সাধারণ মানুষের জন্য সুখবর। পুজোর মুখে দুদিনের জন্য যে ব্যাঙ্ক ধর্মঘটের ডাক দেওয়া হয়েছিল, তা স্থগিত রাখা হতে পারে বলে খবর। প্রসঙ্গত সারা দেশ জুড়ে ধর্মঘটের দাবিতে সম্মিলিতভাবে নোটিশ দিয়েছিল অল ইন্ডিয়া ব্যাঙ্ক অফিসার কনফেডারেশন (এআইবিওসি),  অল ইন্ডিয়া ব্যাঙ্ক অফিসারস অ্যাসোসিয়েশন (এআইবিওএ),  ইন্ডিয়ান ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক অফিসারস কংগ্রেস (আএনবিওসি), এবং ন্যাশনাল অর্গানাইজেশন অব ব্যাঙ্ক অফিসার (নোবো)। 

সোমবার কেন্দ্রীয় অর্থ সচিব রাজীব কুমারের সঙ্গে দেখা করেন ইউনিয়নের চার প্রতিনিধিদল। সূত্রের খবর, তাদের দুপক্ষের মধ্যেই সুষ্ঠু আলোচনা হয়েছে। জানা গিয়েছে, যে যে বিষয়ে তাঁদের অভিযোগ, বা যে যে বিষয়ে তাঁরা চান যে আলোচনা হোক, সেইসব বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হবে বলে আশ্বাস দিয়েছে অর্থমন্ত্রক। 

তাদের তরফে আশ্বাস দিয়ে বলা হয়েছে যে, আলোচনার জন্য একটি কমিটি আয়োজন করা হবে যারা ইউনিয়নের যাবতীয় দাবি খতিয়ে দেখবে বলে আশ্বাস দিয়েছে। প্রসঙ্গত, দেশের দশটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের সংযুক্তিকরণ ঘটিয়ে চারটি ব্যাঙ্ক গড়ে তোলার কথা জানিয়েছিলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ। কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তের তীব্র বিরোধীতা করেই সারা দেশ জুড়ে ব্যাঙ্ক ধর্মঘটের ডাক দিয়েছিল দেশের রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের শীর্ষকর্তাদের চারটি সংগঠন। 

আরও পড়ুন- 'হাউডি মোদী'র পর ফের ভোলবদল, ইমরানের সঙ্গে বৈঠকে ফের কাশ্মীর ইস্যুতে মধ্যস্থতার দাবি ট্রাম্পের

তবে ব্যাঙ্ক সংযুক্তিকরণের দাবির পাশাপাশিও কর্মচারীদের আরও যে দাবিগুলি ছিল, তার মধ্যে সপ্তাহে পাঁচদিন কাজের দাবিও রয়েছে  এবং ক্যাশ ট্রানজ্যাকশন আওয়ার এবং রেগুলেটেড ওয়ার্কিং আওয়ার্সেরও দাবিও ছিল তাঁদের। আর এই দাবিতেই আগামী ২৬ সেপ্টেম্বর থেকে টানা দুদিন ব্যাঙ্ক ধর্মঘট ডাক দিয়েছিল তারা। সেইসঙ্গে ২৮ সেপ্টেম্বর মাসের চতুর্থ শনিবার হওয়ায় ওই দিন ব্যাঙ্ক বন্ধ থাকবে।আর ২৯ তারিখ রবিবারও ব্যাঙ্কের ছুটির দিন। যার জেরে পুজোর আগে মোট চার দিন ব্যাঙ্ক বন্ধ থাকবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়েছিল। তবে সেই আশঙ্কা এখন আর নেই বললেই চলে।