের প্রতিক্রিয়া জানিয়ে আসাদউদ্দিন ওয়াইসি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী জি কিশান রেড্ডির পদত্যাগের দাবি জানিয়েছেন। জি কিশান রেড্ডি সেকেন্দ্রাবাদের বিধায়ক। ওয়াইসি প্রশ্ন তুলেছেন, যদি পাকিস্তানি ও রোহিঙ্গারা অবৈধভাবে হায়দরাবাদে আশ্রয় নিয়ে থাকে, তবে রেড্ডি কি ঘুমাচ্ছিলেন? কাজেই বিজেপি যদি রোহিঙ্গা ও পাকিস্তানিদের হায়দরাবাদে অবৈধভাবে আশ্রয় নেওয়ার কথা তোলে, সেইক্ষেত্রে তাঁদের সরকারের মন্ত্রীর ব্যর্থতাই প্রমাণিত হয়।