কাশ্মীরের পুলওয়ামায় (Pulwama) বিজেপি নেতাকে গুলি করে হত্যা করল জঙ্গিরা। দক্ষিণ কাশ্মীরের পুওয়ামায় জঙ্গিদের গুলিতে নিহত বিজেপি (BJP) নেতা রাকেশ পণ্ডিতিয়া (Rakesh Panditia)। গুলি লাগার পর রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে লুটিয়ে পড়েন তিনি। দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে গিয়েও শেষ রক্ষা হয়নি। চিকিৎসকেরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

আরও পড়ুন, সাত সকালে মুকুলকে ফোন মোদীর, একা অভিষেকই শিরশিরানি ধরিয়ে দিল BJP-তে 

 

 


আবারও রক্তাক্ত হয়েছে ভূস্বর্গ। বুধবার রাতে পুলওয়ামার ত্রাল এলাকায় ঘটনাটি ঘটেছে। স্থানীয় সূত্রে জানি গিয়েছে, বুধবার সন্ধেয় ত্রালের পাইন এলাকায় এক বন্ধু বাড়িতে গিয়েছিলেন রাকেশ । বন্ধুর মেয়েকে সঙ্গে নিয়ে এলাকার একটি বাজারে গিয়েছিলেন ওই বিজেপি নেতা। আগে থেকেই তাঁর উপর নজর রেখেছিল জঙ্গিরা বলে অনুমান করা হচ্ছে। বাজারে পৌছতেই তাঁকে লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ করে জঙ্গিরা। জঙ্গিদের এলোপাথাড়ি গুলিতে আহত হয়েছে রাকেশের বন্ধুর মেয়েও। দুজনেই মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। গুরুতর জখম অবস্থায় বিজেপি নেতাকে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকেরা মৃত বলে ঘোষণা করেন। অপরদিকে গুলিবিদ্ধ ওই তরুণীতে পরে পুলওয়ামা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এইমুহূর্তে সেখানেই চিকিৎসাধীন রয়েছেন ওই তরুণী।

আরও পড়ুন, 'শুভেন্দুর মত অত খারাপ না মুকুল' পুরোনো বাণীই কি টানছে, 'কৃতজ্ঞতা'য় মুকুল পুত্র শুভ্রাংশু  


জম্মু ও কাশ্মীরের পুলিশের মুখপাত্র জানিয়েছেন, রাত ১০ টা ১৫ মিনিট নাগাদ গুলি চালানোর ঘটনা ঘটেছে। শ্রীনগরে একটি বাড়িতে থাকতেন রাকেশ। বাড়িতে বিশেষ নিরাপত্তাও দেওয়া হত। রাকেশের সঙ্গে দুজন ব্য়াক্তিগত নিরাপত্তারক্ষীও থাকতেন। কাশ্মীরের আইজি বলেন, ত্রালে যাওয়ার সময় রাকেশের সঙ্গে ব্যাক্তিগত নিরাপত্তারক্ষীরা ছিলেন না। যেখানে গুলি চালানো হয়েছে, সেই পুরোএলাকা ঘিরে ফেলা হয়েছে। আততায়ীদের গ্রেফতার করতে তল্লাশি অভিযান শুরু করেছে নিরাপত্তা বাহিনী। ঘটনার নিন্দা করেছেন বিজেপির মুখপাত্র আলতাফ ঠাকুর। তিনি বলেছেন, এই ধরণের হামলা চালিয়ে বিজেপি নেতাদের মানুষের হয়ে কাজ করা থেকে আটকানো যাবে না। পুলিশ অবশ্য আততায়ীদের খুঁজে বের করে উপযুক্ত শাস্তি দেবে।'